তথ্য অধিদফতর (পিআইডি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১

তথ্যবিবরণী ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১

তথ্যবিবরণী                                                                                                নম্বর :  ৪৪৩৮

 

সারাদেশে সিএনজি স্টেশনে আগামী রোববার থেকে

সন্ধ্যা ৬টা হতে রাত ১০টা পর্যন্ত গ্যাস সরবরাহ বন্ধ

নিয়মিত মনিটর করবে ভিজিল্যান্স টিম

 

 ঢাকা, ১ আশ্বিন (১৬ সেপ্টেম্বর) :

 

          সরকার সারাদেশে সকল সিএনজি স্টেশনে প্রতিদিন বিদ্যুৎ উৎপাদনের পিক-আওয়ার অর্থাৎ সন্ধ্যা ৬টা হতে রাত ১০টা পর্যন্ত গ্যাস সরবরাহ বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে। সরকারি সিদ্ধান্ত মোতাবেক, আগামী ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২১ তারিখ রোববার হতে সারাদেশে সিএনজি স্টেশনসমূহকে উল্লিখিত সময়সূচি অনুযায়ী বন্ধ রাখার জন্য অনুরোধ করা যাচ্ছে।

 

          এ সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে গ্যাস বিতরণ কোম্পানির ভিজিল্যান্স টিম নিয়মিত মনিটর করবে। সিদ্ধান্ত অমান্যকারী সংশ্লিষ্ট সিএনজি স্টেশন-এর বিরুদ্ধে বাংলাদেশ গ্যাস আইন, ২০১০ অনুযায়ী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 

          জনসাধারণের এ সাময়িক অসুবিধার জন্য কর্তৃপক্ষ আন্তরিকভাবে দুঃখ প্রকাশ করছে।

 

#

 

তারিক/সাহেলা/সেলিম/২০২১/২১.৩০ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                নম্বর :  ৪৪৩৭

 

বাংলাদেশের মাটিতেই বিশ্বমানের রোবট তৈরি হবে

                                     -- আইসিটি প্রতিমন্ত্রী

 

ঢাকা, ১ আশ্বিন (১৬ সেপ্টেম্বর) :

 

          তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্‌মেদ পলক বলেছেন, বাংলাদেশের মাটিতেই বিশ্বমানের রোবট তৈরির মাধ্যমে রোবটিক্স ইন্ড্রাস্টি হতে লাখ লাখ তরুণ-তরুণীর কর্মসংস্থান হবে। তিনি বলেন, বাংলাদেশে রোবট ম্যানুফেচারিং এবং ডিজাইন হবে। বাংলাদেশের ছেলেমেয়েরা রোবট প্রোগ্রামিং পরিচালনা করে সারা বিশ্বে জ্ঞানভিত্তিক সেবা সরবরাহ করবে। ফলে বিলিয়ন বিলিয়ন ডলার আয় হবে এবং নতুন কর্মসংস্থানের সৃষ্টি হবে। তিনি আরো বলেন, এই নতুনকে ভয় না পেয়ে জয় করে বাংলাদেশকে বিশ্বের বুকে জ্ঞানভিত্তিক প্রযুক্তি নির্ভর ডিজিটাল বাংলাদেশ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে হবে।

 

          আজ ভার্চুয়াল প্ল্যাটফর্মে ‘৪র্থ বাংলাদেশ রোবট অলিম্পিয়াড ২০২১’ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

 

          প্রযুক্তির ভাষা হচ্ছে প্রোগ্ৰামিং উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, নতুন প্রজন্মকে আবশ্যিকভাবে প্রোগ্রামিং শিখতে হবে। তিনি বলেন, বিশ্লেষণী ও উদ্ভাবনী মেধা ছাড়া আগামী পৃথিবীতে ভালো করা যাবে না। প্রোগ্রামিং শিখে কোডিং করে চালক বিহীন গাড়ি চালানো হচ্ছে। ভবিষ্যতের জন্য সন্তানকে প্রস্তুত করার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, মাতৃভাষার মতোই কম্পিউটারের ভাষা কোডিং জানতে হবে। তিনি আরো বলেন, আগামী ২০২২ সাল থেকে প্রাথমিকে কোডিং শিক্ষা চালু করা হবে।

 

          সমগ্র ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন বাংলাদেশ রোবট অলিম্পিয়াডের সভাপতি এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রোবটিক্স এন্ড মেকাট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক ড. লাফিফা জামাল। এছাড়া শুভেচ্ছা বক্তব্য প্রদান করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রোবটিক্স এন্ড মেকাট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের চেয়ারম্যান ড. শামীম আহমেদ দেওয়ান।

 

#

 

শহিদুল/সাহেলা/সেলিম/২০২১/২১.৩০ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                                নম্বর : ৪৪৩৬

কফি ও কাজুবাদামের চারা বিতরণ উদ্বোধন করলেন কৃষিমন্ত্রী

মধুপুর (টাঙ্গাইল), ১ আশ্বিন (১৬ সেপ্টেম্বর) :

          কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক আজ টাঙ্গাইলের মধুপুর উপজেলার বেরিবাইদ ইউনিয়নের মাগন্তীনগর গ্রামে কৃষকদের মাঝে কফির চারা বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন। বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট (বারি) এ অনুষ্ঠান আয়োজন করে।

          এ সময় কৃষিমন্ত্রী বলেন, দেশের পাহাড়ি অঞ্চল, বরেন্দ্র ও মধুপুর ভাওয়াল অঞ্চলের অনেক জায়গায় কাজুবাদাম ও কফি চাষের ব্যাপক সম্ভাবনা রয়েছে। এ সম্ভাবনাকে পুরোপুরি কাজে লাগাতে আমরা কাজ করছি।  সারাদেশের যেসব অঞ্চলে কাজুবাদাম এবং কফির চাষাবাদের প্রচুর সম্ভাবনা রয়েছে; তা চাষের  আওতায় আনতে ‘কাজুবাদাম ও কফি গবেষণা, উন্নয়ন ও সম্প্রসারণ ’শীর্ষক ২১১ কোটি টাকার প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে।

          উল্লেখ্য, কাজু বাদাম ও কফি গবেষণা, উন্নয়ন ও সম্প্রসারণ প্রকল্প (বারি অংগ) এর উদ্যোগে এই অঞ্চলে ৫ জন কৃষকের ৫০ শতাংশ জমিতে কফি ও কাজুবাদামের চারা রোপণ করা হচ্ছে।

          কৃষিমন্ত্রী একজন কৃষকের জমিতে কফি রোবাস্টা ও কফি অ্যারাবিকা এই দুই জাতের দুইটি কফির চারা রোপণ করে এই প্রকল্পের মাধ্যমে কফি ও কাজুবাদাম চাষ সম্প্রসারণ কার্যক্রমের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন।

          বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক ড. মো. নাজিরুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ পরমাণু কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক ড. মির্জা মোফাজ্জল ইসলাম, বারি'র পরিচালক (পরিকল্পনা ও মূল্যায়ন) ড. রিনা রানী সাহা, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর টাঙ্গাইলের উপপরিচালক  আহসানুল বাশার, কাজু বাদাম ও কফি গবেষণা, উন্নয়ন ও সম্প্রসারণ প্রকল্প (বারি অংগ) এর প্রকল্প পরিচালক ড. মো. আলতাফ হোসেন প্রমুখ।

#

কামরুল/সাহেলা/রফিকুল/জয়নুল/২০২১/২১১০ঘণ্টা 

তথ্যবিবরণী                                                                                                                নম্বর : ৪৪৩৫

রাষ্ট্রপতির কাছে জুডিশিয়াল সার্ভিস কমিশনের বার্ষিক প্রতিবেদন পেশ

ঢাকা, ১ আশ্বিন (১৬ সেপ্টেম্বর) :

          জুডিশিয়াল সার্ভিস কমিশনের চেয়ারম্যান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী আজ বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদের কাছে কমিশনের বার্ষিক প্রতিবেদন- ২০২০ পেশ করেন। এ সময় কমিশনের সদস্য বিচারপতি মোঃ নজরুল ইসলাম তালুকদার, বিচারপতি সহিদুল করিম, অ্যাটর্নি জেনারেল আবু মোহাম্মদ আমিন উদ্দিন এবং আইন ও বিচার বিভাগের সচিব মোঃ গোলাম সারওয়ার উপস্থিত ছিলেন।

          সাক্ষাৎকালে রাষ্ট্রপতি বিচারক নিয়োগের পাশাপাশি বিচারকরা যাতে তথ্যপ্রযুক্তিতে দক্ষতা অর্জন করতে পারে সে ব্যাপারে পদক্ষেপ নিতে জুডিশিয়াল সার্ভিস কমিশনকে নির্দেশনা দেন। রাষ্ট্রপতি বলেন, ইতোমধ্যে বিচার কার্যক্রম ভার্চুয়াল পদ্ধতিতে চালু হলেও পরিস্থিতি বিবেচনায় এর ব্যাপ্তি ও পরিধি বাড়ানো প্রয়োজন। এসময় বিচারকদের পেশাগত দক্ষতা বৃদ্ধিতে উন্নত প্রশিক্ষণের ওপর জোর দেন রাষ্ট্রপতি।

          জুডিশিয়াল সার্ভিস কমিশনের চেয়ারম্যান কমিশনের সার্বিক কার্যক্রম এবং বার্ষিক প্রতিবেদনের বিভিন্ন দিক সম্পর্কে রাষ্ট্রপতিকে অবহিত করেন।

          রাষ্ট্রপতির কার্যালয়ের সচিব সম্পদ বড়ুয়া, সামরিক সচিব মেজর জেনারেল এসএম সালাহ উদ্দিন ইসলাম, প্রেস সচিব মোঃ জয়নাল আবেদীন এবং সচিব (সংযুক্ত) ওয়াহিদুল ইসলাম খান এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

#

ইমরানুল/সাহেলা/রফিকুল/জয়নুল/২০২১/২০৩৫ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                               নম্বর :  ৪৪৩৪

তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রীর সভাপতিত্বে মিডিয়া, প্রচার ও ডকুমেন্টেশন উপকমিটির সভা অনুষ্ঠিত

ঢাকা, ১ আশ্বিন (১৬ সেপ্টেম্বর) :

          জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদ্‌যাপনের লক্ষ্যে গঠিত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদ্‌যাপন জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটির মিডিয়া, প্রচার ও ডকুমেন্টেশন উপকমিটির ৮ম সভা আজ জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটির কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে। উপকমিটির সদস্য সচিব তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ মকবুল হোসেনের সঞ্চালনায় সভায় সভাপতিত্ব করেন তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহ্‌মুদ। স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটির প্রধান সমন্বয়ক ড. কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী।

          হাজার বছরের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ধাপে ধাপে গণআন্দোলনের মাধ্যমে স্বাধীন জাতিরাষ্ট্র বাংলাদেশের জন্ম দিলেও বঙ্গবন্ধুকে মহান নেতা হিসেবে গড়ে তুলতে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন নেছার অবদান অনস্বীকার্য, এ কথা জানিয়ে মন্ত্রী ড. হাছান মাহ্‌মুদ তাঁর মন্ত্রণালয় থেকে বঙ্গমাতার জীবন ও কর্মভিত্তিক তথ্যচিত্র নির্মাণের উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে বলে সিদ্ধান্ত দেন। এছাড়া জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর সাথে ঘনিষ্ঠভাবে সম্পৃক্ত ছিলেন, এমন নানা পর্যায়ের ব্যক্তিত্ত্বদের সাক্ষাৎকার গ্রহণ করে বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে নানা তথ্য সংগ্রহের উদ্যোগ নেওয়া হবে বলেও তিনি সভাকে অবহিত করেন।

          প্রধান সমন্বয়ক ড. কামাল আব্দুল নাসের চৌধুরী তাঁর বক্তব্যে বিদ্যমান কোভিড-১৯ জনিত পরিস্থিতিতে প্রধানমন্ত্রীর দিকনির্দেশনা অনুযায়ী জনসমাগম পরিহার করে মুজিববর্ষের কর্মসূচি বাস্তবায়ন করা হচ্ছে জানিয়ে আগামী ১৬ই ডিসেম্বর পর্যন্ত মুজিববর্ষের আয়োজনকে আরো বিস্তৃত করা হবে বলে জানান।

 

          জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদ্‌যাপনের লক্ষ্যে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন মিডিয়া, প্রচার ও ডকুমেন্টেশন উপকমিটির বাস্তবায়িত নানা কর্মসূচি নিয়ে সভায় বিস্তারিত আলোচনা হয়।

 

          সভায় উপস্থিত ছিলেন আইসিটি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম, তথ্য কমিশনার আবদুল মালেক, বাংলাদেশ টেলিভিশনের মহাপরিচালক সোহরাব হোসেন, বাংলাদেশ বেতারের মহাপরিচালক আহম্মদ কামরুজ্জামান, গণযোগাযোগ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক বিধান চন্দ্র কর্মকার, বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থার ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবুল কালাম আজাদ, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের উপপ্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম, বিশিষ্ট কবি তারিক সুজাত, ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন এর সাবেক সভাপতি ইকবাল সোবহান চৌধুরী, দৈনিক আমাদের নতুন সময় এর সম্পাদক নাইমুল ইসলাম খান, ভোরের কাগজ এর সম্পাদক শ্যামল দত্ত, সাংবাদিক মঞ্জুরুল আহসান বুলবুল, জাতীয় প্রেস ক্লাব এর সভাপতি ফরিদা ইয়াসমিন, জাতীয় প্রেস ক্লাব এর সাবেক সভাপতি সাইফুল আলম, এটিএন বাংলা’র প্রধান বার্তা সম্পাদক জ ই মামুন, সাংবাদিক শাহেদ চৌধুরী, ৭১ টিভির সাংবাদিক ফারজানা রুপা, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জন কূটনীতি অনুবিভাগের পরিচালক প্রনব কুমার ভট্টাচার্য্য এবং জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটির কার্যালয়ের কর্মকর্তাবৃন্দ।

#

 

নাসরীন/সাহেলা/রফিকুল/সেলিম/২০২১/১৯.৩০ ঘণ্টা
তথ্যবিবরণী                                                                                                               নম্বর : ৪৪৩৩

জলবায়ু বান্ধব এয়ারকুলার রপ্তানিতে সহায়তা করছে সরকার

                                                                           -- পরিবেশমন্ত্রী

ঢাকা, ১ আশ্বিন (১৬ সেপ্টেম্বর) :

          পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী মোঃ শাহাব উদ্দিন বলেছেন, ওজোনস্তর সুরক্ষায় বাংলাদেশে চালু হওয়া হাইড্রোক্লোরোফ্লোরোকার্বন ফেজ আউট ম্যানেজমেন্ট প্ল্যান স্টেজ-২ এ জলবায়ু বান্ধব বিকল্প প্রযুক্তিকে উৎসাহিত করা হয়েছে। উক্ত স্টেজ-২ প্রকল্পটি বাস্তবায়নের মাধ্যমে বাংলাদেশে উৎপাদিত এয়ারকুলার বিদেশে রপ্তানির দ্বার উন্মুক্ত হবে। এলক্ষ্যে সরকার রেফ্রিজারেশন ও এয়ারকন্ডিশনিং পণ্য উৎপাদকদের জন্য ট্যাক্স ও ভ্যাট প্রদানের ক্ষেত্রে বিশেষ সুযোগ প্রদান করছে। সরকার রপ্তানি উন্নয়নের লক্ষ্যে তৈরি পোশাক শিল্পের পর অন্যতম সেক্টর হিসেবে রেফ্রিজারেশনকে এগিয়ে নিচ্ছে। মন্ত্রী বলেন, রূপান্তরিত এসিগুলো বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী হলে দেশীয় চাহিদা পূরণের পাশাপাশি রপ্তানির সুযোগ বৃদ্ধি পাবে।

          আজ ‘মন্ট্রিল প্রটোকল মেনে ওজোনস্তর রক্ষা করি, নিরাপদ খাদ্য ও প্রতিষেধকের শীতল বিশ্ব গড়ি’ প্রতিপাদ্যে বিশ্ব ওজোন দিবস ২০২১ উদ্যাপন উপলক্ষ্যে পরিবেশ অধিদপ্তরে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

          মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ ওজোনস্তর রক্ষায় গৃহীত ভিয়েনা কনভেনশন এবং মন্ট্রিল প্রটোকলের সফলতার এক গর্বিত অংশীদার। বর্তমান করোনা মোকাবিলায় খাদ্য ও ভ্যাকসিন সংরক্ষণে রেফ্রিজারেশন পদ্ধতি যুগোপযোগী ও পরিবেশবান্ধব করার ক্ষেত্রে মন্ট্রিল প্রটোকলের ভূমিকা প্রশংসনীয়। বাংলাদেশ মন্ট্রিল প্রটোকল বাস্তবায়নের সকল ধাপ যথাসময়ে সঠিকভাবে অতিক্রম করেছে এবং প্রটোকলের বাধ্যবাধকতা প্রতিপালন করছে। হাইড্রোক্লোরোফ্লোরোকার্বন এর ওজোনস্তর ক্ষয়ের সক্ষমতা অত্যন্ত কম হলেও এর বৈশ্বিক উষ্ণতা সৃষ্টির ক্ষমতা অত্যন্ত বেশি। তাই বর্তমানে এয়ারকন্ডিশনার, অগ্নি নির্বাপন ও ফোম সেক্টরে ব্যবহৃত এইচসিএফসি ফেজ আউট করার কাজ চলছে।

          মন্ত্রী আশা প্রকাশ করে বলেন, ২০১৬ সালে কিগালি সংশোধনীর মাধ্যমে শুধু ওজোনস্তর রক্ষাকল্পেই নয়, জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায়ও মন্ট্রিল প্রটোকল একইভাবে সাফল্য লাভ করবে। তিনি বলেন, মন্ট্রিল প্রটোকল অত্যন্ত সফলভাবে বাস্তবায়নের স্বীকৃতিস্বরূপ ২০১২ এবং ২০১৭ সালে জাতিসংঘ পরিবেশ কর্তৃক বাংলাদেশ প্রশংসিত ও পুরস্কৃত হয়েছে। এছাড়া ওজোনস্তর ক্ষয়কারী দ্রব্যের অবৈধ অনুপ্রবেশ ও আমদানি নিয়ন্ত্রণের ক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ ওয়ার্ল্ড কাস্টমস অর্গানাইজেশন, জাতিসংঘ পরিবেশ এবং ওজোন সেক্রেটারিয়েট ২০১৯ সালে পরিবেশ অধিদপ্তরকে পুরস্কৃত করে।  মন্ত্রী ওজোনস্তর রক্ষায়ও মন্ট্রিল প্রটোকলের আওতায় গৃহীত অবশিষ্ট কর্মসূচি বাস্তবায়নে ইউএনডিপি-সহ সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।

          অনুষ্ঠানে ইনোভেশন পুরস্কার ২০২০, জাতীয় শুদ্ধাচার পুরস্কার ২০২০ এবং পরিবেশ অলিম্পিয়াড পুরস্কার ২০২১ প্রদান করেন মন্ত্রী।

#

দীপংকর/সাহেলা/রফিকুল/জয়নুল/২০২১/২০৩০ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                               নম্বর : ৪৪৩২

শ্রমিক কল্যাণ তহবিলে লভ্যাংশের ১৩ কোটি টাকার চেক হস্তান্তর

ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকো এবং নেসলের

ঢাকা, ১ আশ্বিন (১৬ সেপ্টেম্বর) :

          শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের অধীন বাংলাদেশ শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশন তহবিলে লভ্যাংশের নির্দিষ্ট অংশ প্রায় ১৩ কোটি টাকা জমা দিয়েছে ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকো এবং নেসলে বাংলাদেশ লিমিটেড।

          আজ সচিবালয়ে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. এহছানে এলাহীর হাতে কোম্পানি দু’টির প্রতিনিধিগণ নিজ নিজ কোম্পানির পক্ষে গত এক বছরের কোম্পানির লভ্যাংশের চেক হস্তান্তর করেন।

          ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকোর মানবসম্পদ বিভাগের প্রধান সাদ জসিমের নেতৃত্বে চার সদস্যের প্রতিনিধিদল ১১ কোটি ১০ লাখ ১ হাজার ৫৭৫ টাকার চেক এবং নেসলে বাংলাদেশের ফাইনান্স অ্যান্ড কন্ট্রোল ডিরেক্টর নমিত মিত্রের নেতৃত্বে চার সদস্যের প্রতিনিধিদল কোম্পানির গত অর্থবছরের লভ্যাংশের ১ কোটি ৮৮ লাখ ৭৯ হাজার ৮১০ টাকার একটি চেক সচিবের নিকট হস্তান্তর করেন।

          বাংলাদেশ শ্রম আইন অনুযায়ী দেশি-বিদেশি প্রতিষ্ঠানের বছর শেষে মোট লাভের পাঁচ ভাগের এক দশমাংশ শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশন তহবিলে জমা দেওয়ার বিধান রয়েছে। এ তহবিল থেকে প্রাতিষ্ঠানিক-অপ্রাতিষ্ঠানিক খাতের শ্রমিকদের সহায়তা করা হয়। আজ পর্যন্ত এ তহবিলে প্রায় ৬শ’ কোটি টাকার বেশি জমা হয়েছে।

#

আকতারুল/সাহেলা/রফিকুল/জয়নুল/২০২১/২০১০ঘণ্টা 

তথ্যবিবরণী                                                                                                নম্বর :  ৪৪৩১

 

কোভিড-১৯ সংক্রান্ত সর্বশেষ প্রতিবেদন

 

ঢাকা, ১ আশ্বিন (১৬ সেপ্টেম্বর) :

 

            স্বাস্থ্য অধিদপ্তর এবং রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর)-এর তথ্যানুযায়ী গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ৩১ হাজার ১৪৯ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ১ হাজার ৮৬২ জনের শরীরে করোনা সংক্রমণ পাওয়া গেছে। এ নিয়ে বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ১৫ লাখ
৩৮ হাজার ২০৩ জন। 

 

          গত ২৪ ঘণ্টায় ৫১ জন-সহ এ পর্যন্ত ২৭ হাজার ১০৯ জন এ রোগে মৃত্যুবরণ করেছেন।

 

          করোনা ভাইরাস আক্রান্তদের মধ্যে এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ১৪ লাখ ৯৪ হাজার ৯০ জন।

 

#

ফেরদৌস/সাহেলা/রফিকুল/সেলিম/২০২১/১৯.০০ ঘণ্টা

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                 নম্বর :  ৪৪৩০ 

 

ডিইউজে'র বার্ষিক সভায় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী

গণমাধ্যমে শৃঙ্খলা আনার দাবি সাংবাদিকদেরই

ঢাকা, ১ আশ্বিন (১৬ সেপ্টেম্বর) :

          সাংবাদিকরাই গণমাধ্যমের নানা বিশৃঙ্খলা দূর করে শৃঙ্খলা আনার দাবি জানিয়েছেন উল্লেখ করে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহ্‌মুদ বলেছেন, আমি সাংবাদিকদের একজন হয়ে সেই চোখ দিয়ে বিষয়গুলো দেখার এবং সাংবাদিকদের সাথে আলাপ আলোচনা করে বিশৃঙ্খলা দূর করার চেষ্টা করি। অনেক ক্ষেত্রে শৃঙ্খলা এসেছে এবং এ প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে।

 

          আজ রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবে ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের (ডিইউজে) বার্ষিক সাধারণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় মন্ত্রী একথা বলেন। ডিইউজে সভাপতি কুদ্দুস আফ্রাদের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন (বিএফইউজে) মোল্লা জালাল ও জাতীয় প্রেসক্লাব সভাপতি ফরিদা ইয়াসমিন বক্তব্য রাখেন এবং ডিইউজে’র সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ আলম খান তপু বার্ষিক প্রতিবেদন পেশ করেন। বিএফইউজে’র সাবেক সভাপতি মঞ্জুরুল আহসান বুলবুল সভাটি পরিচালনা করেন।

 

          ড. হাছান মাহ্‌মুদ বলেন, বেসরকারি টিভি চ্যানেলগুলোর ক্রম নিয়ে একটা বিশৃঙ্খলা ছিল, কেবল অপারেটরদের কাছে টেলিভিশন চ্যানেলগুলোকে ধর্ণা দিতে হতো। এখন সম্প্রচার শুরুর তারিখ অনুযায়ী চ্যানেলগুলো দেখানো হয়। ১ অক্টোবর থেকে বিদেশি চ্যানেলগুলো যাতে অনুমতি ছাড়া কোনো বিজ্ঞাপন দেখাতে না পারে সেজন্য আমরা দেশে প্রচলিত আইন কার্যকর করতে যাচ্ছি। আমি সেটি ভারতের তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রীকেও অবহিত করেছি। কারণ ভারতের প্রচুর চ্যানেল এখানে প্রদর্শিত হয়, যেগুলোর মাধ্যমে বিজ্ঞাপন দেখানো হয়, যেটি আইন বহির্ভূত। আইপি টিভি’র ক্ষেত্রেও শৃঙ্খলা আনার চেষ্টা করছি, রেজিস্ট্রেশন দেয়ার কাজ খুব সহসা শুরু হবে।

 

          সংবাদপত্র প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, সেখানেও নানা অনিয়ম বিশৃঙ্খলা আছে। ডিএফপিতে পত্রিকার যে প্রচার সংখ্যা, সেটি যুগ যুগ ধরে একটি অবাস্তব সংখ্যা। অনেক সেটিকে ভৌতিক প্রচার সংখ্যা বলেন। পত্রিকা বের হয় তিন হাজার কিন্তু প্রচার সংখ্যা এক লাখ, পত্রিকা বের হয় পাঁচ হাজার প্রচার সংখ্যা দুই লাখ। আমরা সেখানেও একটি শৃঙ্খলা আনবো। চারশ’ পত্রিকা গত দুইবছরে একটি সংখ্যাও ডিএফপিতে জমা দেয়নি।

 

          মন্ত্রী জানান, ‘ইতোমধ্যেই ১২০টির মতো পত্রিকার ডিক্লারেশন বাতিল করা হয়েছে, কারণ এই পত্রিকাগুলো বের হয় না। কিন্তু বিজ্ঞাপন পাওয়ার জন্য মন্ত্রণালয়ে দৌড়াদৌড়ি করে যেদিন বিজ্ঞাপন পায়, সেদিন ছাপায়। আর এতে করে যে পত্রিকাগুলো সত্যিকারের অর্থে প্রকাশিত হয় তারা বিজ্ঞাপন বঞ্চিত হয়। বিজ্ঞাপন বঞ্চিত হওয়ার কারণে সেই পত্রিকার সাংবাদিকরা বেতন থেকে বঞ্চিত হয়। সাংবাদিকরা দাবি জানিয়েছেন সেখানে শৃঙ্খলা আনার জন্য, সেই দাবি আমাকে সাহস জুগিয়েছে, আমি সেখানে শৃঙ্খলা আনবো।’

 

          ড. হাছান বলেন, ‘করোনাকালে বাংলাদেশ ছাড়া এই উপমহাদেশে কোথাও সাংবাদিকদের এককালীন সাহায্য দেয়া হয়নি। ২০২০ সালে যখন করোনা দেখা দিলো তখন সাংবাদিকদের এককালীন সহায়তা দেয়ার জন্য

 

চলমান পাতা/০২

 

--০২--

 

আমি প্রাণপণ চেষ্টা করেছি কিন্তু অর্থ মন্ত্রণালয় থেকে কোনো বরাদ্দ না পেয়ে আমাদের মন্ত্রণালয়ের অব্যবহৃত অর্থ সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্টে বরাদ্দ দিয়ে এককালীন ১০ হাজার টাকা করে প্রায় সাড়ে ৩ হাজার সাংবাদিককে করোনাকালীন সহায়তা দেয়া হয়েছে। এরপর ২০২১ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সব জেনে ১০ কোটি টাকা সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্টে অনুদান দিয়েছেন। এই সাহায্য চলমান রয়েছে।’

 

          এই কল্যাণ ট্রাস্ট প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুকন্যা স্থাপন করেছেন এবং এখন শুধু সাংবাদিক নয়, তার পরিবারের সদস্যদেরও  চিকিৎসা কিংবা লেখাপড়ার ক্ষেত্রে সহায়তার জন্য নীতিমালার খসড়া হয়েছে যা চূড়ান্ত হলে সাংবাদিকদের পরিবারও উপকৃত হবে, জানান মন্ত্রী।

 

          সাংবাদিক নেতৃবৃন্দের ব্যাংক হিসাব চেয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের ফিন্যানসিয়াল ইন্টিলিজেন্স ইউনিট থেকে চিঠি দেয়া হয়েছে, আমিও পত্রিকা দেখে খোঁজ খবর নেয়ার চেষ্টা করেছি, বলেন ড. হাছান।  তিনি বলেন, ‘সরকার অবশ্যই যেকোনো কারণে হিসাব তলব করতে পারে, ব্যাংক হিসাবও তলব করতে পারে। তবে আমি মনে করি এতে উদ্বেগের কোনো কারণ নাই। যাদের ব্যাংক হিসাব তলব করা হয়েছে তাদের আমি চিনি ও জানি। তাদের অনেকের আর্থিক অবস্থাও আমি জ্ঞাত।’

 

          এসময় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন সম্পর্কে ড. হাছান মাহ্‌মুদ বলেন, এটি দেশের সকল মানুষের ডিজিটাল নিরাপত্তা দেয়ার জন্য। আমাদের প্রতিবেশি দেশগুলোসহ বিশ্বব্যাপী এ ধরণের আইন আছে, আরো কঠিন আইন আছে। একজন সাংবাদিকের বা একজন গৃহিণীর বা যে কারোর চরিত্র ডিজিটাল মাধ্যমে হনন করা হলে তিনি এই আইনে প্রতিকার পাবেন। সেজন্যই ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন প্রয়োজন। একইসাথে এই আইন যেন সাংবাদিকদের দায়িত্ব পালনে প্রতিবন্ধক না হয়, সেটি দেখতে হবে।

 

          মন্ত্রী বলেন, গণমাধ্যমের স্বাধীনতার প্রয়োজন আছে, তবে লক্ষ্য রাখতে হবে আমার স্বাধীনতা যেন অপরের স্বাধীনতা ক্ষুণ্ন না করে। তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশে গণমাধ্যমের যে স্বাধীনতা আছে, অনেক উন্নয়নশীল দেশেও এরকম স্বাধীনতা নেই। দুর্নীতি ও অনাচার প্রতিরোধে, সমাজে শৃঙ্খলা আনতে, সমাজের তৃতীয় নয়ন খুলে দেয়ার জন্য, অবহেলিত ব্যক্তির প্রতি সমাজ, রাষ্ট্র, সরকারের দৃষ্টিপাতের জন্য অনুসন্ধানী সাংবাদিকতার প্রয়োজন আছে। কিন্তু সংবাদপত্র, টেলিভিশন বা অনলাইনে প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ এখনও সমগুরুত্বে প্রকাশ হয় না।’

 

          বিশেষ অতিথি নৌ পরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী তার বক্তৃতায় ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের বার্ষিক সাধারণ সভার সাফল্য কামনা করেন এবং বলেন, সাংবাদিকতার মহান পেশায় নিয়োজিতদের দেশ ও জাতির প্রতি গভীর দায়িত্ব ও কর্তব্য রয়েছে।

#

আকরাম/সাহেলা/রফিকুল/সেলিম/২০২১/১৮০০ ঘণ্টা

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                 নম্বর :  ৪৪২৯

 

মুজিববর্ষ উপলক্ষ্যে 'স্মৃতিতে সতত উজ্জ্বল বঙ্গবন্ধু' বইয়ের মোড়ক উন্মোচন

 

ঢাকা, ১ আশ্বিন (১৬ সেপ্টেম্বর) :

 

          মুজিববর্ষ উপলক্ষ্যে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে 'স্মৃতিতে সতত উজ্জ্বল বঙ্গবন্ধু' বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করা হয়েছে।

 

          মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক  মন্ত্রী  আ ক ম মোজাম্মেল হক আজ ঢাকায় মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে  প্রধান অতিথি হিসেবে মোড়ক উম্মোচন করেন।

 

          এতে বঙ্গবন্ধুর সংস্পর্শে থাকা 'লাল মুক্তিবার্তা স্মরণীয় যাঁরা বরণীয় যাঁরা'  তালিকায় অন্তর্ভুক্ত ২৩ জন বীর মুক্তিযোদ্ধার স্মৃতিচারণমূলক লেখা অন্তর্ভুক্ত  হয়েছে। এ সময় মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব খাজা মিয়াসহ মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ  উপস্থিত ছিলেন।

 

          এসময় মন্ত্রী  বলেন, ছোট একটি গ্রন্থের মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর বিশালতাকে তুলে ধরা কঠিন। বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে গবেষণা অব্যাহত রাখতে হবে। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু ছিলেন দক্ষ একজন রাষ্ট্রনায়ক। তাঁর সাড়ে তিন বছরের শাসনামল এর উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত। বঙ্গবন্ধু পৃথিবীতে একমাত্র নেতা যিনি তাঁর  জীবদ্দশায় একাধারে স্বাধীনতার স্বপ্ন দেখেছেন, স্বাধীনতা যুদ্ধে দেশের জনগণকে ঐক্যবদ্ধ করেছেন এবং স্বাধীনতা অর্জন করেছেন। বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে আজও হয়তো জাতি পরাধীন থাকতো।

 

          তিনি আরো বলেন, বঙ্গবন্ধু অল্প দিনেই বিশ্ব নেতায় পরিণত হয়েছিলেন। বঙ্গবন্ধু বিশ্ব সভায় দাঁড়িয়ে বলেছিলেন, বিশ্ব আজ দুই ভাগে বিভক্ত। একদিকে শোষক আর একদিকে শোষিত, আমি শোষিতের পক্ষে। বিশ্ব সভায় তিনি বাংলাদেশের নেতা হিসেবে কথা বলেননি, বিশ্বনেতা হিসেবে কথা বলেছেন।

 

          বঙ্গবন্ধু জীবিত থাকলে বাংলাদেশ অনেক আগেই উন্নত দেশে পরিণত হতো বলে মন্ত্রী উল্লেখ করেন।

 

#

 

মারুফ/সাহেলা/রফিকুল/সেলিম/২০২১/১৮২০ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                                নম্বর : ৪৪২৮

 

৬৫ স্টার্টআপ নিয়ে ‘বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্র্যান্ট ২০২১’ রিয়েলিটি শো শুরু

সেরা ২৬ স্টার্টআপ পাচ্ছে ২ কোটি ৬০ লাখ টাকা অনুদান

ঢাকা, ১ আশ্বিন (১৬ সেপ্টেম্বর) :

          জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীতে দেশি ও বিদেশি স্টার্টআপদের অংশগ্রহণের মাধ্যমে নতুন উদ্ভাবন বা উদ্ভাবনী স্টার্টআপ খুঁজে বের করতে আইসিটি বিভাগের আইডিয়া প্রকল্প আয়োজন করছে ‘বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্র্যান্ট ২০২১’।

          ৬৫ স্টার্টআপ নিয়ে ‘বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্র্যান্ট ২০২১’ রিয়েলিটি শো শুরু হয়েছে। এই রিয়েলিটি শো থেকে নির্বাচিত সেরা ২৬ টি স্টার্টআপকে ১০ লাখ টাকা করে ‘গ্র্যান্ট’ হিসেবে ২ কোটি ৬০ লাখ টাকা অনুদান দেয়া হবে। একই সাথে দেওয়া হবে ‘বিগ ২০২১’ এর ফাইনাল রাউন্ডের জন্য মনোনয়ন।

          বিগ ২০২১ এর আন্তর্জাতিক পর্যায় থেকে নির্বাচিত সেরা ১০টি স্টার্টআপকেও ১০ লাখ টাকা করে মোট ১ কোটি টাকার সমমানের ‘গ্র্যান্ট’ প্রদান করা হবে। এছাড়া আইডিয়া প্রকল্পের আওতাভুক্ত  স্টার্টআপদের থেকে সেরা আরো ১০টি স্টার্টআপ অর্থাৎ সবমিলিয়ে দেশি-বিদেশি মোট ৪৬টি স্টার্টআপকে নিয়ে হবে ‘বিগ ২০২১’ এর চূড়ান্ত নির্বাচন। সবশেষে ‘সেরাদের সেরা’ ১ টি বিজয়ী স্টার্টআপ অনুদান হিসেবে পাবে ১ লাখ ইউএস ডলার সমমূল্যের অর্থ পুরস্কার।

          উল্লেখ্য, ‘বিগ ২০২১’ এ প্রাথমিক পর্যায়ে বাংলাদেশসহ বিশ্বের ৫৭টি দেশ থেকে ৭ হাজারের অধিক উদ্যোক্তা, উদ্ভাবক ও স্টার্টআপ এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে।

          স্টার্টআপদের নিয়ে ১৩ পর্বের এই রিয়েলিটি শো প্রচারিত হচ্ছে প্রতি শুক্র ও শনিবার রাত ৮ টায় বেসরকারি টিভি চ্যানেল ‘ডিবিসি নিউজ’ এর পর্দায়। এছাড়া, অনুষ্ঠানটি উক্ত সময়ে অনলাইনে লাইভ দেখতে ভিজিট করতে হবে আইডিয়ার ফেইসবুক পেইজ https://www.facebook.com/LetsStartupBD অথবা ‘বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্র্যান্ট (ইওএ) ২০২১’ ফেইসবুক পেইজে https://www.facebook.com/ BangabandhuInnovationGrant. আইডিয়া প্রকল

2021-09-16-16-21-f8d59f0dd8aba407df500bfacb231b2f.doc 2021-09-16-16-21-f8d59f0dd8aba407df500bfacb231b2f.doc

Share with :

Facebook Facebook