তথ্য অধিদফতর (পিআইডি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২১st সেপ্টেম্বর ২০২১

তথ্যবিবরণী ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১

তথ্যবিবরণী                                                                                                       নম্বর :  ৪৪৯৫

ছাত্রলীগের কর্মীদেরকে জাতির পিতার নীতি-আদর্শ ধারণ করতে হবে

                                                         -- জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী

মেহেরপুর, ৬ আশ্বিন (২১ সেপ্টেম্বর) :

          জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন বলেছেন, ছাত্রলীগ একটি ঐতিহ্যবাহী সংগঠন। সেই ঐতিহ্যকে সমুন্নত রাখা ছাত্রলীগের কর্মীদের দায়িত্ব। এজন্য জাতির পিতার নীতি ও আদর্শ ধারণ করে ছাত্রলীগের কর্মীদের দেশ সেবায় আত্মনিয়োগ করতে হবে।

          আজ বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, মেহেরপুর জেলা শাখা আয়োজিত কর্মী সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য প্রদানকালে তিনি একথা বলেন।

          তিনি বলেন, দেশের প্রতিটি সংকটকালীন মুহূর্তে ছাত্রলীগের সদস্যরা আন্তরিকতার সাথে কাজ করে গেছে। সম্প্রতি করোনাকালীন দুস্থ ও অসহায় মানুষদের সেবায় ছাত্রলীগের কর্মীরা অত্যন্ত প্রশংসনীয় কাজ করেছে। ভবিষ্যতেও তাদেরকে এ ধরনের মহৎ কাজে এগিয়ে আসতে হবে।

          তিনি আরো বলেন, আমাদের লক্ষ্য একটি সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ার। সেই লক্ষ্য অর্জনে তরুণদের ভূমিকা অপরিসীম। কারণ ভবিষ্যতে তারাই এ দেশকে নেতৃত্ব দিয়ে এগিয়ে নেবে। এজন্য নিজেদেরকে সক্ষম ও সুশিক্ষিত করে গড়ে তুলতে হবে। 

          বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, মেহেরপুর জেলা শাখার সভাপতি আব্দুস সালাম বাঁধন এ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন।

#

শিবলী/পাশা/নাইচ/রেজুয়ান/মোশারফ/সেলিম/২০২১/২০৩০ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                       নম্বর :  ৪৪৯৪

কোনো সাংবাদিক অহেতুক হয়রানির শিকার হবেন না

                                                  -- তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী

ঢাকা, ৬ আশ্বিন (২১ সেপ্টেম্বর) :

          কোনো সাংবাদিক অহেতুক হয়রানির শিকার হবেন না বলেছেন তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহ্‌মুদ।

          আজ বাংলাদেশ সচিবালয়ে তথ্যমন্ত্রীর সাথে বৈঠকে মিলিত হন বাসসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবুল কালাম আজাদ, ডিবিসি২৪ চ্যানেলের চেয়ারম্যান ইকবাল সোবহান চৌধুরী, বিএফইউজের সাবেক সভাপতি মঞ্জুরুল আহসান বুলবুল, সাবেক মহাসচিব আব্দুল জলিল ভূঁইয়া এবং ওমর ফারুক, ডিইউজে সভাপতি কুদ্দুস আফ্রাদ এবং সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ আলম খান তপু।

          বৈঠক শেষে উপস্থিত সাংবাদিকরা এ বিষয়ে জানতে চাইলে ড. হাছান বলেন, ‘সাংবাদিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দের ব্যাংক হিসাব চেয়ে বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে যে একটি চিঠি দেয়া হয়েছে, সেটি নিয়ে আলোচনা করতেই সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ এসেছিলেন। অত্যন্ত সৌহার্দ্যপূর্ণ পরিবেশে আলোচনা হয়েছে। সরকার যে কারো হিসাব চাইতে পারে, কিন্তু কেন সংগঠনের নাম দিয়ে চাওয়া হলো, এটিই তাদের উদ্বেগের কারণ। আমি তাদেরকে বলেছি যে, অহেতুক যাতে কেউ হয়রানির  শিকার না হয়, সে বিষয়টি তথ্যমন্ত্রী হিসেবে আমি দেখবো।’

          সেইসাথে এই হিসাব চাওয়ার প্রেক্ষিতে সরকারের সাথে সাংবাদিকদের যাতে কোনো ভুল বোঝাবুঝি না হয়, সেদিকে নজর রাখার জন্য তারাও বলেছেন, আমিও তাদেরকে অনুরোধ জানিয়েছি, জানান তথ্যমন্ত্রী।

          ড. হাছান মাহ্‌মুদ বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুকন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা সাংবাদিকবান্ধব প্রধানমন্ত্রী। সাংবাদিকদের কল্যাণের জন্য, দেখভাল করার জন্য তিনি অনেক কিছু করেছেন। তিনি সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্ট প্রতিষ্ঠা করেছেন, জাতীয় প্রেসক্লাবের ভবন নির্মাণে অনুদান দিয়েছেন, করোনাকালে সাংবাদিকদেরকে এককালীন সহায়তা দিয়েছেন, তিনি সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্টে ১০ কোটি টাকা অনুদান দিয়েছেন। সাংবাদিকদের যাতে কোনো কারণে কোনো অসুবিধা না হয় সেজন্য প্রধানমন্ত্রী সবসময় যত্নবান এবং নিয়মিত খোঁজখবর রাখেন। কেউ যাতে সরকারের সাথে সাংবাদিকদের দূরত্ব সৃষ্টি করতে না পারে সে বিষয়ে সবাইকে সতর্ক থাকতে অনুরোধ জানাচ্ছি।’

#

আকরাম/পাশা/নাইচ/রেজুয়ান/মোশারফ/সেলিম/২০২১/১৯৩০ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                               নম্বর :  ৪৪৯৩

রংপুর জেলা শিক্ষা কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রীর

রংপুর, ৬ আশ্বিন (২১ সেপ্টেম্বর) :

          কোভিড-১৯ মহামারি পরবর্তী প্রাথমিক বিদ্যালয় খোলার পর  আজ রংপুর জেলা শিক্ষা কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময়  করেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মোঃ জাকির হোসেন। এরই ধারাবাহিকতায় গত দু'দিন যাবত কুড়িগ্রাম ও লালমনিরহাট জেলার শিক্ষা কর্মকর্তাদের সঙ্গে বিদ্যালয় খোলার পরবর্তী সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে তিনি কথা বলেন।

          প্রতিমন্ত্রী কোভিড পরবর্তী শিক্ষক-শিক্ষার্থী-কর্মকর্তাদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা ও বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের উপস্থিতির হার নিয়ে সন্তোষ প্রকাশ করেন। এসকল বিষয়ে কোনো ধরনের শৈথিল্য প্রদর্শন না করার জন্য প্রতিমন্ত্রী শিক্ষক-কর্মকর্তাদের প্রতি আহ্বান জানান।

          প্রতিমন্ত্রী বলেন,কোভিড-১৯ মহামারির ভয়াবহতার কারণে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে  আমাদের কোমলমতি শিক্ষার্থীরা। লেখাপড়ার এই ক্ষতি পুষিয়ে নিতে বিদ্যালয়ে  পাঠদানের পাশাপাশি অনলাইন শিক্ষা-কার্যক্রমও অব্যাহত থাকবে। এছাড়া শিক্ষার্থীদের বাড়ি বাড়ি ওয়ার্কশিট পৌঁছে দেওয়ার কার্যক্রম চলমান থাকবে।

          প্রতিমন্ত্রী  বলেন, স্বাস্থ্যবিধি মানার ক্ষেত্রে শিক্ষা কর্মকর্তা ও শিক্ষকসহ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সকলেই সচেতন হবে এবং বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের শতভাগ সুরক্ষায় রাখতে হবে। তিনি বলেন, আমাদের দেশের করোনাভাইরাস সংক্রমণের হার নিম্নগামী, যা ৫ শতাংশের নিচে নেমে এসেছে। কিছু দিনের মধ্যে আমারা স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসবো এবং শিক্ষা কার্যক্রম পুরোদমে শুরু করতে পারবো।

          প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্যবিধি মানার ক্ষেত্রে নিয়মিত মাস্ক (কাপড়ের) পরিধান করতে হবে, শ্রেণিকক্ষে প্রবেশের পূর্বে প্রত্যেককে তাপমাত্রা পরীক্ষা ও সাবান দিয়ে হাত পরিষ্কার করে নিতে হবে। তাছাড়া প্রতি বেঞ্চে ৩ ফুট দুরত্ব বজায় রেখে শিক্ষার্থীদের বসতে হবে।

          রংপুর জেলা প্রশাসক মোঃ আসিব আহসানের সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায়  অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন রংপুর বিভাগীয় উপপরিচালক মোঃ মুজাহিদুল ইসলাম ও রংপুর প্রাথমিক শিক্ষক প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটের সুপারিন্টেন্ডেন্ট খোন্দকার মোঃ ইকবাল হোসেন।

#

রবীন্দ্রনাথ/পাশা/মোশারফ/জয়নুল/২০২১/১৯.৪০ ঘণ্টা  

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                                নম্বর : ৪৪৯২

সুষ্ঠু সংস্কৃতির চর্চায় ভূমিকা রাখবে নৃ-গোষ্ঠীর কারাম উৎসব

                                                                               -- খাদ্যমন্ত্রী

নিয়ামতপুর (নওগাঁ), ৬ আশ্বিন (২১ সেপ্টেম্বর) :

          জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে জাতি-ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সকলের অংশগ্রহণে মহান স্বাধীনতা অর্জিত হয়। বঙ্গবন্ধুর ডাকে সাড়া দিয়ে একাত্তরে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর সদস্যরা মহান স্বাধীনতা সংগ্রামে অংশ নেয়। তাদের স¦তন্ত্র সংস্কৃতি আমাদের ঐতিহ্য, আমাদের সংস্কৃতিতে এটা বৈচিত্র্য যোগ করেছে বলে মন্তব্য করেছেন খাদ্যমন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা সাধন চন্দ্র মজুমদার।

          মন্ত্রী আজ নওগাঁর নিয়ামতপুর উপজেলার চন্দননগর ইউনিয়নের বুধুড়িয়ার লক্ষীডাঙ্গায় নৃ-গোষ্ঠীর কারাম উৎসব' উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।

          সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেন, এখানকার নৃ-গোষ্ঠীর নতুন প্রজন্মকে সমাজের মূল স্রোতে আনতে শিক্ষিত ও দক্ষ করে গড়ে তোলার বিকল্প নেই উল্লেখ করে তিনি বলেন, নৃ-গোষ্ঠীর নেতৃবৃন্দকে শিক্ষায় আগ্রহ বাড়ানোর পাশাপাশি  মাদকমুক্ত সমাজ গঠনেও ভূমিকা রাখতে হবে। কারাম উৎসব ভাতৃত্ববোধ তৈরি ও সুষ্ঠু সংস্কৃতির চর্চায় ভূমিকা রাখবে।

          তিনি বলেন, সংস্কৃতির বিকাশ ও লালনে সরকারের নানামুখী উদ্যোগ রয়েছে। ইতোমধ্যে এখানকার

নৃ-গোষ্ঠীর তরুণ-তরুণীদের নিয়ে একটি সাংস্কৃতিক দল গঠন করা হয়েছে। এসময় এ অঞ্চলের নৃ-গোষ্ঠীর সংস্কৃতিকে দেশ ও দেশের বাইরে ছড়িয়ে দিতে প্রয়োজনীয় সব ধরনের সহযোগিতার আশ্বাস দেন তিনি।

          চন্দননগর ইউনিয়ন আদিবাসী সমন্বয় পরিষদের সভাপতি বিশ্ব মিত্র মারডি এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন নিয়ামতপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফরিদ আহম্মেদ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোঃ আবুল কালাম আজাদ, পূজা উদ্যাপন পরিষদের সভাপতি ঈশ্বর চন্দ্র বর্মণ, নিয়ামতপুর আদিবাসী সমন্বয় পরিষদের সভাপতি বিষদ মনি টপ্প্য, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ জাহিদ হাসান বিপ্লব।

          ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর ওঁরাও সম্প্রদায়ের প্রধান উৎসব কারাম। ওঁরাওদের গ্রামে গ্রামে কারাম বৃক্ষের (খিলকদম) ডাল পূজাকে কেন্দ্র করে এ উৎসবের আয়োজন করা হয়। নিজেদের ভাষা ও সংস্কৃতি রক্ষার আন্দোলনের অংশ হিসেবে কারাম উৎসব উদযাপন করা হয়। দিনব্যাপী কারাম উৎসবে দশটি দল অংশ নেয়।

#

কামাল/পাশা/নাইচ/মোশারফ/জয়নুল/২০২১/১৯২০ঘণ্টা  

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                                নম্বর : ৪৪৯১

ই-জয়িতা মার্কেটপ্লেস নারী উদ্যোক্তা তৈরি ও বিকাশে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে                                                                                                                               

                                                                           -- মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী

ঢাকা, ৬ আশ্বিন (২১ সেপ্টেম্বর) :

          মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা বলেছেন, ‘সকলের নিকট ই-কমার্স জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। একই সাথে লাখ লাখ মানুষের কর্মসংস্থানের সৃষ্টি হচ্ছে। দেশের শতকরা ৮০ ভাগ ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করছেন নারী উদ্যোক্তারা। ফলে নারীরা আর্থিক সচ্ছলতা অর্জনের মাধ্যমে স্বাবলম্বী হচ্ছেন। জয়িতা ফাউন্ডেশনের অনলাইন মার্কেটপ্লেস “ই-জয়িতা” চালু করা একটি সময়োপযোগী পদক্ষেপ। ই-জয়িতা মার্কেটপ্লেস দেশে নারী উদ্যোক্তা তৈরি ও তাদের বিকাশে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে’।

          প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশের নারীদের মধ্যে রয়েছে উদ্যোক্তা হওয়ার বিশাল সম্ভাবনা। এই সম্ভাবনাকে বাস্তবে রূপ দিয়ে অর্থনৈতিক উন্নয়ন ও সামাজিক অগ্রগতির মাধ্যমে নারীর ক্ষমতায়ন নিশ্চিত করতে হবে। তবে নারীদের উদ্যোক্তা হিসেবে গড়ে উঠতে রয়েছে নানা ধরনের প্রতিবন্ধকতা। সকল বাঁধা বিপত্তি দূর করে ব্যবসায় উদ্যোগ নারীদের সম্পৃক্ত করা ও তাদের উদ্যোক্তা হিসেবে গড়ে তুলতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১১ সালের ১৬ নভেম্বর জয়িতা ফাউন্ডেশনের উদ্বোধন করেন’।

          প্রতিমন্ত্রী আজ ঢাকার ধানমন্ডিস্থ রাপা প্লাজায় জয়িতা ফাউন্ডেশনের ‘ই-জয়িতা মার্কেটপ্লেস’ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন। অনুষ্ঠানে জয়িতা ফাউন্ডেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আফরোজা খানের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ সায়েদুল ইসলাম, জাতীয় মহিলা সংস্থার চেয়ারম্যান বেগম চেমন আরা তৈয়ব ও ই-ক্যাবের সহসভাপতি মোহাম্মদ সাহাব উদ্দিন। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন মন্ত্রণালয় ও জয়িতা ফাউন্ডেশনের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তাবৃন্দ ও নারী উদ্যোক্তাগণ।

          প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘ডিজিটাল বাংলাদেশের রূপকার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তথ্য-প্রযুক্তির সুবিধা গ্রামে গ্রামে পৌঁছে দিয়েছেন। তথ্য-প্রযুক্তির সহায়তায় বাংলাদেশের তরুণ-তরুণীরাও ই-কমার্সের মাধ্যমে নিজেদের কর্মসংস্থান করতে পারছে। কোভিড মহামারি সময়ে ই-কমার্স দ্রুত বিকাশ লাভ করছে। অনেকে চাকুরি ছেড়ে দিয়েও ই-কমার্স করছে এবং তাদের আয় আগের চেয়ে বেশি’। 

          বিশেষ অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ সায়েদুল ইসলাম বলেন, ‘আজ বাংলাদেশের যে উন্নয়ন তাঁর পেছনে রয়েছে নারীর অবদান। সরকার নারীদের আরো বেশি দক্ষ ও কর্মক্ষম করে গড়ে তুলছে। যার মাধ্যমে কর্মস্থলে নারীর সমতা নিশ্চিত হবে’।

          ই-জয়িতা অনলাইন মার্কেটপ্লেসে এক লাখ নারী উদ্যোক্তা সংযুক্ত হতে পারবে। দেশে সকল জেলা থেকে উদ্যোক্তারাদের নিবন্ধন শুরু হয়েছে। ক্রেতারা ভিডিও কলে পছন্দের পণ্য পছন্দ করতে পারবে। বিশ্বের যেকোনো দেশ থেকে পণ্য অর্ডার করা যাবে। যেকোনো ব্যংকের কার্ড ও মোবাইল ব্যাংকের মাধ্যমে লেনদেনের সুব্যবস্থা রয়েছে। উদ্বোধন অনুষ্ঠানে শেরপুর থেকে নারী উদ্যোক্তা জিমি আরা জেমি এবং রাজশাহী থেকে কান্তা চক্রবর্তী অনলাইনে সংযুক্ত হয়ে তাদের পণ্য বিক্রি ও ই-জয়িতার সুবিধা তুলে ধরেন।

#

আলমগীর/পাশা/নাইচ/মোশারফ/জয়নুল/২০২১/১৯১০ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                       নম্বর : ৪৪৯০

লোকসানী প্রতিষ্ঠানসমূহকে লাভজনক করতে কার্যকর পন্থা খুঁজে বের করুন

                                                                              -- শিল্পমন্ত্রী

ঢাকা, ৬ আশ্বিন (২১ সেপ্টেম্বর) :

          বাংলাদেশ ইস্পাত ও প্রকৌশল করপোরেশন (বিএসইসি)’র অধীনস্থ শিল্প প্রতিষ্ঠানসমূহকে লোকসান কমিয়ে লাভজনক প্রতিষ্ঠানে পরিণত করতে কার্যকর পন্থা খুঁজে বের করতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দিয়েছেন শিল্প মন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন।

          আজ রাজধানীর কারওয়ান বাজারে বিএসইসি আয়োজিত ২১-২২ সেপ্টেম্বর দুই দিনব্যাপী “ব্যবসা উন্নয়ন সম্মেলন” এর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিল্পমন্ত্রী এ নির্দেশনা দেন। সম্মেলনে বিএসইসি’র শিল্প প্রতিষ্ঠানসমূহের ব্যবস্থাপনা পরিচালকগণ অংশগ্রহণ করেন।

          বিএসইসি’র চেয়ারম্যান মোঃ শহীদুল হক ভূঞার সভাপতিত্বে সম্মেলেনে অন্যান্যের মধ্যে শিল্প মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ফয়েজুল আমীনসহ মন্ত্রণালয় ও বিএসইসি’র ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন। 

          শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন বলেন, আমরা রাষ্ট্রায়ত্ত শিল্প প্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ করতে চাই না। কারণ এর সাথে কর্মসংস্থানের বিষয় জড়িত। কাজেই নতুন নতুন বিনিয়োগ আনতে হবে ও প্রকল্প  নিতে হবে। কর্মকতা ও কর্মচারীদের দক্ষতা বাড়াতে হবে। তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশ ইস্পাত ও প্রকৌশল কর্পোরেশন (বিএসইসি) ৬২টি শিল্প প্রতিষ্ঠানের সমন্বয়ে গঠিত হয়। তা কমতে কমতে বর্তমানে ৯টি প্রতিষ্ঠান টিকে আছে। বর্তমান মুক্ত বাজার অর্থনীতির সাথে তাল মিলিয়ে উৎপাদিত পণ্যের আন্তর্জাতিকমান বজায় রেখে উৎপাদন বৃদ্ধি, প্রতিযোগিতামূলক বাজার বিবেচনায় পণ্যের বিক্রয় মূল্য নির্ধারণ ও বিক্রয় বৃদ্ধি, গ্রাহকের/ক্রেতার চাহিদার সাথে সামঞ্জস্য রেখে নতুন নতুন পণ্য উৎপাদনের ব্যবস্থা করতে হবে। পণ্য উৎপাদনে আধুনিক যন্ত্রপাতি স্থাপন, মালমাল ক্রয় ও পণ্য বিক্রয় ব্যবস্থা যুগোপযোগী করতে হবে।

          সভাপতির বক্তব্যে বিএসইসি’র চেয়ারম্যান শহিদুল হক ভূঁইয়া বলেন, আমাদের উৎপাদিত পণ্য বাজারজাতকরণের জন্য বহুমুখী উপায় গ্রহণ করতে হবে এবং প্রতিযোগিতায় নিজেদের সক্ষমতা প্রমাণ করতে হবে।

#

 

মাহমুদুল/পাশা/রেজুয়ান/মোশারফ/রেজাউল/২০২১/১৮৪০ ঘণ্টা


তথ্যবিবরণী                                                                                                                 নম্বর : ৪৪৮৯

সরকারি স্বাস্থ্যসেবায় ৯০ ভাগ রোগীই পুরোপুরি সুস্থ হচ্ছে

                                                                           -- স্বাস্থ্যমন্ত্রী

ঢাকা, ৬ আশ্বিন (২১ সেপ্টেম্বর) :

          আজ রাজধানীর শ্যামলীতে ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট টিবি হাসপাতালে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে ওয়ানস্টপ টিবি সার্ভিস সেন্টার ও রিজিওনাল টিবি রেফারেন্স ল্যাবরেটরি কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন করেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক। এসময় বাংলাদেশে নিযুক্ত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত আর্ল আর মিলার, স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সিনিয়র সচিব লোকমান হোসেন মিয়া, ইউএসএআইডি-বাংলাদেশ-এর উপমিশন পরিচালক র‌্যান্ডি আলী, আইসিডিডিআর,বি এর ডা. তাহমিড আহমেদ, এমবিডিসি’র পরিচালক এবং টিবি ল্যাপরোসি’র লাইন ডাইরেক্টর অধ্যাপক ডা. মো. শামসুল ইসলাম, শ্যামলী ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট টিবি হাসপাতালের উপপরিচালক ডা. মোঃ আবু রায়হান উপস্থিত ছিলেন।

          উদ্বোধন শেষে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেন, প্রতি বছর দেশে গড়ে প্রায় ৩ লাখ মানুষ টিবি রোগে আক্রান্ত হয়। বর্তমানে কোভিডকালীন মহামারিতে অন্যান্য রোগের সাথে এই রোগের চিকিৎসাও স্বাস্থ্যখাতকে দিতে হচ্ছে। দেশের স্বাস্থ্যখাত কোভিড, ডেঙ্গু চিকিৎসার পাশাপাশি যক্ষ্মা রোগেরও সঠিক চিকিৎসা সেবা দিয়ে যাচ্ছে। এর ফলে সরকারি স্বাস্থ্যসেবার মাধ্যমে যক্ষ্মা রোগে প্রতি বছর গড়ে ৯০ ভাগ মানুষ পুরোপুরি সুস্থ হচ্ছে।

          স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরো বলেন, ওয়ানস্টপ টিবি সার্ভিস সেন্টার প্রমাণ করে এই সরকার রোগীকেন্দ্রিক সেবা প্রদানে কতটা আন্তরিক। আমরা দেশের অন্যান্য অঞ্চলেও রোগীকেন্দ্রিক যক্ষ্মার সেবা সম্প্রসারণ করবো। ওয়ানস্টপ টিবি সার্ভিস সেন্টার সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানসমূহের মধ্যে যৌথভাবে কাজ করার এক অনন্য নজির। আমাদের সরকার যক্ষ্মা নিয়ন্ত্রণ ও নির্মূলের জন্য দৃঢ়প্রতিজ্ঞ যা ২০৩০ সালের উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনেও অবদান রাখবে। এছাড়াও যক্ষ্মামুক্ত বাংলাদেশ গড়ার জন্য যুক্তরাষ্ট্র সরকারের সহায়তার জন্য আমরা কৃতজ্ঞ।

          সভায় উপস্থিত যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত মিলার বলেন, এই অসাধারণ ওয়ানস্টপ টিবি সার্ভিস সেন্টারের দ্বার উন্মোচন করতে পেরে ও যারা যক্ষ্মা রোগে আক্রান্ত হয়েও এর বিরুদ্ধে নিয়মিত সংগ্রাম করে যাচ্ছেন তাঁদের জীবন রক্ষায় অবদান রাখতে পেরে আমরা যারপরনাই আনন্দিত। বাংলাদেশের মানুষদের স্বাস্থ্যকর ও উন্নত জীবনের জন্য বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রের যে সমন্বিত প্রচেষ্টা এই সেন্টারটি তারই স্মারক।

          সভায় স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সিনিয়র সচিব লোকমান হোসেন মিয়া বলেন, আগে বলা হতো যার হয় যক্ষ্মা, তার নেই রক্ষা। এখন আর সেই কথাটি প্রচলিত নেই। এখন সময় মতো চিকিৎসা নিলে যক্ষ্মা রোগ পুরোপুরি ভালো হয়ে যায়।

          স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল বাসার মোহাম্মদ খুরশীদ আলম এর সভাপতিত্বে সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশে নিযুক্ত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত আর্ল আর মিলার, স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সিনিয়র সচিব লোকমান হোসেন মিয়া, ইউএসএআইডি-বাংলাদেশ-এর উপ মিশন পরিচালক র‌্যান্ডি আলী, আইসিডিডিআর,বি এর ডা. তাহমিড আহমেদ, এমবিডিসি’র পরিচালক এবং টিবি ল্যাপরোসি’র লাইন ডাইরেক্টর অধ্যাপক ডা. মো. শামসুল ইসলাম, শ্যামলী ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট টিবি হাসপাতালের উপপরিচালক ডা. মোঃ আবু রায়হান।

#

মাইদুল/পাশা/মোশারফ/জয়নুল/২০২১/১৮৩০ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                       নম্বর : ৪৪৮৮

কোভিড-১৯ সংক্রান্ত সর্বশেষ প্রতিবেদন

ঢাকা, ৬ আশ্বিন (২১ সেপ্টেম্বর) :

          স্বাস্থ্য অধিদপ্তর এবং রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর)-এর তথ্যানুযায়ী গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ৩৩ হাজার ৩২৭ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ১ হাজার ৫৬২ জনের শরীরে করোনা সংক্রমণ পাওয়া গেছে। এ নিয়ে বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ১৫ লাখ

৪৫ হাজার ৮০০ জন। 

          গত ২৪ ঘণ্টায় ২৬ জন-সহ এ পর্যন্ত ২৭ হাজার ২৭৭ জন এ রোগে মৃত্যুবরণ করেছেন।

          করোনা ভাইরাস আক্রান্তদের মধ্যে এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ১৫ লাখ ৪ হাজার ৭০৯ জন।

#

নাসিমা/পাশা/রেজুয়ান/মোশারফ/রেজাউল/২০২১/১৭০০ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                    নম্বর :  ৪৪৮৭ 

পরমাণু কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট এবং প্রতিষ্ঠানটির বিজ্ঞানীর আন্তর্জাতিক পুরস্কার লাভ

ঢাকা, ৬ আশ্বিন (২১ সেপ্টেম্বর) :

 মিউটেশন ব্রিডিংয়ে অসামান্য অবদান রাখার জন্য আন্তর্জাতিক পরমাণু শক্তি সংস্থার (IAEA)  ‘অসাধারণ সফলতা পুরস্কার’ (Outstanding Achievement Award) ক্যাটাগরিতে পুরস্কার পেয়েছে বাংলাদেশ পরমাণু কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট (বিনা)।  তাছাড়া, প্ল্যান্ট মিউটেশন ব্রিডিং ও রিলেটেড বায়োটেকনোলজিতে অসামান্য অবদানের জন্য বিনা’র উদ্ভিদ প্রজনন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ও মুখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. শামছুন্নাহার বেগম ‘উইমেন ইন প্ল্যান্ট মিউটেশন ব্রিডিং অ্যাওয়ার্ড’ (Women in Plant Mutation Breeding) পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন।

গতকাল IAEA এর প্রধান কার্যালয় অস্ট্রিয়ার ভিয়েনায় সংস্থাটির মহাপরিচালক রাফায়েল মারিয়ানো গ্রসি অস্ট্রিয়ায় নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মুহাম্মদ আব্দুল মুহিত এর নিকট আনুষ্ঠানিকভাবে এ পুরস্কার প্রদান করেন।

উল্লেখ্য, আন্তর্জাতিক পরমানু শক্তি সংস্থা (IAEA) হতে ৬-৭ বছর পর পর সদস্য রাষ্ট্রের মধ্যে মিউটেশন ব্রিডিং (Mutation Breeding) -এ অসাধারণ অবদান রাখার জন্য আউটস্ট্যান্ডিং অ্যাচিভমেন্ট, নারী বিজ্ঞানীদের মিউটেশন ব্রিডিংয়ে অনন্য অবদান ও তরুণ বিজ্ঞানী পুরস্কার- এই ৩টি ক্যাটাগরিতে পুরস্কার প্রদান করা হয়। এ বছর IAEA এর ১৭৩টি সদস্য রাষ্ট্রের মধ্যে ১ম ক্যাটাগরিতে ১১ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান, ২য় ক্যাটাগরিতে ১০ জন নারী বিজ্ঞানী ও ৩য় ক্যাটাগরিতে ৭ জন তরুণ বিজ্ঞানী পুরস্কার পেয়েছেন।

এর আগে ২০১৪ সালে বিনা’র বর্তমান মহাপরিচালক ড. মির্জা মোফাজ্জল ইসলাম মিউটেশন ব্রিডিং এ IAEA'র অসাধারণ সফলতা পুরস্কার পেয়েছিলেন।

মহাপরিচালক ড. মির্জা মোফাজ্জল বলেন, বিনা’র বিজ্ঞানীরা পরমাণু শক্তির শান্তিপূর্ণ ব্যবহারের মাধ্যমে মিউটেশন ব্রিডিং (Mutation Breeding), কনভেনশনাল ব্রিডিং (Conventional Breeding) ও অন্যান্য উন্নত কলাকৌশল প্রয়োগ করে এখন পর্যন্ত ১৮ টি বিভিন্ন ফসলের ৮৩ টি মিউট্যান্ট জাতসহ সর্বমোট ১১৭ টি উচ্চ ফলনশীল ও উন্নত গুণাগুণসম্পন্ন জাত উদ্ভাবন করেছে। এসমস্ত অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ বিনা ও বিনা’র বিজ্ঞানীগণ বিভিন্ন সময়ে দেশি ও আন্তর্জাতিক সংস্থা হতে পুরস্কৃত হয়েছেন।

#

কামরুল/অনসূয়া/পরীক্ষিৎ/মেহেদী/শাম্মী/জসীম/কুতুব/২০২১/১৬৩০ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                      নম্বর :  ৪৪৮৬ 

পঁচাত্তর পরবর্তীতে অসাম্প্রদায়িক চেতনা কেড়ে নেয়ার চেষ্টা হয়েছে

                                                    -নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী

দিনাজপুর, ৬ আশ্বিন (২১ সেপ্টেম্বর) :

          নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, পঁচাত্তর পরবর্তী সময়ে বাংলাদেশের অসাম্প্রদায়িক চেতনাকে কেড়ে নেয়ার চেষ্টা করা হয়েছে। ধর্ম নিয়ে জাতিকে বিভক্ত করার চেষ্টা হয়েছে। হিন্দু-মুসলমানের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট করে জিয়া, এরশাদ, খালেদারা দেশকে ছিন্ন ভিন্ন করে ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত করার চেষ্টা করেছে। কিন্তু শেখ হাসিনার নেতৃত্বে অসাম্প্রদায়িক চেতনাকে লালন করা বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকার ব্যাপক উন্নয়ন কার্যক্রম গ্রহণ করায় বাংলাদেশ আজ বিশ্বে মাথা তুলে দাঁড়িয়েছে।

          প্রতিমন্ত্রী আজ দিনাজপুর জেলার বিরল উপজেলার মঙ্গলপুরে শ্রী শ্রী রাধাকৃষ্ণ মন্দিরের (গৌরাঙ্গ আশ্রম) ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন।

          করোনা মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রীর সফল নেতৃত্বের কথা তুলে ধরে প্রতিমন্ত্রী বলেন, উন্নত দেশগুলো যখন করোনা নিয়ে দিশেহারা তখন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশবাসীকে সাহসী করে তুলেছেন। সবার সঙ্গে কথা বলেছেন। বাংলাদেশের মানুষ ধীরে ধীরে তাঁর সাহসে সাহসী হয়ে উঠেছেন। তিনি বলেন, করোনা মহামারিতে পৃথিবীর পবিত্র সব মসজিদগুলো বন্ধ করে দেয়া হয়েছিল। সৌদি আরব, পাকিস্তানে মসজিদ বন্ধ করে দেয়া হয়েছিল। বাংলাদেশে কোন মসজিদ-মন্দির বন্ধ হয়নি। স্বাস্থ্যবিধি মেনে সব চালু ছিল। প্রধানমন্ত্রীর দূরদর্শী নেতৃত্বে পৃথিবীর প্রথম ৩০টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশ ভ্যাকসিন পেয়েছে। এখন বাংলাদেশে প্রতিমাসে এক কোটি ভ্যাকসিন প্রবেশ করছে। আগামী অক্টোবরে ভারত থেকেও টিকা আসবে। প্রতিমন্ত্রী সবাইকে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান জানিয়ে বলেন, আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকলে সকলে নিরাপদ থাকে, সাহস নিয়ে মসজিদ, মন্দির ও প্যাগোডায় যায়।

          মন্দিরের সভাপতি নারায়ন চন্দ্রের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন বিরলের ভারপ্রাপ্ত উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ওয়াজেদ মিয়া, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র সবুজার সিদ্দিক সাগর এবং উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রমাকান্ত রায়।

                                                                        #

জাহাঙ্গীর/অনসূয়া/পরীক্ষিৎ/মেহেদী/শাম্মী/জসীম/কুতুব/২০২১/১৬১০ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                             নম্বর : ৪৪৮৫

উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে হবে

                      - খাদ্যমন্ত্রী

নওগাঁ (নিয়ামতপুর), ৬ আশ্বিন (২১ সেপ্টেম্বর) :

          খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশের অভূতপূর্ব উন্নয়ন হচ্ছে। উন্নয়নের সুফল পাচ্ছে জনগণ। শেখ হাসিনার উন্নয়নের লক্ষ্য যাত্রা কারো মিথ্যাচারে থেমে থাকবে না।

          আজ নওগাঁ জেলার নিয়ামতপুর উপজেলার বালাতৈড় সিদ্দিক হোসেন ডিগ্রি কলেজ প্রাঙ্গণে ৮ নং বাহাদুরপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠন আয়োজিত জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।

          সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেন, শেখ হাসিনার হাত ধরেই বাংলাদেশে উন্নয়ন এসেছে। নতুন প্রজন্মকে উন্নয়নের যাত্রায় শামিল হতে হবে। তিনি বলেন, দেশে সামাজিক নিরাপত্তার ক্ষেত্র বাড়ানো হয়েছে। নতুন করে যুক্ত হবে আরো সুবিধাভোগী। নওগাঁ জেলায় ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে দেয়া হয়েছে। সুপেয় পানির কষ্ট লাঘবে সাবমার্সিবল টিউবওয়েল স্থাপন করা সহ প্রতিটি জেলাতেই মানুষের জীবনমান উন্নয়নে কাজ করা হচ্ছে। তিনি বলেন, এ অঞ্চলের মানুষের উন্নয়নে নিজেকে উজাড় করে দিতে চাই।

          খাদ্যমন্ত্রী বলেন, কৃষক বাঁচলে দেশ বাঁচবে। কৃষকের উন্নয়নে সরকার নানা পদক্ষেপ নিয়

2021-09-21-14-58-9428f1ade70314c53be2bab8e59ad3cf.doc 2021-09-21-14-58-9428f1ade70314c53be2bab8e59ad3cf.doc

Share with :

Facebook Facebook