তথ্য অধিদফতর (পিআইডি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২০ মে ২০১৫

তথ্যবিবরণী 20/05/2015

তথ্যবিবরণী                                                                                                নম্বর : ১৪৬০ 
বিশ্ব স্বাস্থ্য সম্মেলনে মোহাম্মদ নাসিম 
জলবায়ু পরিবর্তনের সমস্যা মোকাবিলায় স্বাস্থ্যখাতকে প্রাধান্য দেয়ার আহ্বান
জেনেভা, ২০ মে :
স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, বিশ্বব্যাপী জলবায়ু পরিবর্তনের সমস্যা মোকাবিলায় স্বাস্থ্যখাতকে প্রাধান্য দিয়ে কৌশল প্রণয়নে সকলকে কার্যকর ভূমিকা রাখতে হবে। এলক্ষ্যে আগামী ডিসেম্বরে প্যারিসে অনুষ্ঠেয় প্যারিস জলবায়ু চুক্তিতে এখাতে আর্থিক ও প্রযুক্তিগত সহায়তা বাড়ানোর ওপর গুরুত্ব দিতে বিশ্ব নেতৃবৃন্দের প্রতি তিনি আহ্বান জানান। 
আজ সুইজারল্যান্ডের জেনেভায় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ৬৮তম সম্মেলনে ‘জলবায়ু ও স্বাস্থ্য’ শীর্ষক এক টেকনিক্যাল ব্রিফিংয়ে বক্তৃতাকালে মোহাম্মদ নাসিম এই আহ্বান জানান। জেনেভার জাতিসংঘ ভবনে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়।
     স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনে বাংলাদেশ সর্বোচ্চ ক্ষতির শিকারের সম্মুখীন একটি দেশ। বৈশ্বিক জলবায়ু ঝুঁকি সূচকেও বাংলাদেশকে সর্বোচ্চ ঝুঁকিপূর্ণ দেশ হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে। যদিও বিশ্বব্যাপী জলবায়ু পরিবর্তনে বাংলাদেশসহ অনেক অনুন্নত দেশের কোনো ভূমিকাই নেই। ইতোমধ্যে সব রকমের চরমভাবাপন্ন আবহাওয়ার প্রভাব বাংলাদেশে পড়তে শুরু করেছে। বর্ষা মৌসুমে কম বৃষ্টি, শীতকালে শীত না পড়া, গ্রীষ্মকালে ভয়াবহ তাপমাত্রা বৃদ্ধির মতো আবহাওয়ার অনিয়মিত ও অস্বাভাবিক প্রকৃতি বাংলাদেশকে মোকাবিলা করতে হচ্ছে। ফলে নদী ও জলাশয় শুকিয়ে যাচ্ছে যা জমির উর্বরতা কমিয়ে দিচ্ছে। পাশাপাশি বিভিন্ন নতুন রোগের প্রাদুর্ভাব ঘটাচ্ছে।
স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, জলবায়ুর অস্বাভাবিক পরিবর্তনের ফলে এই শতাব্দীর মধ্যে সমুদ্রপৃষ্ঠ এক মিটার বৃদ্ধি পেয়ে বাংলাদেশের ১৭ শতাংশ জমি তলিয়ে যাবে এবং জনসংখ্যার ঘনত্ব বর্তমানে ১ হাজার ১০০ থেকে বেড়ে ১ হাজার ৭৩৫ হয়ে যাবে বলে আশংকা করা হচ্ছে। ফলে পৃথিবীর বৃহত্তম ম্যানগ্রোভ বন সুন্দরবন সম্পূর্ণ বিনষ্ট হবে। ৮ মিলিয়ন ঘরবাড়িসহ বিপুল পরিমাণ রাস্তাঘাট, শিল্পকারখানা, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও হাসপাতাল পানিতে তলিয়ে যাবে।
স্বাস্থ্যমন্ত্রী বাংলাদেশে জলবায়ু পরিবর্তন সমস্যা মোকাবিলায় উপকূলীয় সতর্কতা এবং জনগণকে নিরাপদে অন্যত্র সরিয়ে নেওয়ার জন্য উন্নত ব্যবস্থাপনা প্রণয়ন, জলবায়ু ট্রাস্ট তহবিল গঠনসহ গৃহীত বিভিন্ন উদ্যোগের কথা তুলে ধরে বলেন, ইতোমধ্যে বাংলাদেশ এ সমস্যা এবং এ থেকে সৃষ্ট বিভিন্ন রোগ মোকাবিলায় নানামুখী উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। বিশ্বব্যাপী সচেতনতা বাড়ানোর জন্য বলিষ্ঠ কণ্ঠস্বর হিসেবে প্রশংসিত বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বে বাংলাদেশ সাম্প্রতিক সময়ে বেশ কয়েকটি প্রাকৃতিক ও মানবসৃষ্ট দুর্যোগ সফলভাবে মোকাবিলা করেছে। তিনি বলেন, দেশের দুর্যোগ প্রতিরোধ ও ব্যবস্থাপনা ক্ষমতা আরো বাড়াতে প্রযুক্তি, সম্পদ ও জনবলের আরো প্রয়োজন যা স্বাস্থ্যসেবার গুণগত মান ও ভৌত অবকাঠামো সম্প্রসারণে ভূমিকা রাখবে। তবে এজন্য প্রচুর অর্থের প্রয়োজন। তিনি এক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় আর্থিক সহায়তা বাড়াতে বিশ্ব নেতৃবৃন্দের প্রতি আহ্বান জানান। 
অনুষ্ঠানে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মহাপরিচালক মার্গারেট চ্যাইন ও পরিচালক মারিয়া নেইরাসহ বিভিন্ন দেশের স্বাস্থ্যমন্ত্রীরা উপস্থিত ছিলেন। 
স্বাস্থ্যমন্ত্রীর সঙ্গে পুনম ক্ষেত্রপালের বৈঠক
এদিকে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া অঞ্চলের পরিচালক পুনম ক্ষেত্রপালের সঙ্গে বৈঠক করেন বাংলাদেশের স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম। এ সময় মোহাম্মদ নাসিম বাংলাদেশের স্বাস্থ্যসেবা এগিয়ে নিতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার আরো সহযোগিতা কামনা করে বলেন, সাড়ে ১৩ হাজার কমিউনিটি হেলথ ক্লিনিকের মাধ্যমে গ্রামাঞ্চলে জনগণের দোরগোড়ায় স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছে দেয়া হচ্ছে। এসব কমিউনিটি হেলথ ক্লিনিক থেকে মানুষ বিনামূল্যে চিকিৎসা ও ওষুধ পাচ্ছেন। তিনি বলেন, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নিরলস প্রচেষ্টা এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিচক্ষণ সাহসী নেতৃত্বের কারণে বাংলাদেশ শিশু ও মাতৃ মৃত্যুহার হ্রাস করতে সক্ষম হয়েছে। 
#
পরীক্ষিৎ/সাইফুল্লাহ/মিজান/জসীম/সেলিম/২০১৫/২১৩০ ঘণ্টা

 

তথ্যবিবরণী                                                                                               নম্বর : ১৪৫৯

এলজিআরডি মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠক

ঢাকা, ৬ জ্যৈষ্ঠ (২০ মে) :
জাতীয় সংসদের স্থানীয় সরকার, পল্লিউন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির বৈঠক আজ জাতীয় সংসদভবনে অনুষ্ঠিত হয়।
কমিটির সভাপতি আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ’র সভাপতিত্বে কমিটির সদস্য স্থানীয় সরকার, পল্লিউন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী মোঃ মসিউর রহমান রাঙ্গাঁ আলহাজ এডভোকেট মোঃ রহমত আলী, সাবের হোসেন চৌধুরী, এ কে এম মোস্তাফিজুর রহমান ও ফজলে হোসেন বাদশা বৈঠকে অংশগ্রহণ করেন।
সভায় ঢাকা ওয়াসা ও রাজশাহী ওয়াসা সম্পর্কে গৃহীত সিদ্ধান্তসমূহের বাস্তবায়ন অগ্রগতি প্রতিবেদন উপস্থাপন করা হয়।
 বৈঠকে ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের খাতওয়ারী ব্যয়ের হিসাব প্রতিবেদন আকারে এবং ঢাকা ওয়াসার উন্নয়ন প্রকল্পসমূহের পূর্ণাঙ্গ তালিকা বিবরণসহ সংসদীয় কমিটিতে উপস্থাপনের সুপারিশ করা হয়।
কমিটি ঢাকা ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী তাকসিম খানের দুর্নীতি সম্পর্কে পত্রপত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদের ভিত্তিতে মন্ত্রণালয় কর্তৃক তদন্ত প্রতিবেদন আগামী কমিটি বৈঠকে উপস্থাপনের সুপারিশ করে।
বৈঠকে স্থানীয় সরকার বিভাগ থেকে জেলা পরিষদের অনুকূলে বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচি এডিপির (সাধারণ) এবং এডিপি (বিশেষ) বরাদ্ধের ক্ষেত্রে সমতা বিধানের সুপারিশ করা হয়।
রাজশাহী ওয়াসার ঈড়হংঃৎঁপঃরড়হ ড়ভ ঝঁৎভধপব ডধঃবৎ ঞৎবধঃসবহঃ চষধহঃ প্রকল্পের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সংসদীয় কমিটির সিদ্ধান্ত অমান্য করায় মন্ত্রণালয় থেকে তদন্ত করে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করে কমিটি ।
স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের আমব্রেলা প্রকল্পের নতুন অর্থবছরে যে প্রকল্প নেয়া হয়েছে সেখান থেকে সকল সংসদ সদস্যদের জন্য ২০ কোটি টাকা বরাদ্দের সুপারিশ করা হয়।
স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব, পল্লিউন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের অতিরিক্ত সচিবসহ মন্ত্রণালয় এবং জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।

#

আহসান/সাইফুল্লাহ/রফিকুল/জয়নুল/২০১৫/২০৪০ঘণ্টা
 
তথ্যবিবরণী                                                                                               নম্বর : ১৪৫৮

আলোচনাসভায় ভূমিমন্ত্রী
গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় বাঙালি জাতির মাথা উঁচু করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

ঢাকা, ৬ জ্যৈষ্ঠ (২০ মে) :
ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ বলেছেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৈষম্যমুক্ত জাতি গঠন, দেশের অর্থনৈতিক মুক্তি, খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন ও সুখী সমৃদ্ধিশালী আত্মনির্ভরশীল শিক্ষিত জাতি গঠনে গণতন্ত্রকে অব্যাহত রেখে বাঙালি জাতির মাথা বিশ্বদরবারে উঁচু করেছেন।
আজ রাজধানীর শাহবাগ পাবলিক লাইব্রেরি মিলনায়তনে বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চারনেতা পরিষদ আয়োজিত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৩৪তম স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে “গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায়: গণতন্ত্রের মানসকন্যার রাজনীতি ও বর্তমান প্রেক্ষাপট’’ শীর্ষক আলোচনাসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে ভূমিমন্ত্রী একথা বলেন।
বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চার নেতা পরিষদের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক আবুল কালাম আজাদ পাটোয়ারীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক এইচএমএস চৌধুরী সুজন, ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটির ভিসি প্রফেসর এমএ মান্নান, ওলামা লীগের সভাপতি ইলিয়াস হোসেন বিন-হেলালী, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সহসম্পাদক এমএ করিম ও বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক অরুণ সরকার রানা বক্তব্য রাখেন।
ভূমিমন্ত্রী বলেন, দেশের সকলের জন্য অন্ন, বস্ত্র, বাসস্থান, শিক্ষা ও চিকিৎসা নিশ্চিত করে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ার স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার আন্তরিকতার সাথে কাজ করে যাচ্ছে। বাঙালির মহাসঙ্কটকালের চরম মুহূর্তে জাতির কান্ডারি হিসেবে একজন দক্ষ অভিভাবক হিসেবে বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার এদেশে প্রত্যাবর্তন ছিল বাঙালি জাতীয় জীবনে ইতিহাস রচনার এক মাইলফলক। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কল্যাণে বাঙালি হিসেবে আমরা আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস, মিয়ানমার ও ভারতের সাথে সমুদ্রসীমা জয়, বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার, পার্বত্য চট্টগ্রাম শান্তিচুক্তি, ছিটমহল ও সীমান্ত চুক্তির বাস্তবায়ন, শিক্ষা, বিদ্যুৎ ও যোগাযোগ ব্যবস্থার অভূতপূর্ব উন্নয়ন পেয়েছি।
#

রেজুয়ান/সাইফুল্লাহ/মিজান/সঞ্জীব/জয়নুল/২০১৫/২০২৫ঘণ্টা

 

Handout                                                                                                           Number : 1457

Anisul Islam Mahmud meets Dutch Counterpart

Cooperation in Water Resources Discussed

 

The Hague, May 20 :

            Water Resources Minister Anisul Islam Mahmud now in a 5-day visit to the Netherlands met his Dutch counterpart Melanie Schultz today at the latter’s office in The Hague.

 In view of the forthcoming joint visit of two Dutch Ministers to Bangladesh in 14-18 June, issues like river bank erosion, land reclamation, climate change risk mitigation, river channelization, institutional capacity building surfaced prominently in the discussion of the two ministers.

 A Tripartite MoU between Bangladesh, Netherlands and the World Bank outlining the framework of cooperation in the Water Sector is expected to be signed in Dhaka during the two Dutch Ministers' said visit.

The Bangladesh Minister highlighted the possibility of land reclamation from the Bay of Bengal in the context of enormous amount of silt in the river systems.

The Dutch Minister also shared their experience in the area of land reclamation and noted Bangladesh proposal to commercially develop reclaimed lands as self sustained areas. The Ministers also discussed the possibility of collaboration in establishing a knowledge hub in Bangladesh with Dutch expertise for research on water sector.

The Bangladesh Minister also requested his Dutch counterpart for more scholarships for Bangladesh students in the future.

Secretary, Ministry of water resources Dr. Zafar Ahmed Khan and Ambassador of Bangladesh  to the Netherlands Sheikh Mohammed Belal accompanied the Minister while from Netherlands side concerned Director General J.H Dronkers and Director Elaine Alwayn were present.  

#

Arafat/Saifullah/Mizan/Sanjib/Joynul/2015/2000 hours

তথ্যবিবরণী                                                                                                       নম্বর : ১৪৫৬

বিটিসিএলের সার্বক্ষণিক কলসেন্টার সার্ভিস চালু হচ্ছে আগামীকাল

ঢাকা, ৬ জ্যৈষ্ঠ (২০ মে) :
বিটিসিএল এর সেবা গ্রাহকের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছাতে সর্বাধুনিক প্রযুক্তি সুবিধাসম্পন্ন সার্বক্ষণিক কলসেন্টার সার্ভিস চালু করা হচ্ছে। কল সেন্টারের নম্বর ‘১৬৪০২’।

ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব মোঃ ফয়জুর রহমান চৌধুরী আগামীকাল বিকাল ৪টায় ইস্কাটনস্থ বিটিসিএল এর প্রধান কার্যালয় টেলিযোগাযোগ ভবনে আনুষ্ঠানিকভাবে কলসেন্টারটি চালু করবেন।

কলসেন্টারের মাধ্যমে প্রদত্ত বিভিন্ন সুবিধা সম্পর্কে কলসেন্টার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে গণমাধ্যমের প্রতিনিধিদের সাথে মতবিনিময় করবেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব।

প্রাথমিকভাবে ঢাকার সকল বিটিসিএল এর টেলিফোন গ্রাহকগণ সপ্তাহে ৭ দিন কোনো প্রকার বিরতি ছাড়া দিনরাত এ কলসেন্টারের সার্ভিস পাবেন। পরবর্তীতে ঢাকার বাহিরের গ্রাহকগণও এ সুবিধা পাবেন। গ্রামীণফোন ব্যতীত সকল মোবাইল ও পিএসটিএন গ্রাহকগণ এ কলসেন্টারের সার্ভিস পাবেন। গ্রামীণ ফোন কর্তৃক ‘১৬৪০২’ শর্টকোড নিয়ে এগিয়ে আসলে গ্রামীণফোনের গ্রাহকগণও এ সুবিধা ভোগ করতে পারবেন।

#

মোরশেদ/সাইফুল্লাহ/রফিকুল/রেজাউল/২০১৫/১৯৪৪ ঘণ্টা
 
তথ্যবিবরণী                                                                                                                   নম্বর : ১৪৫৫
চলতি অর্থবছরের দশমাসে বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ে
 এডিপি বাস্তবায়নের হার ৫৩ ভাগ
ঢাকা, ৬ জ্যৈষ্ঠ ২০মে) :
বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব ফরিদ উদ্দিন আহম্মদ চৌধুরীর সভাপতিত্বে আজ বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের বার্ষিক উন্নয়ন প্রকল্পসমূহের (এডিপি) বাস্তবায়নের অগ্রগতি সংক্রান্ত পর্যালোচনাসভা মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত হয়।
সভায় জানানো হয়, ২০১৪-১৫ অর্থবছরে বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের সংশোধিত এডিপিভুক্ত মোট ১৬টি প্রকল্পের জন্য বরাদ্দকৃত ১৩৮ কোটি ৬৫ লাখ টাকার মধ্যে চলতি বছরের এপ্রিল পর্যন্ত  ৯৭ কোটি ৬১ লাখ ৮১ হাজার টাকা অবমুক্ত করা হয়েছে যা বরাদ্দকৃত টাকার শতকরা ৭০ দশমিক ৪১ ভাগ। একইসময়ে ৭৩ কোটি ১৪ লাখ ৪৭ হাজার টাকা মূল্যমানের কাজ সম্পাদিত হয়েছে যা অবমুক্ত টাকার ৭৪ দশমিক ৯৩ ভাগ। চলতি অর্থবছরের দশ মাসে ১৬টি প্রকল্পে বরাদ্দের বিপরীতে আর্থিক অগ্রগতির হার হয়েছে গড়ে ৫২ দশমিক ৭৫ ভাগ। একইসময়ে গত অর্থবছরের ১৫টি প্রকল্পে বরাদ্দের বিপরীতে আর্থিক গড় অগ্রগতির হার ছিল ৪১ দশমিক ১৭ ভাগ।
এডিপিভুক্ত ১৬টি প্রকল্পের মধ্যে বস্ত্র পরিদপ্তর ৮টি,  বাংলাদেশ তাঁত বোর্ড ৩টি, বাংলাদেশ রেশম উন্নয়ন বোর্ড ২টি, বাংলাদেশ রেশম গবেষণা ও প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট ১টি, পাট অধিদপ্তর ১টি এবং বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয় ১টি প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে বলে সভায় জানানো হয়। এছাড়া, বাংলদেশ টেক্সটাইল মিলস্ কর্পোরেশন নিজস্ব অর্থায়নে ১টি প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে। এডিপিভুক্ত ১৬টি প্রকল্পের মধ্যে চলতি অর্থবছরে ৪টি প্রকল্প সমাপ্ত হবে ।
বর্তমানে দেশে বস্ত্র প্রকৌশলী ও বস্ত্র প্রযুক্তিবিদের চাহিদা প্রায় দেড় লাখ হলেও আছে প্রায় ৫০ হাজার। তাই বিদেশ থেকে বিপুলসংখ্যক বস্ত্র  প্রকৌশলী ও বস্ত্র প্রযুক্তিবিদ আনতে হচ্ছে। দেশীয় বস্ত্র  প্রকৌশলী ও বস্ত্র প্রযুক্তিবিদের শূন্যতা পূরণের লক্ষ্যে শিগগিরই আরো টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ, টেক্সটাইল ইনস্টিটিউট ও টেক্সটাইল ভোকেশনাল ইনস্টিটিউট প্রতিষ্ঠা করা হবে বলে সভায় জানানো হয়।
বস্ত্রখাতের এক্সিকিউটিভ পর্যায়ে দক্ষ বস্ত্র প্রকৌশলী সরবরাহ করার লক্ষ্যে যশোর, নেত্রকোনা, লালমনিরহাট, চাঁদপুরের শাহরাস্তি, মাদারীপুরের রাজৈর, গাইবান্ধা ও নওগাঁর মান্দায় ৭টি টেক্সটাইল ইনস্টিটিউট এবং রংপুরের পীরগঞ্জ ও জামালপুরে দু’টি টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ স্থাপনের প্রকল্প প্রস্তাব পরিকল্পনা কমিশনের অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে বলেও সভায় জানানো হয়। এছাড়া, সম্প্রতি জামালপুর ও ভোলা টেক্সটাইল ইনস্টিটিউট স্থাপন প্রকল্প পরিকল্পনা কমিশনের অনুমোদন পেয়েছে বলে সভায় উল্লেখ করা হয়।
     সভায় আরো উল্লেখ করা হয়, বস্ত্রশিল্পের ফ্লোর লেভেলে আরো দক্ষ জনশক্তি সৃষ্টি এবং দেশে বেকার যুবসমাজের আত্মকর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টির লক্ষ্যে আগামীতে পঞ্চগড়, লালমনিরহাট, নীলফামারী, কুড়িগ্রাম, জয়পুরহাট, মাগুরা, নড়াইল, মেহেরপুর, চুয়াডাঙ্গা, ঝিনাইদহ, চাঁদপুর, ফেনী, বরিশাল, ভোলা, সাতক্ষীরা, সিলেট, হবিগঞ্জ, মৌলভীবাজার, সুনামগঞ্জ, শেরপুর, নেত্রকোনা, ঢাকা, রাজবাড়ী ও শরিয়তপুর জেলায় একটি করে মোট ২৪টি টেক্সটাইল ভোকেশনাল ইন্সটিটিউট স্থাপন করা হবে।
সভায় ভারপ্রাপ্ত সচিব প্রকল্প বাস্তবায়নের অগ্রগতির হার বাড়িয়ে নির্ধারিত সময়ে প্রকল্প শেষ করার জন্য প্রকল্প পরিচালকদের তাগিদ দেন এবং বার বার তাগিদ দেওয়া সত্ত্বেও যে সকল প্রকল্প পরিচালক প্রকল্প বাস্তবায়নের অগ্রগতির হার বাড়াতে পারছেন না তাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেন। এছাড়া তিনি প্রকল্পে গুণগত মানসম্পন্ন যন্ত্রপাতি ক্রয়ের পরামর্শ দেন এবং যন্ত্রপাতি ক্রয়ের ক্ষেত্রে সরকারি ক্রয়বিধি পঙ্খানুপুঙ্খভাবে অনুসরণ করার পরামর্শ দেন।
 
#
রেজাউল/সাইফুল্লাহ/সঞ্জীব/জয়নুল/২০১৫/১৯২০ঘণ্টা  
তথ্যবিবরণী                                                                                           নম্বর : ১৪৫৪

ত্রাণ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠক অনুষ্ঠিত

ঢাকা, ৬ জ্যৈষ্ঠ (২০ মে) :
জাতীয় সংসদের দুর্যোগ ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির এক বৈঠক আজ জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত হয়। কমিটির সভাপতি ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভু এর সভাপতিত্বে কমিটির সদস্য দুর্যোগ ও ত্রাণ মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী, তালুকদার আব্দুল খালেক, বিএম মোজাম্মেল হক, মমতাজ বেগম ও আব্দুর রহমান বদি বৈঠকে অংশগ্রহণ করেন।
বৈঠকে ‘‘গ্রামীণ রাস্তায় ছোট ছোট (১২ মিটার দৈর্ঘ্য পর্যন্ত) সেতু, কালভার্ট নির্মাণ (৩য় পর্যায়)’’      (২য় সংশোধিত) প্রকল্প এবং দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ভবন উর্ধ্বমুখী সম্প্রসারণ প্রকল্প সম্পর্কে আলোচনা করা হয়।  
সাতক্ষীরা জেলায় আইলা-সিডরে ক্ষতিগ্রস্তদের মধ্যে যারা এখনও ক্ষতিপূরণ পায়নি তাদের  নতুন তালিকা করে ক্ষতিপূরণ প্রদানের জন্য বৈঠকে সুপারিশ করা হয়।
কমিটি ঢাকা শহরের যেসব ভবন ভূমিকম্পের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ রয়েছে সেসব ভবনের তালিকা প্রণয়ন এবং ভূমিকম্পের সর্তকতামূলক পদক্ষেপ হিসেবে অটোগ্যাস ও বিদ্যুৎ বন্ধের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করে।  
বৈঠকে দেশের চরাঞ্চলের গুরুত্বপূর্ণ স্থানগুলো চিহ্নিত করে নতুন নতুন মাটির রাস্তা নির্মাণ এবং  বিভিন্ন সামাজিক প্রতিষ্ঠান সোলার প্যানেলের আওতায় আনার সুপারিশ করা হয়।  
দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালকসহ মন্ত্রণালয় এবং জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।
#

মৌমিতা/সাইফুল্লাহ/রফিকুল/জয়নুল/২০১৫/১৮৪৫ ঘণ্টা
তথ্যবিবরণী                                                                                                 নম্বর : ১৪৫৩
 
কমনওয়েলথ পার্লামেন্টারি সেমিনার
দেশের উন্নয়নে মিডিয়ার ইতিবাচক ভূমিকা পালনের ওপর গুরুত্বারোপ

ঢাকা, ৬ জ্যৈষ্ঠ (২০ মে) :
বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলনকেন্দ্রে ‘ঝঃৎবহমঃযবহরহম চধৎষরধসবহঃধৎু উবসড়পৎধপু’ শীর্ষক প্রতিপাদ্য নিয়ে চলমান ২৬তম কমনওয়েলথ পার্লামেন্টারি সেমিনারের আজ তৃতীয় দিনে চধৎষরধসবহঃ, ঃযব গবসনবৎ ধহফ ঃযব গবফরধ  শীর্ষক দশম সেশনে ঘানার সংসদ সদস্য ক্লিটাস আপুল এভোকা (ঈষবঃঁং অঢ়ঁষ আড়শধ) সভাপতিত্ব করেন।

এ সেশনে জাতীয় সংসদের স্পিকার ও সিপিএ নির্বাহী কমিটির চেয়ারপার্সন ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী অংশগ্রহণ করেন।

কেনিয়ার সিনেটর মোজেস ওয়েটাংগুলা (গড়ংবং ডবঃধহমঁষধ) এবং সংসদ সদস্য ব্যারি হাউস (ইধৎৎু ঐড়ঁংব) উক্ত সেশনে রিসোর্সপার্সন হিসেবে অংশগ্রহণ করেন।

সেশনে বক্তৃতাকালে তাঁরা সকল সংসদ সদস্যের সঙ্গে মিডিয়ার সুসম্পর্ক থাকা উচিত বলে অভিমত ব্যক্ত করেন। তাঁরা বলেন, মিডিয়া দেশের উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে। আবার মিডিয়ার ভূমিকার কারণে দেশের উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত হতে পারে এমনকি একটি দেশ ধ্বংসও হয়ে যেতে পারে। তাই তাঁরা দেশের উন্নয়নে মিডিয়ার ইতিবাচক ভূমিকা পালনের ওপর গুরুত্বারোপ করেন।   

#

হুদা/সাইফুল্লাহ/মিজান/সঞ্জীব/রেজাউল/২০১৫/১৮৪৫ ঘণ্টা
 
তথ্যবিবরণী                                                                                                       নম্বর : ১৪৫২
বিসিসিসিআই কার্যালয় উদ্বোধন অনুষ্ঠানে বাণিজ্যমন্ত্রী
বিনিয়োগকারীদের সবধরনের সহযোগিতা দিচ্ছে সরকার
ঢাকা, ৬ জ্যৈষ্ঠ (২০ মে) :

    বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, চীনের বিনিয়োগকারীদের বাংলাদেশে সবধরনের সহযোগিতা প্রদান করা হবে। সরকার দেশের বিভিন্নস্থানে ১৭টি স্পেশাল ইকনমিক জোন গড়ে তোলার কাজ হাতে নিয়েছে। এখানে চীনের জন্যও সুযোগ থাকবে।

    মন্ত্রী আজ ঢাকায় বাংলাদেশ চায়না চেম্বার অভ্ কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি (বিসিসিসিআই) এর অফিসের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় একথা বলেন।

    বিসিসিসিআই’র প্রেসিডেন্ট গোলাম দস্তগীর গাজীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বাংলাদেশে নিযুক্ত চীনের রাষ্ট্রদূত মা মিংকিয়ান (গধ গরহময়রধহ), ব্যবসায়ীনেতা সালমান এফ রহমান, বিসিসিসিআই’র প্রধান উপদেষ্টা দিলীপ বড়–য়া ও জেনারেল সেক্রেটারি শাহজাহান মৃধা বক্তব্য রাখেন।

    মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের উন্নয়নে চীন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখে যাচ্ছে। মুন্সিগঞ্জের বাউশিয়ায় ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্ক নির্মাণ, পূর্বাচলে প্রায় দু’শত কোটি টাকা ব্যয়ে স্থায়ী আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলা ক্যাম্পাস নির্মাণ, কর্ণফুলী টানেল নির্মাণসহ বেশকয়েকটি বড় প্রকল্পে চীন বিনিয়োগ করছে।

    বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশে শেখ হাসিনার সরকার ব্যবসাবান্ধব। সরকার বিনিয়োগকারীদের চাহিদামোতাবেক সবধরনের সহযোগিতা প্রদান করছে। বাংলাদেশে চায়নার বিনিয়োগ বৃদ্ধিতে বাংলাদেশ চায়না চেম্বার অভ্ কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে।
    
    মন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বর্তমান সরকার দেশকে অর্থনৈতিকভাবে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে। দেশের স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তিতে আগামী ২০২১ সালে বাংলাদেশকে একটি মধ্যমআয়ের দেশ হিসেবে প্রতিষ্ঠা করতে সরকার আন্তরিকতার সাথে কাজ করে যাচ্ছে। দেশের সকল অর্থনৈতিকসূচক এখন ঊর্ধŸগামী। বিশ্বের সেরা অর্থনীতিবিদগণ এখন বাংলাদেশের অগ্রগতির প্রশংসা করছেন। যারা একসময় বাংলাদেশকে তলাবিহীন ঝুড়ি বলতেন, আজ তারাই বলছেন বাংলাদেশ মিরাকেল।

#

বকসী/সাইফুল্লাহ/মিজান/জসীম/রেজাউল/২০১৫/১৮২৮ ঘণ্টা
 
তথ্যবিবরণী                                                                                               নম্বর : ১৪৫১

মেট্রোলজি দিবসের অনুষ্ঠানে শিল্পমন্ত্রী
ভারতে স্বীকৃতি পেল বিএসটিআই’র মানসনদ

ঢাকা, ৬ জ্যৈষ্ঠ (২০ মে) :
    বিএসটিআই’র কেমিক্যাল ও ফিজিক্যাল ল্যাবরেটরির দেয়া ২৫টি পণ্য এবং ১শ’ ৪৩টি প্যারামিটারের মানসনদ ইতোমধ্যে ভারতের স্বীকৃতি পেয়েছে। ভারতীয় জাতীয় মান নির্ধারণী সংস্থা এনএবিএল (ঘধঃরড়হধষ অপপৎবফরঃধঃরড়হ ইড়ধৎফ ভড়ৎ ঞবংঃরহম ধহফ ঈধষরনৎধঃরড়হ খধনড়ৎধঃড়ৎরবং) এ স্বীকৃতি প্রদান করেছে। আরো ২০টি প্যারামিটারের পরীক্ষণ সনদ স্বীকৃতি প্রাপ্তির চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে। এর ফলে ভারতসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বাংলাদেশি পণ্যের রপ্তানি বাড়বে।
    বিশ্ব মেট্রোলজি দিবস উপলক্ষে বিএসটিআই আয়োজিত “পরিমাপ বিজ্ঞান ও আলোর ভূমিকা (গবধংঁৎবসবহঃং ধহফ খরমযঃ)” শীর্ষক আলোচনাসভায় আজ এ তথ্য জানানো হয়। রাজধানীর তেজগাঁওয়ে মানভবনে এ অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়। শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু এতে প্রধান অতিথি ছিলেন।
    বিএসটিআই এর মহাপরিচালক ইকরামুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে ভারপ্রাপ্ত শিল্পসচিব সুষেণ চন্দ্র দাস, এফবিসিসিআই’র সভাপতি কাজী আকরাম উদ্দিন আহমেদ এবং বিএসটিআই’র মেট্রোলজি বিভাগের পরিচালক মোঃ আলী বক্তব্য রাখেন।
অনুষ্ঠানে শিল্পমন্ত্রী বলেন, বিদ্যুৎ উৎপাদন, বিতরণ, সঞ্চালনসহ সকল পর্যায়ে ব্যবহৃত যন্ত্রপাতি ও সরঞ্জাম তৈরিতে কাঁচামালের যথাযথ পরিমাপ নিশ্চিত করা প্রয়োজন। নি¤œমানের কাঁচামাল ব্যবহার করে উৎপাদিত বৈদ্যুতিক যন্ত্রপাতি ও সরঞ্জাম ব্যবহার দুর্ঘটনার অন্যতম কারণ। এর ফলে প্রায়ই জানমালের ব্যাপক ক্ষতিসাধন হচ্ছে। তিনি বৈদ্যুতিক সরঞ্জাম ও পণ্য উৎপাদনের সাথে জড়িত শিল্প উদ্যোক্তাদের এ বিষয়ে সতর্ক থাকার আহ্বান জানান।
আমির হোসেন আমু বলেন, বিশ্বব্যাপী বর্তমানে সৌর, বায়ু, পানি, কয়লা, গ্যাস ও জৈব পদার্থের মতো প্রাকৃতিক উৎস থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদিত হচ্ছে। এ বিদ্যুৎ পরিমিতভাবে ব্যবহার না করলে প্রাকৃতিক উৎস সহসাই ফুরিয়ে যাবে। ফলে ভবিষ্যতে শিল্প উৎপাদন ব্যাহত হবার পাশাপাশি মানব সভ্যতা মারাত্মক সংকটের মুখে পড়বে। তিনি ভবিষ্যত প্রজন্মের স্বার্থে বিকল্প জ্বালানি উৎপাদন বৃদ্ধি ও জ্বালানি ব্যবহারে মিতব্যয়ী হবার পরামর্শ দেন। বিদ্যুতের সিস্টেম লস কমাতে তিনি সম্ভাব্য সকল স্থানে জ্বালানি দক্ষ স্মার্ট এনার্জি মিটার প্রতিস্থাপনের তাগিদ দেন।
#
জলিল/সাইফুল্লাহ/রফিকুল/জয়নুল/২০১৫/১৮১৫ঘণ্টা  
তথ্যবিবরণী                                                                                               নম্বর : ১৪৫০


কাজী মনিরুল হকের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক

ঢাকা, ৬ জ্যৈষ্ঠ (২০ মে) :

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক কাজী মনিরুল হকের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন।
আজ এক শোকবার্তায় প্রধানমন্ত্রী বলেন, কাজী মনিরুল হক প্রবাসে থেকেও দেশের গণতন্ত্র ও মানুষের অধিকার আদায়ের আন্দোলনে ভূমিকা রেখেছেন। প্রবাসীদের কল্যাণে অবদান রেখেছেন। তাঁর মৃত্যুতে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ একজন নিবেদিতপ্রাণ নেতাকে হারালো।
প্রধানমন্ত্রী মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন ও শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।
#

নুরএলাহি/মোহাম্মদ আলী/অনসূয়া/খাদীজা/শুকলা/আসমা/২০১৫/১৫৪০ ঘণ্টা
 
তথ্যবিবরণী                                                                                                                    নম্বর : ১৪৪৯
 
২০১৪ সালের ১ম বর্ষ অনার্স পরীক্ষা আগামীকাল

ঢাকা, ৬ জ্যৈষ্ঠ (২০ মে) :

    জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৪ সালের অনার্স-১ম বর্ষ পরীক্ষা আগামীকাল (২১ মে, ২০১৫ তারিখ) সকাল ৯:০০টা থেকে একযোগে শুরু হবে। এ বছর ৫ শত ৫৭ টি অনার্স কলেজের ১ শত ৯৭ টি কেন্দ্রের মাধ্যমে ৩০ টি বিষয়ে সর্বমোট ১ লাখ ৮০ হাজার পাঁচশত আট জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবে। পরীক্ষা অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে যাবতীয় প্রস্তুতি ইতোমধ্যে সম্পন্ন হয়েছে। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ সুষ্ঠুভাবে পরীক্ষা অনুষ্ঠানে প্রশাসন, সংশ্লিষ্ট কলেজ, শিক্ষক, শিক্ষার্থী এবং অভিভাবকগণের সহযোগিতা কামনা করছে।

#
 
ফয়জুল/মোহাম্মদ আলী/অনসূয়া/খাদীজা/শুকলা/লাভলী/২০১৫/১৫২৫ ঘণ্টা  
তথ্যবিবরণী                                                                                                                    নম্বর : ১৪৪৮

রেলপথ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির বৈঠক অনুষ্ঠিত

ঢাকা, ৬ জ্যৈষ্ঠ (২০ মে) :

    দশম জাতীয় সংসদের ‘রেলপথ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটি’র ১২তম বৈঠক আজ কমিটির সভাপতি এ বি এম ফজলে করিম চৌধুরী এর সভাপতিত্বে সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত হয়।
    কমিটির সদস্য ও রেলপথ মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী মো. মুজিবুল হক, মো. মোসলেম উদ্দীন, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, মো. আলী আজগর, মো. সিরাজুল ইসলাম মোল্লা, মোহাম্মদ নোমান, ইয়াসিন আলী এবং ফাতেমা জোহরা রানী বৈঠকে অংশগ্রহণ করেন।
    বৈঠকে রেলপথ মন্ত্রণালয়  কর্তৃক স্বাক্ষরিত এমওইউ (গঙট) সমূহ এবং তার অগ্রগতি, রেলপথ মন্ত্রণালয়ের নিজস্ব জমিতে বিদ্যমান বৃক্ষ এবং পরিকল্পিত বৃক্ষরোপণ এবং রেল ব্যবস্থাপনা আধুনিকায়ন, লাভজনক ও যুগোপযোগী করার লক্ষ্যে দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়।
    বৈঠকে জানানো হয় যে, রেলপথ মন্ত্রণালয় কর্তৃক রেলওয়ের উন্নয়নের জন্য বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সাথে ৪০ টি এমওইউ (গঙট) স্বাক্ষরিত হয়েছে এবং রেল ব্যবস্থাপনা আধুনিকায়ন, লাভজনক ও যুগোপযোগী করার লক্ষ্যে দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা হিসাবে ২৭ টি প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে।
বৈঠকে রেলওয়ে ভূমির সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনা নিশ্চিত করার স্বার্থে রেলের কি পরিমাণ জমি কতজনকে বৈধ ভাবে লিজ প্রদান করা হয়েছে তাদের সাথে কি চুক্তি ছিল, চুক্তি অনুযায়ী তা সঠিকভাবে পালন করা হয়েছে কিনা সে সকল বিষয়ে বিস্তারিত উল্লেখপূর্বক একটি সুস্পষ্ট প্রতিবেদন কমিটির নিকট প্রদানের বিষয়ে মন্ত্রণালয়কে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সুপারিশ করা হয় ।
     রেলওয়ের পূর্বাঞ্চলের অবৈধ বিলবোর্ডগুলো আগামী এক মাসের মধ্যে উচ্ছেদ এবং রেলওয়ে একটি হেল্প লাইন চালু করার বিষয়ে মন্ত্রণালয়কে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সুপারিশ করা হয়।
         বৈঠকে রেলপথ মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব, বাংলাদেশ রেলওয়ের মহাপরিচালকসহ মন্ত্রণালয় এবং জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।
#
এমাদুল/মোহাম্মদ আলী/অন

Todays handout (5).doc Todays handout (5).doc

Share with :

Facebook Facebook