তথ্য অধিদফতর (পিআইডি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২৯ জুন ২০২২

তথ্যবিবরণী ২৯ জুন ২০২২

তথ্যবিবরণী                                                                                               নম্বর : ২৬৪৫

 স্বপ্ন পূরণে প্রত‌্যেককেই নিবেদিতভাবে কাজ করতে হবে

                                        -- টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী

ঢাকা, ১৫ আষাঢ় (২৯ জুন) :  

ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগ এবং এর আওতাধীন প্রতিষ্ঠান, অধিদপ্তর ও সংস্থা প্রধানগণের বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি (এপিএ) স্বাক্ষরিত হয়েছে। বিভাগের অধীনস্থ দশটি দপ্তর ও সংস্থার পক্ষ থেকে স্ব স্ব সংস্থা প্রধান চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন এবং ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রীর প্রতিনিধি হিসেবে সচিব মোঃ খলিলুর রহমান চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন। ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

আজ বাংলাদেশ সচিবালয়ে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় মন্ত্রী বলেন, বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি (এপিএ) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার একটি অনন্য উদ্যোগ। প্রধানমন্ত্রী স্বপ্ন দেখেন, স্বপ্ন দেখান এবং স্বপ্ন বাস্তবায়ন করেন। তিনি বলেন, এপিএ হচ্ছে পশ্চাৎপদতা থেকে আমাদের সামনে এগিযে যাওয়ার ভিত্তি। প্রধানমন্ত্রীর সৈনিক হিসেবে আমাদের উচিত তাঁর স্বপ্ন পূরণে নিবেদিত হয়ে কাজ করা।  মন্ত্রী তার অধীনস্থ দপ্তর ও সংস্থা প্রধানদের উদ্দেশ‌্যে বলেন, আপনারা যে চুক্তি করেছেন তা বাস্তবায়নে আপনাদের মনোযোগী হতে হবে। চুক্তি স্বাক্ষর মানেই হচ্ছে প্রতিশ্রুতি পূরণের চেষ্টা করা। আর বাস্তবায়ন না করা মানে ব‌্যর্থ হওয়া। তিনি বলেন, আমাদের মনে রাখতে সাম্প্রতিক বন‌্যার ন‌্যায় এমন কিছু আকস্মিক বিষয় আছে যা গতবছর সম্পাদিত এপিএ চুক্তিতে ছিল না। আকস্মিক যে কোন পরিস্থিতি দক্ষতার সাথে মোকাবিলার সামর্থ্য অর্জন অপরিহার্য। সাম্প্রতিক বন‌্যায় দুর্গত এলাকায় ইন্টারনেট ও টেলিযোগাযোগ নেটওয়ার্ক সচল রাখতে বাংলাদেশ স‌্যাটেলাইট কোম্পানি, টেলিটক ও বিটিসিএলসহ সংশ্লিষ্ট সংস্থাসমূহের ভূমিকার প্রশংসা করেন মন্ত্রী। আগামী দিনগুলোতেও এ সেক্টরের সাফল্য অব্যাহত থাকবে বলে মন্ত্রী আশাবাদ ব‌্যক্ত করেন।। সেই সাথে সম্পাদিত চুক্তি যথাযথভাবে বাস্তবায়নের নির্দেশ দেন তিনি।

আরএডিপি বাস্তবায়ন প্রায় শতভাগ

গত ২৬ জুন পর্যন্ত ডাক ও  টেলিযোগাযোগ বিভাগের  ২০২১-২২ আরএডিপি বাস্তবায়ন হার শতকরা ৯৬ দশমিক ১৫ ভাগ। আজ ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ২০২১-২০২২ অর্থবছরের আরএডিপি বাস্তবায়ন সভায় এ তথ‌্য জানানো হয়।

২০২১-২২ অর্থবছরে বিটিআরসি, ডাক অধিদপ্তর, বিটিসিএল, টেলিটক, বাংলাদেশ স‌্যাটেলাইট কোম্পানি লিমিটেড, টেলিফোন শিল্প সংস্থা, বাংলাদেশ সাবমেরিন কেবল কোম্পানি লিমিটেড, বাংলাদেশ কেবল শিল্প লিমিটেডসহ ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগ ও এর আওতাধীন দপ্তর সংস্থার ১৪টি প্রকল্পের বিপরীতে স্ব-অর্থায়নসহ মোট ৮৪৫ দশমিক ৫১ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়। প্রাক্কলিত ব‌্যয়ের ৪৯৮ দশমিক ৬৯ কোটি টাকা জিওবি, প্রকল্প সাহায‌্য ৩০০ কোটি টাকা এবং স্ব-অর্থায়ন ৫৫ দশমিক ৮২ কোটি টাকা।

 

#

শেফায়েত/পাশা/নাইচ/সঞ্জীব/রফিকুল/মাহমুদ/শামীম/২০২২/১৯৫৫ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                  নম্বর : ২৬৪৪

রাষ্ট্রপতির নিকট অস্ট্রিয়া ও লিবিয়ার নবনিযুক্ত রাষ্ট্রদূতের পরিচয়পত্র পেশ

ঢাকা, ১৫ আষাঢ় (২৯ জুন) :

          রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদের নিকট আজ বঙ্গভবনে বাংলাদেশে নবনিযুক্ত অস্ট্রিয়ার রাষ্ট্রদূত Katharina WIESER ও লিবিয়ার নবনিযুক্ত রাষ্ট্রদূত Abdul Mutaleb Suliman Mohammed Suliman পরিচয়পত্র পেশ করেন। বিকেলে নতুন দূতগণ বঙ্গভবনে পৌঁছুলে প্রেসিডেন্ট গার্ড রেজিমেন্টের একটি চৌকস দল তাঁদের গার্ড অভ্ অনার প্রদান করে।

          প্রথমে পরিচয় পত্র পেশ করেন অস্ট্রিয়ার রাষ্ট্রদূত। রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ অস্ট্রিয়ার নবনিযুক্ত রাষ্ট্রদূতকে স্বাগত জানান। রাষ্ট্রপতি বলেন, স্বাধীনতার পর বাংলাদেশকে স্বীকৃতি প্রদানকারী দেশগুলোর মধ্যে অস্ট্রিয়া অন্যতম। রাষ্ট্রপতি বলেন, এ বছর দুই দেশ কূটনৈতিক সম্পর্ক প্রতিষ্ঠার ৫০ বছর পূর্তি উদ্যাপন করছে। তিনি দু’দেশের মধ্যে বিদ্যমান চমৎকার সম্পর্কের কথা উল্লেখ করে আশা করেন আগামীতে এ সম্পর্ক বাণিজ্য-বিনিয়োগসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে আরো সম্প্রসারিত হবে।  তিনি এ লক্ষ্যে দু’দেশের মধ্যে উচ্চ পর্যায়ে যোগাযোগ ও সফর বিনিময়ের ওপর গুরুত্ব দেন। রাষ্ট্রপতি বাংলাদেশের স্বল্পোন্নত থেকে উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণের ক্ষেত্রে অস্ট্রিয়ার বাণিজ্য সহযোগিতা ও সার্বিক সমর্থন প্রত্যাশা করেন।

          রাষ্ট্রপতি রোহিঙ্গা ইস্যুতে সহযোগিতার জন্য অস্ট্রিয়া সরকারকে ধন্যবাদ জানান। তিনি আশা প্রকাশ করেন, রোহিঙ্গাদের সম্মানজনক প্রত্যাবর্তনে ভবিষ্যতেও তাদের সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে এবং এ ব্যাপারে মিয়ানমারের ওপর চাপ প্রয়োগ অব্যাহত রাখবে। রাষ্ট্রপতি বিশ্বব্যাপী করোনা ভাইরাস সংক্রমণের প্রেক্ষাপটে বাংলাদেশকে ভ্যাকসিন দিয়ে সহযোগিতার জন্য অস্ট্রিয়া সরকারের প্রতি আন্তরিক ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

          এরপর পরিচয়পত্র পেশ করেন লিবিয়ার রাষ্ট্রদূত। রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ নতুন দূতকে বঙ্গভবনে স্বাগত জানান। তিনি বাংলাদেশ ও লিবিয়ার মধ্যে বিদ্যমান বহুমাত্রিক ও চমৎকার বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কের কথা উল্লেখ করে বলেন, এ সম্পর্ককে ব্যবসা-বাণিজ্যসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে সম্প্রসারণের যথেষ্ট সুযোগ রয়েছে। তিনি এ লক্ষ্যে সরকারি ও বেসরকারি পর্যায়ে সফর বিনিময়ের ওপর গুরুত্বারোপ করেন।  রাষ্ট্রপতি বলেন, বাংলাদেশ তৈরি পোশাক, ঔষধ, পাট ও চামড়াজাত পণ্য, প্লাস্টিক সামগ্রীসহ বিশ্বমানের পণ্য উৎপাদন করে থাকে। লিবিয়া এসব পণ্য আমদানির মাধ্যমে লাভবান হতে পারে। রাষ্ট্রপতি বলেন, লিবিয়ার সংকটময় সময়েও সেখানে কর্মরত বাংলাদেশিরা নিষ্ঠা ও আন্তরিকতার সাথে সেবা দিয়েছে। তিনি বলেন, লিবিয়া বাংলাদেশ থেকে কৃষি, তথ্যপ্রযুক্তি, স্বাস্থ্যসহ বিভিন্ন সেক্টরে দক্ষ কর্মী নিয়োগের মাধ্যমে তাদের জনশক্তির চাহিদা পূরণ করতে পারে। তিনি লিবিয়ায় কর্মরত বাংলাদেশিদের বিভিন্ন সমস্যা সমাধানে নতুন দূতের সহযোগিতা কামনা করেন। রাষ্ট্রপতি আশা প্রকাশ করেন, দায়িত্ব পালনকালে নতুন দূতগণ দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক সম্প্রসারণের প্রতিটি ক্ষেত্রকে কাজে লাগাতে আন্তরিক প্রয়াস চালাবেন।

          নবনিযুক্ত রাষ্ট্রদূতগণ বলেন, তারা বাংলাদেশের সাথে স্ব স্ব দেশের বিদ্যমান সম্পর্ক জোরদারে সার্বিক প্রয়াস অব্যাহত রাখবেন। রাষ্ট্রদূতগণ দায়িত্বপালনে রাষ্ট্রপতির সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেন।

          পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন, রাষ্ট্রপতির কার্যালয়ের সচিব সম্পদ বড়ুয়াসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

#

ইমরানুল/পাশা/রফিক/রফিকুল/মাহমুদ/জয়নুল/২০২২/২০১০ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                নম্বর : ২৬৪৩

 

কোভিড-১৯ সংক্রান্ত সর্বশেষ প্রতিবেদন

 

ঢাকা, ১৫ আষাঢ় (২৯ জুন) :    

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর এবং রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর)-এর তথ্যানুযায়ী গতকাল মঙ্গলবার সকাল ৮টা থেকে বুধবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ২ হাজার ২৪১ জনের শরীরে করোনা সংক্রমণ পাওয়া গেছে। নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে রোগী শনাক্তের হার ১৫ দশমিক ২৩ শতাংশ। এ সময় ১৪ হাজার ৭১২ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে।            

গত ২৪ ঘণ্টায় কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়ে কেউ মারা যায়নি। এ পর্যন্ত ২৯ হাজার ১৪৫ জন করোনায় মৃত্যুবরণ করেছেন। করোনাভাইরাস আক্রান্তদের মধ্যে এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ১৯ লাখ ৭ হাজার ২১৯ জন।  

#

জাকির/পাশা/সঞ্জীব/রফিকুল/মাহমুদ/রেজাউল/২০২২/১৯০০ ঘণ্টা

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                              নম্বর : ২৩৪২

পরিবেশের উন্নয়ন দৃশ্যমান করতে কর্মকর্তাদের কঠোর নির্দেশ পরিবেশমন্ত্রীর

ঢাকা, ১৫ আষাঢ় (২৯ জুন) :

          জাতীয় অঙ্গীকার বাস্তবায়নের অংশ হিসেবে দেশের পরিবেশের উন্নয়ন দৃশ্যমান করতে মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের প্রতি কঠোর নির্দেশনা প্রদান করেছেন পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী মোঃ শাহাব উদ্দিন। তিনি বলেন, আগামী ১ মাসের মধ্যে শব্দদূষণ নিয়ন্ত্রণের অগ্রগতি জনগণের কাছে দৃশ্যমান করতে হবে। এজন্য নিষিদ্ধ হাইড্রোলিক হর্ন বন্ধে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণসহ প্রয়োজনীয় সকল উদ্যোগ বাস্তবায়ন করতে হবে। বায়ুদূষণ, পানিদূষণসহ সকল প্রকার পরিবেশ দূষণ নিয়ন্ত্রণে আন্তরিকভাবে কাজ করতে হবে। বনভূমি পুনরুদ্ধার এবং দেশের বৃক্ষাচ্ছাদিত ভূমির পরিমাণ ২৪ শতাংশে উন্নীত করার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

          আজ পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে মন্ত্রণালয় এবং এর অধীন সাতটি দপ্তর-সংস্থার সাথে আগামী ২০২২-২৩ অর্থবছরের বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি (এপিএ) স্বাক্ষর ও শুদ্ধাচার পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন। মন্ত্রণালয়ের সচিব ডক্টর ফারহিনা আহমেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় উপমন্ত্রী হাবিবুন নাহার, অতিরিক্ত সচিব (প্রশাসন) ইকবাল আব্দুল্লাহ হারুনসহ মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা এবং এর অধীন দপ্তর ও সংস্থার প্রধানগণ উপস্থিত ছিলেন।

          মন্ত্রী বলেন, বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি একটি কাঠামোবদ্ধ কর্মপরিকল্পনা। সরকারি কর্মচারীদের নিজ নিজ দায়বদ্ধতা থেকে এ কাঠামোর বাইরে গিয়েও কাজ করতে হবে। ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে উন্নত দেশে পরিণত করার লক্ষ্য পূরণে আন্তরিক হতে হবে। এজন্য সর্বোচ্চ গুরুত্বসহকারে এবং গুণগতমান নিশ্চিতপূর্বক প্রতিযোগিতার সাথে কাজ করতে হবে। দেশের প্রতি ভালোবাসা থেকে কাজ করলে সোনার বাংলা বিনির্মাণ সহজতর হবে।

          অনুষ্ঠানে মন্ত্রণালয়ের সচিব ডক্টর ফারহিনা আহমেদের সাথে পরিবেশ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ডক্টর আবদুল হামিদ, বন অধিদপ্তরের প্রধান বন সংরক্ষক মোঃ আমীর হোসাইন চৌধুরী, বাংলাদেশ বন গবেষণা ইনস্টিটিউটের পরিচালক ডক্টর রফিকুল হায়দার, বাংলাদেশ বনশিল্প উন্নয়ন কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান মোঃ শহিদুল ইসলাম, বাংলাদেশ ন্যাশনাল হারবেরিয়ামের পরিচালক সঞ্জয় কুমার ভৌমিক, বাংলাদেশ জলবায়ু পরিবর্তন ট্রাস্টের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. মোঃ রেজাউল হক এবং বাংলাদেশ রাবার বোর্ড চেয়ারম্যান সৈয়দা সারওয়ার জাহান নিজ নিজ সংস্থার পক্ষে বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি (এপিএ) স্বাক্ষর করেন।

          এপিএ চুক্তি স্বাক্ষরের পর মন্ত্রী ২০২১-২২ অর্থবছরে শুদ্ধাচার পুরস্কারের জন্য মনোনীত উপসচিব দেবময় দেওয়ান, ব্যক্তিগত কর্মকর্তা রুহুল আমীন এবং অফিস সহায়ক হাসিনা আক্তারকে পুরস্কার হিসেবে একমাসের মূল বেতন, সনদপত্র ও সম্মাননা স্মারক প্রদান করেন।

#

দীপংকর/পাশা/রফিক/রফিকুল/মাহমুদ/জয়নুল/২০২২/১৯৪৫ঘণ্টা

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                  নম্বর : ২৬৪১

সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ার চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় নেতৃত্ব দিতে নিজেদের প্রস্তুত করুণ

                                                                                               -- বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী

ঢাকা, ১৫ আষাঢ় (২৯ জুন) :

          বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেছেন, সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ার চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় নেতৃত্ব দিতে নিজেদের প্রস্তুত করুণ। ২০৪১ সালে বাংলাদেশ একটি জ্ঞানভিত্তিক, সুখী-সমৃদ্ধ উন্নত বাংলাদেশে পরিণত হবে। এর নেপথ্যে যে বিপুল আর্থসামাজিক অবস্থার উন্নয়ন ঘটবে তার মূলে থাকবে বিদ্যুৎ। শতভাগ বিদ্যুতায়ন হয়েছে, বিদ্যুৎ সেবা আরো বাড়াতে হবে। টিমওয়ার্ক করার জন্যই এই অর্জন দ্রুত হয়েছে। টিমওয়ার্ক করেই কর্মদক্ষতা বাড়াতে হবে। 

          প্রতিমন্ত্রী আজ বিদ্যুৎ ভবনে বিদ্যুৎ বিভাগের সাথে এর আওতাধীন দপ্তর, সংস্থা ও কোম্পানিসমূহের সাথে বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি (এপিএ) স্বাক্ষর  অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি সরকারি কর্মকর্তাদের দায়িত্ব পালনের একটি জবাবদিহিমূলক ব্যবস্থা। কখন কোন কাজ সম্পাদন করতে হবে তার টাইমলাইন থাকায় সাফল্য পেতে সহজ হয়। অতীতে ভালো করলেও বিগত দু’টি বছরে অর্জিত সম্মানজনক অবস্থান বিদ্যুৎ বিভাগ ধরে রাখতে পারেনি। আগামীতে প্রথম স্থান পেতে হবে। আমাদের যে অর্জন হয়েছে তা ধরে রাখা হবে। রক্ষণাবেক্ষণের জায়গাতে আরো সচেতন হতে হবে।

          অনুষ্ঠানে বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তির আওতায় ২০২১-২২ অর্থবছরের শুদ্ধাচার পুরস্কার পান নর্দান ইলেক্ট্রিসিটি সাপ্লাই কোম্পানি লিমিঢেছইডের এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোঃ জাকিউল ইসলাম, বিদ্যুৎ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মুঃ মোহসিন চৌধুরী, প্রশাসনিক কর্মকর্তা মোঃ আনিসুল হক এবং অফিস সহায়ক আফরোজা আক্তার। 

          বিদ্যুৎ বিভাগের সচিব মোঃ হাবিবুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মাঝে বিদ্যুৎ বিভাগের অতিরক্ত সচিব ও এপিএ টিম লিডার মুঃ মোহসিন চৌধুরী, পিডিবি’র চেয়ারম্যান মোঃ মাহবুবুর রহমান, পাওয়ার সেলের ডিজি মোহাম্মদ হোসাইনসহ সঞ্চালন, বিতরণ ও উৎপাদন খাতের কোম্পানিসমূহের দপ্তর প্রধানগণ উপস্থিত ছিলেন।

#

আসলাম/পাশা/রফিকুল/মাহমুদ/জয়নুল/২০২২/১৮৫৫ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                               নম্বর : ২৬৪০

এপিএ’র শতভাগ বাস্তবায়ন দেখতে চাই

                        - গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী

ঢাকা, ১৫ আষাঢ় (২৯ জুন) :  

গৃহায়ন ও গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী শরীফ আহমেদ বলেছেন, বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি ২০২২-২৩ এর শতভাগ বাস্তবায়ন দেখতে চাই।

আজ সচিবালয়ে গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে মন্ত্রণালয় এবং এর অধীনস্থ দপ্তর ও সংস্থাসমূহের মধ্যে বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় প্রতিমন্ত্রী একথা বলেন। চুক্তিপত্রে গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের পক্ষে মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ শহীদ উল্লা খন্দকার এবং দপ্তর ও সংস্থাসমূহের পক্ষে দপ্তর সংস্থার প্রধানগণ স্বাক্ষর করেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তির শর্তসমূহ প্রত্যেকটি দপ্তর ও সংস্থা তাদের সক্ষমতা অনুযায়ী নিজেরাই সুপারিশ করেছেন। সুপারিশের প্রেক্ষিতেই চুক্তিপত্র প্রস্তুত করা হয়েছে। নতুন করে মন্ত্রণালয় কর্তৃক কোনো বাড়তি কাজ কোনো দপ্তর বা সংস্থার উপর চাপিয়ে দেওয়া হয়নি। সুতরাং এই চুক্তি শতভাগ বাস্তবায়নের জন্য সকল দপ্তর ও সংস্থা সরকারের নিকট দায়বদ্ধ। এর বিন্দুমাত্র ব্যত্যয় সহ্য করা হবে না।

প্রতিমন্ত্রী তার বক্তব্যে আরো বলেন, নির্ধারিত সময়ে সকল প্রকল্পের কাজ যথাযথ গুণগত মান বজায় রেখে সমাপ্ত করতে হবে। এক্ষেত্রে বার্ষিক কর্ম সম্পাদনচুক্তি (এপিএ) একটি বড় মাইলফলক হিসেবে কাজ করবে। এছাড়া সকল মন্ত্রণালয় ও দপ্তর/সংস্থার এপিএ বাস্তবায়ন হারের ওপর জাতীয় উন্নয়ন ও অগ্রগতি নির্ভর করে। জাতীয় উন্নয়ন ও অগ্রগতি ত্বরান্বিত করা তথা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে পরিচালিত সরকারের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য বাস্তবায়নে বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি শতভাগ বাস্তবায়নের কোনো বিকল্প নেই।

২০২০-২১ অর্থবছরে গ্রেড- ১ হতে গ্রেড- ১০ ভুক্ত কর্মচারী ক্যাটেগরিতে মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব (উন্নয়ন অনুবিভাগ-২) মোঃ শওকত আলী, দপ্তর ও সংস্থার প্রধান ক্যাটেগরিতে জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান মোঃ দেলোয়ার হায়দার এবং গ্রেড- ১১ হতে গ্রেড- ২০ ভুক্ত কর্মচারী ক্যাটেগরিতে প্রশাসন অধিশাখা-৬ এর অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার মুদ্রাক্ষরিক হালিমাকে শুদ্ধাচার পুরস্কার প্রদান করা হয়।

২০২১-২২ অর্থবছরের জন্য মন্ত্রণালয়ের গ্রেড-১ হতে গ্রেড-০৯ ভুক্ত কর্মচারী ক্যাটেগরিতে প্রশাসন-২ অনুবিভাগের অতিরিক্ত সচিব কাজী ওয়াছিউদ্দিন, দপ্তর ও সংস্থার প্রধান হিসেবে কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান লে. কর্নেল (অব.) ফোরকান আহমদ এলডিএমসি, পিএসসি; মন্ত্রণালয়ের গ্রেড-১০ হতে গ্রেড-১৬ ভুক্ত কর্মচারী ক্যাটেগরিতে প্রশাসন অধিশাখা-৫ এর প্রশাসনিক কর্মকর্তা মোঃ হেদায়েতুল ইসলাম এবং গ্রেড- ১৭ হতে গ্রেড -২০ ভুক্ত কর্মচারী ক্যাটেগরিতে সচিবের দপ্তরের অফিস সহায়ক মোঃ ফরহাদ হোসেনকে শুদ্ধাচার পুরুস্কার প্রদান করা হয়।

#

সিদ্দিকী/পাশা/সঞ্জীব/রফিকুল/মাহমুদ/শামীম/২০২২/১৯২০ঘণ্টা

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                  নম্বর : ২৬৩৯

কমনওয়েলথ ইয়ুথ মিনিস্টার্স টাস্কফোর্সের সদস্য নির্বাচিত হলেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী

ঢাকা, ১৫ আষাঢ় (২৯ জুন) :

          কমনওয়েলথ ইয়ুথ মিনিস্টিরিয়াল টাস্ক ফোর্সের ৫ম সভা রুয়ান্ডার রাজধানী কিগালিতে গত ২২ জুন অনুষ্ঠিত হয়। সভায় কমনওয়েলভুক্ত ৫৪টি দেশের যুব মন্ত্রী এবং তাদের প্রতিনিধিগণ অংশগ্রহণ করেন। সভায় কমনওয়েলথের আওতাভুক্ত দেশসমূহের যুব কার্যক্রম পর্যালোচনা করা হয়। বিশেষ করে যুবদের ভবিষ্যৎ উন্নয়নে সদস্য দেশগুলোর মধ্যে পারস্পরিক সহযোগিতা জোরদারকরণ, যুবদের দক্ষতা বৃদ্ধি, উদ্ভাবন, কর্মসংস্থান, যুব ক্ষমতায়ন, উদোক্তা সৃষ্টির মাধ্যমে স্মার্ট এবং রেজিলিয়েন্ট যুব উন্নয়নে বিশেষ গুরুত্ব আরোপ করা হয়।

          সভায় আগামী ৪ বছরের জন্য ১১ সদস্যবিশিষ্ট কমনওয়েলথ ইয়ুথ মিনিস্টার্স টাস্কফোর্স কমিটি গঠন করা হয়। টাস্কফোর্স কমিটিতে বাংলাদেশের যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মোঃ জাহিদ আহসান রাসেল সদস্য মনোনীত হন। কমিটির অন্যান্য সদস্যের মধ্যে রয়েছে ফিজি, সামোয়া, মালটা, উগান্ডা, ঘানা, কিংডম অভ্ এসওয়াতিনি, বাহামাস, জামাইকা, স্টেট লুসিয়া এবং ভারত। 

          কমিটির কার্যক্রম পরিধির মধ্যে রয়েছে কমনওয়েলথ চার্টার্ড অনুযায়ী যুব উন্নয়ন কার্যক্রমসমূহের অগ্রগতি জাতীয় এবং আঞ্চলিক পর্যায়ে মনিটর করা এবং কমনওয়েলথ হেড অভ্ গভর্নমেন্ট, কমনওয়েলথ ফোরাম এবং কমনওয়েলথ মিনিস্টারিয়াল মিটিংয়ের গৃহীত সিদ্ধান্তসমূহ বাস্তবায়নে একসাথে কাজ করা।

          টাস্কফোর্স কমিটির সদস্যগণ বছরে অন্তত একবার কমনওয়েলথের সদরদপ্তর লন্ডনে মিলিত হয়ে কার্যক্রমের অগ্রগতি মূল্যায়ন করবেন। এছাড়া, কমনওয়েলথ ইয়ুথ কাউন্সিলের এশীয় অঞ্চলের প্রতিনিধি নির্বাচনে বাংলাদেশ বিজয়ী হয়েছে।

#

আরিফ/পাশা/রফিক/সঞ্জীব/মাহমুদ/জয়নুল/২০২২/১৯২০ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                               নম্বর : ২৬৩৮

চিনিশিল্পকে একটি লাভজনক শিল্পে পরিণত করতে হবে

                                                -- শিল্প প্রতিমন্ত্রী

 

ঢাকা, ১৫ আষাঢ় (২৯ জুন) :  

শিল্প প্রতিমন্ত্রী কামাল আহমেদ মজুমদার বলেছেন, চিনিশিল্প একটি সম্ভাবনাময় শিল্প, তাই আখ চাষ ও চিনি উৎপাদনে আধুনিক প্রযুক্তি ও উপকরণ ব্যবহারের মাধ্যমে চিনিশিল্পকে একটি লাভজনক শিল্পে পরিণত করতে হবে।

আজ রাজধানীর মতিঝিল বাণিজ্যিক এলাকায় চিনিশিল্প ভবনে আয়োজিত বাংলাদেশ চিনিশিল্প কর্পোরেশন শ্রমিক-কর্মচারী ফেডারেশনের নবনির্বাচিত কার্যকরী সংসদের শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠান ও আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় প্রতিমন্ত্রী একথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু শুধু একটি স্বাধীন সার্বভৌম রাষ্ট্রই প্রতিষ্ঠা করেননি, তিনি একটি উন্নত-সমৃদ্ধ শিল্পোন্নত রাষ্ট্র গঠনের লক্ষ্যে দেশে বিভিন্ন ধরনের শিল্প-কলকারখানা স্থাপনের মাধ্যমে শিল্পায়নের বিকাশেও গূরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছেন। তাঁর‌ পদাঙ্ক অনুসরণ করেই একটি শিল্পসমৃদ্ধ উন্নত দেশ বিনির্মাণে শিল্প মন্ত্রণালয় নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বেই উন্নয়নের মহাসড়কে অপ্রতিরোধ্য অগ্রযাত্রায় বাংলাদেশ এখন বিশ্বে উন্নয়নের রোল মডেল। তিনি বলেন, সময়ের চাহিদায় উচ্চ ফলনশীল আখ চাষের পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের মৌসুমী ও অর্থনৈতিক ফসল‌ ফলাতে হবে। চিনিকলগুলো থেকে উৎপাদিত উপজাত পণ্যের যথাযথ ব্যবহার নিশ্চিত করতে হবে।

শিল্প প্রতিমন্ত্রী বাংলাদেশ চিনিশিল্প কর্পোরেশন শ্রমিক-কর্মচারী ফেডারেশনের নবনির্বাচিত সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ সকল নেতৃবৃন্দকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জ্ঞাপন করে সবাইকে আন্তরিকতার সাথে দায়িত্ব ও কর্তব্য পালনের আহ্বান জানান।

বাংলাদেশ চিনিশিল্প কর্পোরেশন শ্রমিক-কর্মচারী ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক মোঃ রায়হানুল হকের সঞ্চালনায় এবং ফেডারেশনের সভাপতি মোঃ মাসুদুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় অন্যান্যের মধ্যে বিশেষ অতিথি হিসেবে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের শ্রম ও জনশক্তি বিষয়ক সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ হাবিবুর রহমান সিরাজ এবং বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্য শিল্প কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান মোঃ আরিফুর রহমান অপু উপস্থিত ছিলেন।

#

তাজুল/পাশা/রফিক/সঞ্জীব/রফিকুল/মাহমুদ/শামীম/২০২২/১৮০৫ঘণ্টা


তথ্যবিবরণী                                                                                           নম্বর : ২৬৩৭

 

পদ্মা সেতু নিয়ে মিথ্যাচারকারীদের আইনের আওতায় আনা প্রয়োজন

                                              --মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী

 

ঢাকা, ১৫ আষাঢ় (২৯ জুন) : 

পদ্মা সেতু নিয়ে যারা মিথ্যাচার করে, তাদের আইনের আওতায় আনা প্রয়োজন বলে মন্তব্য করেছেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম।

আজ রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে সম্প্রীতি বাংলাদেশ আয়োজিত পদ্মা সেতু: সম্প্রীতির পথে সাফল্যের অগ্রযাত্রা শীর্ষক গোলটেবিল আলোচনায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এ মন্তব্য করেন।

মন্ত্রী বলেন, আমাদের সক্ষমতার চ্যালেঞ্জের বিজয় পদ্মা সেতু। অনেক প্রতিকূলতা মোকাবিলা করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিশ্বের বিস্ময় পদ্মা সেতু নির্মাণ করেছেন। তিনি দেখিয়েছেন চাইলে আমরাও পারি। পদ্মা সেতু শেখ হাসিনার সততা, আত্মবিশ্বাস এবং সাহসিকতার বিজয়গাঁথা। বাংলাদেশের উন্নয়নকে যারা বাধাগ্রস্ত করতে চেয়েছিল, পদ্মা সেতু তাদের মুখে চপেটাঘাত। এ সেতু বাংলাদেশের নিজের সৃষ্টি ও সামর্থ্যের স্বাক্ষর বহন করবে অনন্তকাল।

মন্ত্রী আরো বলেন, পদ্মা সেতু নির্মাণে যারা প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে বাধা দিয়েছে অথবা অসত্য তথ্য যারা সরবরাহ করেছে তারা অপরাধী। তাদের বিচার করা ছাড়া বিকল্প নেই। অপরাধী কখনো পরিত্রাণ পেতে পারে না।

শ ম রেজাউল করিম আরো যোগ করেন, বাংলাদেশের যেখানে দৃষ্টি দেওয়া হবে, সেখানে শেখ হাসিনাকে অস্বীকার করার উপায় নেই। মেট্রোরেল, কর্ণফুলী নদীর তলদেশে টানেল, আট লেনের রাস্তা, দারিদ্র্য বিমোচন, দেশের সর্বোচ্চ রপ্তানি, বৈদেশিক মুদ্রার সর্বোচ্চ রিজার্ভ, করোনা মোকাবিলায় সাফল্যের দিকে থেকে বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় দেশের তালিকায় সবখানেই শেখ হাসিনাকে খুঁজে পাওয়া যায়।

পদ্মা সেতুর কারণে দেশের সবার উন্নয়ন হবে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, পদ্মা সেতুর কারণে রাষ্ট্র উপকৃত হবে। অর্থনীতির উন্নয়ন হবে, মানবিকতার উন্নয়ন হবে। দেশের দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের বেদনার্ত অধ্যায়ের পরিসমাপ্তি হবে। এ অঞ্চলের মানুষ রাজধানী ঢাকার সাথে সংযুক্ত হবে। তাদের দীর্ঘ বঞ্চনার অবসান হবে। পদ্মা সেতুর মাধ্যমে যে যোগসূত্র তৈরি হলো তা শুধু অর্থনীতিতেই নয় আমাদের রাজনীতিতে, সামাজিকতায় ও আত্মিকতায় মেলবন্ধন সৃষ্টি করবে।

সম্প্রীতি বাংলাদেশের আহ্বায়ক পীযূষ বন্দ্যোপাধ্যয়ের সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব অধ্যাপক ডা. মামুন আল মাহতাব স্বপ্নীলের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য প্রদান করেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ ও নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কামরুল হাসান খান, নিরাপত্তা ও রাজনৈতিক বিশ্লেষক মেজর জেনারেল মোহাম্মদ আলী শিকদার (অব.), চাঁদপুর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মো. নাছিম আখতার, রাজনৈতিক বিশ্লেষক সুভাষ সিংহ রায়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক নিজামূল হক ভূঁইয়া এ সময় আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন।

#

ইফতেখার/পাশা/সঞ্জীব/মাহমুদ/রেজাউল/২০২২/১৭৪৬ ঘণ্টা

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                       নম্বর : ২৬৩৬

 

প্রাথমিকের শিক্ষকদের অনলাইনে বদলির কার্যক্রম উদ্বোধন

 

কালিয়াকৈর (গাজীপুর), ১৫ আষাঢ় (২৯ জুন) :  

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের বহুল প্রতীক্ষিত অনলাইনে বদলির (পাইলটিং) কার্যক্রম আজ গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলা থেকে শুরু হয়েছে।

মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক এবং প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মোঃ জাকির হোসেন আনুষ্ঠানিকভাবে এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব আমিনুল ইসলাম খান, প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মহিবুর রহমান, অধিদপ্তরের পরিচালক বদিয়ার রহমান, গাজীপুর জেলা প্রশাসক আনিছুর রহমান প্রমুখ।

এ উপলক্ষ্যে কালিয়াকৈর উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেন, অনলাইনে এ বদলির কার্যক্রম শিক্ষকদের শান্তি ও স্বস্তি দেবে, তারা একাগ্রচিত্তে শ্রেণিকক্ষে পাঠদানে মনোনিবেশ করতে পারবে। তিনি আক্ষেপ করে বলেন, বর্তমান সরকার প্রাথমিক শিক্ষার উন্নয়নে সর্বোচ্চ প্রয়াস নেবার পরও শিশুরা প্রাথমিক বিদ্যালয় ছেড়ে কেজি স্কুলে ভর্তি হচ্ছে, যা অত্যন্ত দুঃখজনক। তিনি এ অবস্থার পরিবর্তনে প্রাথমিক শিক্ষার মান বৃদ্ধির ওপর গুরুত্বারোপ করেন।

বিশেষ অতিথির বক্তৃতায় প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী বলেন, প্রাথমিক শিক্ষকদের হাতে আগামীর বাংলাদেশ, এ বাংলাদেশ যাতে মেধা ও জ্ঞাননির্ভর হয়ে গড়ে ওঠে সে জন্য সবাইকে সচেষ্ট হতে হবে। তিনি বলেন, চলমান ৪৫ হাজার সহকারী শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া দ্রুততম সময়ের মধ্যে সম্পন্ন করে আরো ৩০ হাজার শিক্ষক নিয়োগের প্রক্রিয়া শুরু করবে মন্ত্রণালয়।

সিনিয়র সচিব আমিনুল ইসলাম খান তাঁর বক্তৃতায় বলেন, অনলাইন বদলির কার্যক্রম শিক্ষকদের দিয়ে শুরু হলেও পরবর্তীতে অধিদপ্তরের অন্যান্য পর্যায়ের কর্মকর্তারাও এ প্রক্রিয়ায় চলে আসবেন। তিনি পাইলটিং এর কোন ক্রুটি-বিচ্যুতি পরিলক্ষিত হলে, তা নিয়ে বিরূপ সমালোচনা না করে সেটি কর্তৃপক্ষের নজরে আনার অনুরোধ জানান।

অনুষ্ঠানে অনলাইন বদলির জন্য তৈরিকৃত সফটওয়্যারের বিভিন্ন দিকসমূহ তুলে ধরেন অধিদপ্তরের আইটি বিভাগের কর্মকর্তারা। পরে সফটওয়্যারের মাধ্যমে কালিয়াকৈরে কর্মরত সহকারী শিক্ষক হাসান উদ্দিন ও ফাতেমা বেগম অনলাইনে বদলির আবেদন করেন। আগামী ১৫ জুলাই পর্যন্ত বদলির আবেদন করা যাবে।  

#

মাহবুবুর/পাশা/সঞ্জীব/রফিকুল/মাহমুদ/রেজাউল/২০২২/১৭৩০ ঘণ্টা

 

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                        নম্বর : ২৬৩৫

নির্মল রঞ্জন গুহের মৃত্যুতে মন্ত্রিপরিষদের সদস্যবৃন্দের শোক

ঢাকা, ১৫

2022-06-29-16-25-18ae9c08b8ea4a33801ba02a4984da6d.doc 2022-06-29-16-25-18ae9c08b8ea4a33801ba02a4984da6d.doc

Share with :

Facebook Facebook