তথ্য অধিদফতর (পিআইডি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১৮ জুন ২০২২

তথ্যবিবরণী ১৮ জুন ২০২২

তথ্যবিবরণী                                                                                                   নম্বর : ২৪৮৪

 

অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশের চেতনা সমুন্নত রাখতে ধর্মীয় নেতৃবৃন্দকে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হচ্ছে

                                                                                        -- ধর্ম প্রতিমন্ত্রী

 

ময়মনসিংহ, ৪ আষাঢ় (১৮ জুন) :

 

ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মোঃ ফরিদুল হক খান বলেছেন, অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশের চেতনাকে সমুন্নত রাখতে ধর্মীয় নেতৃবৃন্দকে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হচ্ছে।

 

আজ ময়মনসিংহে এডভোকেট তারেক স্মৃতি অডিটোরিয়ামে ধর্ম এবং আর্থ-সামাজিক প্রেক্ষাপটে পুরোহিত ও সেবাইতদের দক্ষতা বৃদ্ধিকরণ প্রকল্প (২য় পর্যায়) এর ময়মনসিংহ জেলা কার্যালয়ের অধীনে ভাতাপ্রাপ্ত পুরোহিত ও সেবাইতদের ১ম বার্ষিক সম্মেলন -২০২২ এ প্রধান অতিথির বক্তৃতায় প্রতিমন্ত্রী  এসব কথা বলেন।

 

প্রতিমন্ত্রী বলেন, এ দেশের উন্নয়ন যেমন আজকের বিশ্বের রোলমডেল, ঠিক তেমনি এদেশের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতিও বিশ্বের জন্য অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত। তিনি বলেন, ধর্মীয় সম্প্রীতি রক্ষা, সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ, মাদকাসক্তি ও অন্যান্য সামাজিক সংকটের বিরুদ্ধে জনমত গঠনের জন্য ধর্মীয় নেতৃবৃন্দকে প্রশিক্ষণ প্রদানের লক্ষ্যে বিভিন্ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হচ্ছে ।

 

প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, হিন্দু সম্প্রদায়ের পুরোহিত ও সেবাইতদেরকে ধর্মীয় ও আর্থসামাজিকভাবে স্বাবলম্বী করে গড়ে তুলতে এবং সকল ধর্মের মানুষের মাঝে সম্প্রীতি বজায় রাখতে দেশব্যাপী পুরোহিত ও সেবাইত  প্রশিক্ষণ প্রকল্পটি চালু করা হয়েছে। তিনি বলেন, প্রশিক্ষণ গ্রহণের ফলে পুরোহিত ও সেবাইতগণের ধর্মীয় জ্ঞান বৃদ্ধির পাশাপাশি তাদের অর্থনৈতিক অবস্থার উন্নয়ন হয়েছে।

 

ময়মনসিংহের বিভাগীয় কমিশনার মোঃ শফিকুর রেজা বিশ্বাসের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে আরো বক্তব্য রাখেন  এডভোকেট মোঃ মোছলেম উদ্দিন এমপি, বীর মুক্তিযোদ্ধা নাজিমউদ্দীন আহমেদ এমপি, কাজিম উদ্দিন আহমেদ এমপি, ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশনের মেয়র মোঃ ইকরামুল হক টিটু, ময়মনসিংহের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ এনামুল হক, ময়মনসিংহ জেলা পরিষদের প্রশাসক অধ্যাপক ইউসুফ আলী খান পাঠান প্রমুখ।

 

#

 

আনোয়ার/এনায়েত/মাহমুদ/সেলিমুজ্জামান/২০২২/২২৪০ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                           নম্বর : ২৪৮৩

‍‍‍

দেশের ১১টি জেলায় মানবিক সহায়তা দিচ্ছে সরকার

 

ঢাকা, ৪ আষাঢ় (১৮ জুন) :

 

‍          দেশের ১১ টি জেলায় সাম্প্রতিক বন্যায়  মানবিক সহায়তা হিসেবে জেলা প্রশাসকদের অনুকূলে ১৭ মে থেকে ১৮ জুন পর্যন্ত ১,৭২০ মেট্রিক টন চাল, দুই কোটি ৭৬ লাখ টাকা এবং ৫৮ হাজার শুকনো  ও অন্যান্য খাবারের প্যাকেট বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।

 

          এর মধ্যে রয়েছে সিলেট জেলায় এক হাজার মেট্রিক টন চাল, এক কোটি ১৩ লাখ টাকা এবং ২০ হাজার শুকনো ও অন্যান্য খাবারের প্যাকেট। সুনামগঞ্জ জেলায় ৫২০ মেট্রিক টন চাল, ৯৮ লাখ টাকা এবং ১২ হাজার শুকনো ও অন্যান্য খাবারের প্যাকেট। নেত্রকোনা জেলায় একশত মেট্রিক টন চাল, ২০ লাখ টাকা এবং ৫ হাজার শুকনো ও অন্যান্য খাবারের প্যাকেট। রংপুর জেলায় তিন হাজার শুকনো ও অন্যান্য খাবারের প্যাকেট। নীলফামারী জেলায় ৫ লাখ টাকা এবং ৩ হাজার শুকনো ও অন্যান্য খাবারের প্যাকেট। কুড়িগ্রাম জেলায় ১০ লাখ টাকা এবং এক হাজার শুকনো ও অন্যান্য খাবারের প্যাকেট । হবিগঞ্জ জেলায় ১০ লাখ টাকা এবং ২ হাজার শুকনো অন্যান্য খাবারের প্যাকেট। মৌলভীবাজার জেলায় একশত মেট্রিক টন চাল, ১০ লাখ টাকা এবং ২ হাজার শুকনো অন্যান্য খাবারের প্যাকেট। শেরপুর জেলায় ১০ লাখ টাকা এবং ৪ হাজার শুকনো ও অন্যান্য খাবারের প্যাকেট। জামালপুর জেলায় ৪ হাজার শুকনো ও অন্যান্য খাবারের প্যাকেট। কিশোরগঞ্জ জেলায় ২ হাজার শুকনো ও অন্যান্য খাবারের প্যাকেট।

 

          বরাদ্দকৃত  অর্থ (নগদ) ত্রাণ শুধুমাত্র আপৎকালীন সময়ে বন্যাসহ বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে মানবিক সহায়তা হিসেবে বিতরণ করতে হবে।

#

 

সেলিম/এনায়েত/সঞ্জীব/মাহমুদ/সেলিমুজ্জামান/২০২২/২১৫০ ঘণ্টা

 

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                               নম্বর : ২৪৮২

‍‍‍বন্যার্তদের পাশে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী ছাড়া অন্য দলের কেউ নেই

                                                     -- তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী

চট্টগ্রাম, ৪ আষাঢ় (১৮ জুন) :

            তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহ্‌মুদ বলেছেন, ‘সিলেটসহ দেশের কয়েকটি বন্যাপ্লাবিত এলাকায় প্রশাসনের পাশাপাশি আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা কাজে ঝাঁপিয়ে পড়েছে এবং তারা ছাড়া অন্য কোনো দলের নেতাকর্মীরা বন্যার্তদের পাশে নেই।’

            আজ বিকেলে চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া পৌরসভার এডভোকেট নুরুচ্ছফা তালুকদার অডিটরিয়ামে উপজেলার স্কুল ও কলেজ শিক্ষকদের সাথে মতবিনিময় সভায় মন্ত্রী একথা বলেন।

            মন্ত্রী বলেন, ‘ঢাকায় বসে বসে কেউ টক শোতে বক্তৃতা দিচ্ছেন আর ঢাকায় নয়াপল্টনে কিংবা প্রেসক্লাবের সামনে সরকারের বিরুদ্ধে অনেকে বিষোদগার করছেন, কিন্তু বন্যার্তদের সাহায্য করার জন্য কেউ ঝাঁপিয়ে পড়েনি। ঝাঁপিয়ে পড়েছে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় প্রশাসন ও আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা।’

            পদ্মা সেতু নিয়ে তিনি বলেন, ‘কেউ ভাবেনি কখনো নিজের টাকায় বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা, আওয়ামী লীগ সরকার পদ্মা সেতু নির্মাণ করতে পারবে। পরে যখন আমরা পদ্মা সেতু নির্মাণ শুরু করে দিয়েছি, বিশ্বব্যাংক কানাডার আদালতে হেরে যায়। কানাডার আদালতে আমাদের সরকার যায়নি, বিশ্বব্যাংকই গেছে এবং তারাই হেরে গেছে। তাদের অভিযোগ যে ভুয়া, মনগড়া এবং উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ছিলো, কানাডার আদালতে সেটি প্রমাণিত হয় এবং আদালত রায় দেয়, পদ্মা সেতু নিয়ে কোনো দুর্নীতি হয়নি, দুর্নীতির চেষ্টাও হয়নি।’

            ড. হাছান বলেন, এরপর বিশ্বব্যাংক প্রস্তাব দিয়েছিল পদ্মা সেতুতে তারা অর্থায়ন করতে চায়। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন আমার বিশ্বব্যাংকের অর্থ দরকার নাই। আজকে তিনি বিশ্বমোড়লদের বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে দিয়েছেন নিজের টাকায় পদ্মাসেতু করে।

            আমাদের দেশের একটি বড় পত্রিকায় হেডিং হয়েছিলো পদ্মাসেতু আর হচ্ছে না, আমাদের দেশের কিছু কিছু বুদ্ধিজীবী বলেছিল এই সরকারের আমলে আর পদ্মাসেতু হচ্ছে না' উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, 'ড. ইউনুসও এমনই বলেছিলেন, আমি উনার প্রতি যথাযথ সম্মান রেখে বলতে চাই, সত্যটা হচ্ছে বিশ্বব্যাংক যাতে পদ্মা সেতু থেকে সরে যায়, সেজন্য এই ষড়যন্ত্রের পেছনে মূল ভূমিকা পালন করেছিলেন তিনি। একইভাবে টিআইবি, সিপিডিসহ আরো অনেকে বলেছিল পদ্মা সেতু হবে না। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী দেখিয়ে দিয়েছেন, নিজের টাকায় পদ্মা সেতু হয়।’

            এসময় শিক্ষকদের উদ্দেশ্যে হাছান মাহ্‌মুদ বলেন, ‘আমাদের লক্ষ্য হচ্ছে শুধুমাত্র বস্তুগত উন্নয়নের মাধ্যমেই দেশকে উন্নত করা নয়, নতুন প্রজন্মের মাঝে মেধা, মূল্যবোধ, দেশাত্মবোধ, মমত্ববোধের সমন্বয় ঘটিয়ে উন্নত মানবিক রাষ্ট্র গড়তে। সেজন্য শিক্ষার্থীদেরকে পাঠদানের পাশাপাশি মূল্যবোধ, দেশাত্মবোধ, মমত্ববোধ এবং একইসাথে গুরুজনের প্রতি দায়িত্ববোধ শেখাবার অনুরোধ জানাই।’

            রাঙ্গুনিয়াবাসীর প্রতি তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘গত সাড়ে ১৩ বছর ধরে রাঙ্গুনিয়ার সবার জন্য আমার দরজা খোলা রেখেছি। কে আমাকে ভোট দিয়েছে কিংবা দেয়নি, তা কখনো দেখিনি। কে আওয়ামী লীগ করেছে বা করেনি তা কখনো জিজ্ঞেস করিনি। আমার বিরুদ্ধে ক্যাম্পেইন করেছে এমন অনেকের চাকরি আমার হাত ধরে হয়েছে। আমি চেষ্টা করেছি সব মানুষের কথা রাখতে। তাই আপনাদের দরজাও আমার জন্য খোলা রাখবেন।’

            রাঙ্গুনিয়া সরকারি কলেজের ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ড. মুহাম্মদ আবদুল মাবুদের সঞ্চালনায় সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ রফিকুল আলম, উপজেলা চেয়ারম্যান স্বজন কুমার তালুকদার, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির প্রাক্তন সভাপতি অধ্যাপক ড. সেকান্দার চৌধুরী, রাঙ্গুনিয়া সরকারি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ একেএম সুজা উদ্দিন প্রমুখ।

#

আকরাম/এনায়েত/সঞ্জীব/মাহমুদ/সেলিমুজ্জামান/২০২২/২১৩০ ঘণ্টা

 

 

তথ্যবিবরণী                                                                                           নম্বর : ২৪৮১

‍‍‍

বন্যাকবলিত দেশের ৬৪ উপজেলা, প্রস্তুত সরকার

                                   -- ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী

 

ঢাকা, ৪ আষাঢ় (১৮ জুন) :

 

          দেশের ১০ জেলার ৬৪টি উপজেলা বন্যাকবলিত বলে জানিয়েছেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. মোঃ এনামুর রহমান। তিনি বলেন, বন্যাকবলিত এলাকার মধ্যে সিলেট ও সুনামগঞ্জে ভয়াবহ অবস্থা বিরাজ করছে। বলা হচ্ছে, ১২২ বছরের ইতিহাসে সিলেট ও সুনামগঞ্জে এমন বন্যা হয়নি।

 

          আজ সচিবালয়ে নিজ মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত দেশের বন্যা পরিস্থিতি নিয়ে এক জরুরি সংবাদ ব্রিফিং এ তথ্য জানান প্রতিমন্ত্রী। তিনি বলেন, সিলেট ও সুনামগঞ্জে আগামী দুই দিনে বন্যা পরিস্থিতির আরো অবনতি হবে। আগামী মঙ্গলবার ও বুধবার থেকে সিলেট ও সুনামগঞ্জে পানি কমতে শুরু করবে। তবে ওই সময় দেশের মধ্যাঞ্চলে বন্যা দেখা দেবে।

 

          গত ১৪ জুন থেকে শুরু করে উজান থেকে নেমে আসা পানি ও বন্যায় দেশের উত্তর ও দক্ষিণাঞ্চলে এ পর্যন্ত ১০ জেলার ৬৪ উপজেলা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী বলেন, ১২২ বছরের রেকর্ড ভেঙেছে এবারের বন্যা ও পাহাড়ি ঢল। তিনি বলেন, এবারের বন্যায় সিলেটের ৬০ শতাংশ প্লাবিত হয়েছে। আর সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে সুনামগঞ্জ। সুনামগঞ্জের ৮০-৯০% পানিতে ডু্বে গেছে। তিনি বলেন, গত দুইদিনে চার ফুট করে আট ফুট পানি বেড়েছে ওই এলাকায় যা চিন্তাতীত।

 

          মন্ত্রী জানান, পরিস্থিতি মোকাবিলায় সেনাবাহিনী, কোস্টগার্ড ও নৌবাহিনী একসঙ্গে উদ্ধারকাজ পরিচালনা করছে। আজ রাতের মধ্যেই ক্ষতিগ্রস্তদের আশ্রয়কেন্দ্রে সরিয়ে আনা সম্ভব হবে। তিনি বলেন, এরইমধ্যে সিলেট ও সুনামগঞ্জে ৮০ লাখ করে নগদ অর্থ দেওয়া হয়েছে। যা দিয়ে চিড়া, মুড়ি, বিস্কুটসহ শুকনো খাদ্য দেওয়া হচ্ছে। এছাড়া দুই এলাকায় দেড় হাজার টন চাল পাঠানো হয়েছে। হাতে পাঁচ কোটি টাকা রয়েছে। আরো ২০ কোটি টাকা জিআর থেকে চাওয়া হয়েছে।

 

          প্রতিমন্ত্রী বলেন, ভারতের বেশ কয়েকটি অঞ্চলে ভয়াবহ বন্যা হচ্ছে। যে কারণে আমাদের দেশে আগামী দুই দিন বন্যা পরিস্থিতি আরো অবনতি ঘটবে। তারপরের দুইদিনে পানি নামতে শুরু করবে। তিনি বলেন, বন্যা পরিস্থিতির অবনতি ঘটলেও সব ধরনের প্রস্তুতি রয়েছে। উদ্ধার কাজ চলছে। পর্যাপ্ত অর্থ ও খাদ্য রয়েছে। আশা করি একটা টেকসই অবস্থানে থাকতে পারবো। তিনি আরো বলেন, দেশের সার্বিক বন্যা পরিস্থিতি সর্বক্ষণ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মনিটর করছেন। সব সময় খোঁজ নিচ্ছেন। তাঁর দিকনির্দেশনা মেনেই কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে।

 

#

 

সেলিম/এনায়েত/সঞ্জীব/মাহমুদ/সেলিমুজ্জামান/২০২২/২০৫০ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                           নম্বর : ২৪৮০

স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী অনলাইন কুইজ প্রতিযোগিতায় ৫০ বিজয়ী‌কে পুরস্কৃত করা হলো

ঢাকা, ৪ আষাঢ় (১৮ জুন) :

          স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষ্যে মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক অনলাইন কুইজ প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের পুরস্কার বিতরণ করা হয়েছে।  কুইজ প্রতিযোগিতায় ১৫০ জন বিজয়ীর মধ্যে  প্রথম  স্থান অধিকারী ৩০ জনসহ  মোট ৫০ বিজয়ীকে পুরস্কার প্রদান করা হয়। স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির নির্দেশনায় মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ এ প্রতিযোগিতার আয়োজন করে।

          আজ রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী এবং স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির সভাপতি আ ক ম মোজাম্মেল হক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

          তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ‌মেদ পলকের সভাপ‌তি‌ত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বা‌ণিজ‌্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র স‌চিব ও সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির সদস্য সচিব তপন কা‌ন্তি ঘোষ, ডি‌জিটাল সি‌কিউ‌রি‌টি এজে‌ন্সির মহাপ‌রিচালক খায়রুল আমীন, মু‌ক্তিযুদ্ধ মন্ত্রণালয়ের অতি‌রিক্ত স‌চিব কামরুন নাহার, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি অধিদপ্তরের ভারপ্রাপ্ত মহাপরিচালক রেজাউল মাকসুদ জাহিদী প্রমুখ।

          মন্ত্রী বলেন, পাকিস্তানি শাসকগোষ্ঠীর বৈষম্য ও বঞ্চনার বিরুদ্ধে বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে মুক্তিযুদ্ধ ক‌রে আমরা দেশ স্বাধীন করে‌ছি। আর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে উন্নত সোনার বাংলা গড়ার পথে অনেকটা এগিয়েছি। এভাবে উন্নয়ন অব্যাহত থাকলে ২০৪১ সালের অনেক আগেই বাংলাদেশে উন্নত দেশ হবে। এই অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখতে নতুন প্রজন্মকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় দেশপ্রেমিক হিসেবে গড়ে তুলতে হবে। দেশপ্রেম ছাড়া জাতিকে বেশি দূর এগিয়ে নেয়া সম্ভব হবে না।

          মন্ত্রী বলেন, স্বাধীনতাবিরোধী শক্তি এখনো দে‌শের বিরু‌দ্ধে অনলাইনে অপপ্রচার চালাচ্ছে। দেশের বিরুদ্ধে  অনলাই‌নে  মিথ‌্যাচার রুখতে  মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বলিয়ান হয়ে  প্রযুক্তি জ্ঞানকে হাতিয়ার হিসেবে কাজে লাগাতে নতুন প্রজন্মের প্রতি আহ্বান জানান মন্ত্রী।

          সভাপতির বক্তৃতায় আইসিটি প্রতিমন্ত্রী বলেন, গত ১৩ বছরে প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে এবং আইসিটি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের তত্ত্বাবধানে দেশে সঠিকভাবে ডিজিটাল অবকাঠামো গড়ে ওঠার কারণে ক‌রোনার সময় ডিজিটাল সংযু‌ক্তি‌তে দেশ সচল রাখা সম্ভব হ‌য়ে‌ছে। তিনি বলেন, স্মার্ট বাংলা‌দেশ গড়‌তে এখন স্মার্ট প্রজন্ম গ‌ড়ে তুল‌তে কাজ কর‌ছি। তিনি  বঙ্গবন্ধুর ডা‌কে সাড়া দি‌য়ে অর্থনৈ‌তিক মুক্তির পাশাপা‌শি সাংস্কৃ‌তিক মু‌ক্তি অর্জন এবং  প্রযু‌ক্তি শিক্ষার মাধ‌্যমে উদার প্রজন্ম গ‌ড়ে তোলার ওপর গুরুত্বারোপ করেন। বাঙালি যে বী‌রের জা‌তি তা সবসময়ই প্রমাণ করবো। মেড ইন বাংলা‌দেশ প্রযু‌ক্তি পণ‌্য দি‌য়ে বিশ্বজয় কর‌বো বলে তিনি জানান।

          পরে, বিজয়ী‌দের হা‌তে পুরস্কার তু‌লে দেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মল হক ও আইসি‌টি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ‌মেদ পলক। প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার হিসেবে দেয়া হয় মেড ইন বাংলা‌দেশ ওয়ালটনের ‌১৭টি ল‌্যপটপ, ট‌্যাব, স্মার্টওয়াচ ও ব্লুটুথ স্পিকার।

#

মারুফ/পাশা/এনায়েত/সঞ্জীব/মাহমুদ/সেলিম/২০২২/২১১০ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                              নম্বর : ২৪৭৯ 

   

পদ্মা সেতুর উদ্বোধনকে ঘিরে জলে-স্থলে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা থাকবে

                                                --নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী

মাদারীপুর, ৪ আষাঢ় ( ১৮ জুন) :

নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, পদ্মা সেতুকে ঘিরে যে নেতিবাচক কর্মকাণ্ড কথাবার্তা বলা হচ্ছে এতে সকলেই আশঙ্কা করছে উদ্বোধনের সময় ষড়যন্ত্র হতে পারে। এজন্য প্রধানমন্ত্রী সকলকে সতর্ক থাকতে বলেছেন-আমরা সতর্ক আছি। দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ায় নৌযানগুলো কীভাবে নিয়ে আসতে হবে সে বিষয়ে বিআইডাব্লিউটিএ থেকে নির্দেশনা দেওয়া হচ্ছে। পদ্মা সেতুর উদ্বোধনকে ঘিরে জলে ও স্থলে দুই পথেই নিরাপত্তা জোরদার করা হচ্ছে। এছাড়া বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ থেকে বিশাল স্বেচ্ছাসেবক বাহিনী তৈরি করা হয়েছে, তারা বিভিন্ন পয়েন্টে থাকবে মানুষকে সেবা দেওয়ার জন্য।

২৫ জুন পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষ্যে নৌযান ও ঘাটসমূহের প্রস্তুতি সরেজমিনে পর্যবেক্ষণে মুন্সিগঞ্জের শিমুলিয়াঘাট এবং মাদারীপুরের কাঁঠালবাড়ীঘাটে এসে সাংবাদিকদের প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ৭ই মার্চের ভাষণ শুধু রেসকোর্স ময়দান নয়, সমগ্র বাংলাদেশ যুক্ত হয়ে গিয়েছিল। পদ্মা সেতু উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের জনসভায় বাংলাদেশের ১৭ কোটি মানুষ যুক্ত হয়ে যাবে। আমাদের সবধরনের প্রস্তুতি আছে। দক্ষিণাঞ্চলের লাখ লাখ মানুষ লঞ্চে আসবে। তারা লঞ্চ থেকে যে নামবে উঠবে তার জন্য পন্টুন দেওয়া হচ্ছে। সেসব তদারকি করা হচ্ছে। দুইদিন যাবৎ বৃষ্টি হচ্ছে, নদীর পানি বৃদ্ধি পাচ্ছে। তাই এখানে আমরা এসেছি। প্রতিকূল অবস্থায় প্রস্তুতিটি সঠিকভাবে চলছে কি না তা দেখার জন্য।

প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, যেসকল মাস্টাররা লঞ্চ নিয়ে আসবে তাদের বিআইডাব্লিউটিএ’র পক্ষ থেকে নির্দেশনা দেওয়া হচ্ছে। তাদের নিরাপত্তার জন্য আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী কাজ করছে, নৌপুলিশ কাজ করছে। আমাদের হাজার হাজার আওয়ামী লীগের স্বেচ্ছাসেবক কাজ করছে। দূর-দূরান্ত থেকে মানুষ যে আসবে, তাদের সভাস্থলে নিয়ে যাবে। তিনি বলেন, বন্যা, বৃষ্টি বাদল আমাদের নিত্যদিনের সঙ্গী। এসব নিয়েই আমাদের এগিয়ে যেতে হতে।

এসময় বিআইডব্লিউটিএ’র চেয়ারম‍্যান কমডোর গোলাম সাদেক এবং ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

#

জাহাঙ্গীর/পাশা/এনায়েত/সঞ্জীব/মাহমুদ/শামীম/২০২২/১৯৪০ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                           নম্বর : ২৪৭৮

 

বন্যার পানি নামতে রাস্তা কাটার নির্দেশ স্থানীয় সরকার মন্ত্রীর

 

ঢাকা, ৪ আষাঢ় (১৮ জুন) :

 

          সিলেট অঞ্চলে বন্যার পানি নেমে যাওয়ার ক্ষেত্রে কোনো সড়ক বাধা হয়ে থাকলে তা কেটে পানি চলাচল নির্বিঘ্ন করার নির্দেশ দিয়েছেন স্থানীয় সরকার মন্ত্রী মোঃ তাজুল ইসলাম। এছাড়া, সিলেট এম এ জি ওসমানী হাসপাতালে পানি ঢুকে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ হওয়ায় সিটি কর্পোরেশনকে জেনারেটরের মাধ্যমে বিদ্যুৎ সরবরাহ করার নির্দেশ মন্ত্রীর।

 

          আজ বিকেলে রাজধানীর মিন্টু রোডে অবস্থিত সরকারি বাসভবনে সিলেট অঞ্চলের ভয়াবহ বন্যা পরিস্থিতি নিয়ে সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে মন্ত্রী এ নির্দেশ দেন।

 

          মন্ত্রী জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা অনুযায়ী ইতোমধ্যে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর এবং সিলেট সিটি কর্পোরেশনকে যে সকল রাস্তার কারণে পানি নেমে যেতে পারছে না সেসব রাস্তা তাৎক্ষণিকভাবে কাটার ব্যাপারে নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে। স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর ও সিটি কর্পোরশনের কর্মকর্তারা এ ব্যাপারে পর্যবেক্ষণ করছেন। ইতোমধ্যে স্থানীয় সরকার বিভাগ এবং এই বিভাগের আওতাধীন জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরে আলাদা কন্ট্রোলরুম খোলা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

 

          বন্যার কারণে সিলেট-সুনামগঞ্জসহ ঐ অঞ্চলে ভয়াবহ রূপ ধারণ করেছে উল্লেখ করে মোঃ তাজুল ইসলাম বলেন আমাদের এখন প্রধান লক্ষ্য হচ্ছে বন্যাদুর্গত এলাকা থেকে মানুষকে রক্ষা করে নিরাপদ স্থানে নিয়ে আসা এবং আটকেপড়া মানুষদের নিকট শুকনো খাবার, বিশুদ্ধ পানি ও পানি বিশুদ্ধকরণ ট্যাবলেট সরবরাহ করা।

 

          এ লক্ষ্যে জনপ্রতিনিধি, সরকারি কর্মকর্তা, সেনাবাহিনী, নৌবাহিনী ও অন্যান্য বাহিনীর সদস্য এবং স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনসহ সকল স্তরের মানুষ স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ করে বন্যা কবলিত লোকজনদেরকে সাহায্য সহযোগিতা করছে। এছাড়া, স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়, ত্রাণ ও দুর্যোগ মন্ত্রণালয়, নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয়সহ সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়গুলো সমন্বয় করে কাজ করা হচ্ছে।

 

          সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে মন্ত্রী বলেন, সরকারের আগাম প্রস্তুতি ছিল বলেই দ্রুত পদক্ষেপ নেয়া সম্ভব হচ্ছে। বন্যায় রাস্তা-ঘাট, ব্রিজসহ অন্যান্য যে ক্ষয়-ক্ষতি হবে তার জন্য সরকার অবশ্যই প্রয়োজনীয় বরাদ্দ প্রদান করবে। যেকোনো প্রাকৃতিক দুর্যোগ ও আপদকালীন সময়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে মিডিয়া কর্মীদের প্রশংসা করে মন্ত্রী বলেন, মিডিয়ার মাধ্যমে তথ্য পৌঁছে দেয়ার ফলে সরকার জানতে পারে এবং দ্রুত ব্যবস্থা নেয়া সম্ভব হয়।

 

#

 

হায়দার/পাশা/এনায়েত/সঞ্জীব/মাহমুদ/সেলিম/২০২২/২০১০ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                           নম্বর : ২৪৭৭

জাতীয় ফল মেলার সময় ২ দিন বাড়ানো হয়েছে

 

ঢাকা, ৪ আষাঢ় (১৮ জুন) :

 

জাতীয় ফল মেলার সময় ২ দিন বাড়ানো হয়েছে। মেলা চলবে আগামী সোমবার পর্যন্ত। রাজধানীর খামারবাড়িতে কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন বাংলাদেশ (কেআইবি) চত্বরে ফল মেলা শুরু হয়েছিল
গত বৃহস্পতিবার। সেদিন মেলার উদ্বোধন করেন কৃষিমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য
ড. মোঃ আব্দুর রাজ্জাক।

 

ফল মেলার এবারের প্রতিপাদ্য হলো ‘বছরব্যাপী ফল চাষে, অর্থ পুষ্টি দুই-ই আসে’। মেলা প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত সর্বসাধারণের জন্য উন্মুক্ত। মেলায় আগত দর্শনার্থীরা ফল চাষের বিভিন্ন প্রযুক্তি সম্পর্কে জানতে এবং রাসায়নিকমুক্ত বিভিন্ন জাতের ফল ক্রয় করতে পারছেন। সরকারি ও বেসরকারি মিলে ৬৭টি প্রতিষ্ঠান মেলায় অংশগ্রহণ করেছে।

 

#

 

কামরুল/পাশা/সঞ্জীব/মাহমুদ/আব্বাস/২০২২/১৯১৮ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                           নম্বর : ২৪৭৬

বিশ্ব অর্থনীতির প্রেক্ষাপটে মিতব্যয়ী হতে আইনমন্ত্রীর পরামর্শ

ঢাকা, ৪ আষাঢ় (১৮ জুন) :

আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধ ও করোনা ভাইরাসের কারণে বিশ্ব অর্থনীতি যেখানে টালমাটাল সেখানে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অবস্থা এখনও ভালো আছে।

আজ রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে বাংলাদেশ রেজিস্ট্রেশন সার্ভিস এসোসিয়েশন (বিআরএসএ) আয়োজিত বার্ষিক সাধারণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী একথা বলেন।

আইনমন্ত্রী বলেন, একটা দেশ আর্থিকভাবে সচ্ছল থাকতে ৩ মাসের আমদানি বিল পরিশোধ করার মতো রিজার্ভ থাকতে হয়। ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধ ও করোনাভাইরাসের অতিমারির কারণে বিশ্ব অর্থনীতি এখন অনেক ক্ষেত্রে টালমাটাল। পাকিস্তানের যেখানে ২ মাস এবং শ্রীলংকার মাত্র ১ দিনের আমদানি বিল পরিশোধের সামর্থ্য রয়েছে সেখানে আমাদের বাংলাদেশের সাত থেকে সাড়ে-সাত মাসের আমদানি বিল পরিশোধ করার মতো রিজার্ভ রয়েছে। কিন্তু এরপরও আমরা সতর্ক। আমরা চাই মিতব্যয়ী হতে।

জনগণকে মানসম্মত সেবা প্রদানের নির্দেশনা দিয়ে সাব-রেজিস্ট্রারদের উদ্দেশ্যে আইনমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কল্যাণে এখন বাংলাদেশ বদলে গেছে, এই বদলে যাওয়া বাংলাদেশের সঙ্গে সাবরেজিস্ট্রারদের খাপখাইয়ে চলতে হবে।

মন্ত্রী বলেন, আমরা চাই মামলা জট কমুক। কিন্তু অনেক মামলার শুরু হয় জমি-জমা বিরোধ নিয়ে। এ বিরোধ কমানোর জন্য রেজিস্ট্রেশন ডিপার্টমেন্ট ডিজিটাইজড করা হচ্ছে। সারা দেশের সব সাব-রেজিস্ট্রি অফিসে ই-রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া চালু করা সম্ভব হলে জনগণকে দ্রুত রেজিস্ট্রেশন সেবা দেওয়া সম্ভব হবে। সাথে জমি-জমা সংক্রান্ত বিরোধও কমবে।

আনিসুল হক বলেন, দক্ষতার সাথে ই-রেজিস্ট্রেশন সেবা দেওয়ার জন্য সাব-রেজিস্ট্রারদের সর্বাধুনিক প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হবে। এই বিভাগে এখন পিএসসি থেকে নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে। প্রতিটি উপজেলায় আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সংবলিত সাব-রেজিস্ট্রি অফিস ভবন বানিয়ে দেওয়া হচ্ছে। বিআরএসএ’র দীর্ঘদিনের দাবি অনুযায়ী নিবন্ধন পরিদপ্তরকে উন্নীত করা হয়েছে। সব কর্মকর্তাদের দেশ-বিদেশে প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হয়েছে। উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় দেশের বিভিন্ন জেলায় জেলা রেজিস্ট্রার ও সাব-রেজিস্ট্রার অফিস ভবন নির্মাণ করা হয়েছে।

বিআরএসএ’র সভাপতি মোঃ জিয়াউল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন লেজিসলেটিভ ও সংসদ বিষয়ক বিভাগের সচিব মোঃ মইনুল কবির, আইন ও বিচার বিভাগের সচিব মোঃ গোলাম সারওয়ার, নিবন্ধন অধিদফতরের মহাপরিদর্শক শহীদুল আলম ঝিনুক, বিআরএসএ’র মহাসচিব মোঃ জাহিদ হোসেন প্রমুখ।

                                                     #

রেজাউল/পাশা/সঞ্জীব/মাহমুদ/আব্বাস/২০২২/১৮১৭ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                              নম্বর : ২৪৭৫ 

   

শিশুরাই আগামীর ভবিষ্যৎ

       - সমাজকল্যাণ মন্ত্রী

 

ঢাকা, ৪ আষাঢ় ( ১৮ জুন) :

 

সমাজকল্যাণ মন্ত্রী নুরুজ্জামান আহমেদ বলেছেন, উন্নত বাংলাদেশ গড়তে হলে আজকে যারা শিশু তাদেরকে যোগ্য করে গড়ে তুলতে হবে। শিশুরাই আগামীর ভবিষ্যৎ।

 

মন্ত্রী আজ রাজধানীর মোহাম্মদপুরে সরকারি শারীরিক শিক্ষা কলেজ মাঠে সরকারি শিশু পরিবার ও শেখ রাসেল দুঃস্থ শিশু পুনর্বাসন কেন্দ্রের নিবাসীদের বিভাগীয় ক্রীড়া প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য প্রদানকালে এসব কথা বলেন।

 

সমাজসেবা অধিদফতরের মহাপরিচালক শেখ রফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী মোঃ আশরাফ আলী খান খসরু।

 

মন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্যোগের ফলে দেশের দুঃস্থ শিশুরা উপযুক্ত পরিবেশে বেড়ে উঠছে। শিশু পরিবারে প্রতিটি শিশুর শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও খেলাধুলা-বিনোদন নিশ্চিত করা হচ্ছে। শিশু পরিবারের স্বাস্থ্যসম্মত পরিবেশ ও সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনার কথা উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, করোনা অতিমারির সময়ে নিবাসী সকল শিশু সুস্থ ছিল। মন্ত্রী শিশুদের আগামী বাংলাদেশের যোগ্য নাগরিক হিসেবে গড়ে তুলতে পড়াশোনার পাশাপাশি নিয়মিত খেলাধুলা ও সংস্কৃতির চর্চা বাড়াতে শিক্ষক ও অভিভাবকদের আহ্বান জানান।

 

মন্ত্রী আরো বলেন, সমালোচকরা পেছন থেকে সবসময় সমালোচনা করে যাচ্ছে। বাংলাদেশ আজ বিশ্বে উন্নয়নের রোল মডেল। সমালোচকদের যারা এক সময় এ দেশকে তলাবিহীন ঝুড়ি হিসেবে আখ্যায়িত করেছিল, তারা আজ উন্নয়নের উদাহরণ হিসেবে বাংলাদেশের নাম বলে।

 

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী সরকারি শিশু পরিবারের শিশুদের ক্রীড়া নৈপুণ্যের প্রশংসা করে বলেন, উপযুক্ত প্রশিক্ষণ পেলে এরাও ভবিষ্যতে ক্রীড়া ক্ষেত্রে দেশের মুখ উজ্জ্বল করতে পারবে।

পরে মন্ত্রী প্রতিযোগীতার বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার তুলে দেন।

 

উল্লেখ্য, বিভাগীয় ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় ঢাকা বিভাগের ২৬ টি প্রতিষ্ঠানের আট শতাধিক নিবাসী অংশগ্রহণ করে।

 

#

 

জাকির/পাশা/সঞ্জীব/মাহমুদ/শামীম/২০২২/১৭৩৫ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                   নম্বর : ২৪৭৪

 

কোভিড-১৯ <

2022-06-18-16-46-929fcc24e11e660c8965e572c17e747d.doc 2022-06-18-16-46-929fcc24e11e660c8965e572c17e747d.doc

Share with :

Facebook Facebook