তথ্য অধিদফতর (পিআইডি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৯ নভেম্বর ২০২১

তথ্যবিবরণী ৯ নভেম্বর ২০২১

তথ্যবিবরণী                                                                                                 নম্বর:  ৫৩৩৭

 

শ্রমিকদের সুরক্ষায় ১৮.৬৬ মিলিয়ন ডলার আর্থিক সহায়তা দিয়েছে সরকার

                                                                    -- শ্রম প্রতিমন্ত্রী

 

ঢাকা, ২৪ কার্তিক (৯ নভেম্বর):   

 

          শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান বলেছেন, শ্রমিকদের সামাজিক নিরাপত্তা বিবেচনায় সরকার শ্রম মন্ত্রণালয়ের অধীন কেন্দ্রীয় তহবিল এবং বাংলাদেশ শ্রমিক কল্যাণ তহবিল হতে শতভাগ রপ্তানিমুখী শিল্প এবং প্রাতিষ্ঠানিক-অপ্রাতিষ্ঠানিক খাতের সাড়ে ২১ হাজার শ্রমিক ও তাদের পরিবারের সদস্যদের ১৮.৬৬ মিলিয়ন মার্কিন ডলার আর্থিক সহায়তা দিয়েছে।

 

          প্রতিমন্ত্রী আজ ভার্চুয়াল প্ল্যাটফর্মে অনুষ্ঠিত আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থা (আইএলও) এর গভর্নিং বডির ৩৪৩তম সভায় শ্রমিকদের সামাজিক সুরক্ষা বিষয়ে তাঁর বক্তৃতায় এ কথা বলেন।

 

          প্রতিমন্ত্রী তাঁর বক্তৃতায় করোনা মহামারির শুরুতেই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় শ্রমিকদের বেতন পরিশোধের জন্য এক বিলিয়ন ডলার বরাদ্দ দেয়ার বিষয়টি উল্লেখ করে তিনি বলেন, সরকার একশো’র বেশি সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনী কর্মসূচি পরিচালনা করছে।

 

          শ্রম প্রতিমন্ত্রী বলেন, জাতীয় সামাজিক নিরাপত্তা কর্মপরিকল্পনা ২০১৬-২০২১ এর অধীনে সরকার বেকারত্ব, দুর্ঘটনা, অসুস্থতা এবং মাতৃত্ব বীমা প্রবর্তনের জন্য কাজ করছে। তিনি আইএলও এর গভর্নিং বডিতে পেশকৃত বাংলাদেশে শ্রমমানের অধিকতর উন্নয়নের লক্ষ্যে প্রণীত রোডম্যাপের আওতায় সামাজিক নিরাপত্তা এবং শ্রমিকদের জন্য ন্যূনতম মজুরির বিষয়ে সুনিদিষ্ট পদক্ষেপ নেয়ার কথা জানান।

 

          প্রতিমন্ত্রী বলেন, সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনীকে সরকার গুরুত্ব দিয়ে আসছে। বিশ্বব্যাপী বিভিন্ন চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় এ বিষয়টি অধিকতর গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে।

 

          শ্রম প্রতিমন্ত্রী সামাজিক নিরাপত্তা বিষয়ে আইএলও প্রস্তাবিত কর্ম-পরিকল্পনার প্রশংসা করে তিনটি বিষয়ের ওপর জোর দেন ১। আইএলও এর প্রস্তাবিত সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচিতে সহায়তা করার জন্য অংশীদারিত্ব শক্তিশালী করা বিশেষ করে সম্পদের সীমাবদ্ধতা রয়েছে এমন দেশগুলোতে। ২। কম খরচে সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচি প্রণয়ন করা বিশেষ করে অপ্রাতিষ্ঠানিক খাত এবং ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের শ্রমিকের জন্য এবং ৩। আইএলও এর প্রস্তাবিত কর্ম-পরিকল্পনাকে জাতীয় পর্যায়ে চলমান কার্যক্রমের সাথে সমন্ময় করতে হবে।

 

          এ সময় মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. এহছানে এলাহী, কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তরের মহাপরিদর্শক মো. নাসির উদ্দিন আহমেদ এবং যুগ্মসচিব মোঃ হুমায়ুন কবীর উপস্থিত ছিলেন। ১ নভেম্বর শুরু হওয়া ভার্চুয়াল প্ল্যাটফরমে আইএলও-এর গভর্নিং বডির এ সভা ১৩ নভেম্বর পর্যন্ত চলবে ।

#

আকতারুল/পাশা/নাইচ/রাহাত/এনায়েত/রফিকুল/সেলিম/২০২১/২০.০০ ঘণ্টা

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                                 নম্বর : ৫৩৩৬

 

শিল্প মন্ত্রণালয়ের উদ্ভাবন প্রদর্শনীতে বিসিক ওয়ানস্টপ সার্ভিসের প্রথম স্থান অর্জন

 

ঢাকা, ২৪ কার্তিক (৯ নভেম্বর) :

          শিল্প মন্ত্রণালয়ের ২০২০-২১ সালের বার্ষিক উদ্ভাবন কর্মপরিকল্পনার আলোকে মন্ত্রণালয় কর্তৃক আয়োজিত উদ্ভাবন প্রদর্শনী (শোকেসিং)-এ সার্বিক মূল্যায়নে বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প করপোরেশন (বিসিক) ওয়ানস্টপ সার্ভিস (ওএসএস) প্রথম স্থান করেছে।

          শিল্প মন্ত্রণালয় আয়োজিত উদ্ভাবন প্রদর্শনী (শোকেসিং)-এ মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন ১৩টি দপ্তর সংস্থা অংশগ্রহণ করে।

          উদ্ভাবন প্রদর্শনীতে বিসিক ওয়ানস্টপ সার্ভিসের (ওএসএস) প্রথম স্থান অর্জন করায় বিসিককে সনদপত্র প্রদান করেছে শিল্প মন্ত্রণালয়। শিল্প সচিব জাকিয়া সুলতানার হাত থেকে বিসিকের পক্ষে সনদপত্র গ্রহণ করেন বিসিক সচিব মোঃ মফিদুল ইসলাম। এ সময় পরিকল্পনা কমিশনের শিল্প ও শক্তি বিভাগের সদস্য (সচিব) শরিফা খান উপস্থিত ছিলেন।

          বিসিক চেয়ারম্যান মোঃ মোশতাক হাসান এনডিসি বলেন, দেশে পরিবেশবান্ধব শিল্পায়ন করে যাচ্ছে বিসিক। উদ্যোক্তাদের সবগুলো সেবা একই ছাতার নিচ থেকে প্রাপ্তি নিশ্চিত করতে বিসিক চালু করেছে ওয়ানস্টপ সার্ভিস।

          বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিডা), বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষ (বেজা), বাংলাদেশ রপ্তানি প্রক্রিয়াকরণ এলাকা কর্তৃপক্ষ (বেপজা), বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের পর পঞ্চম সংস্থা হিসেবে বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প করপোরেশন (বিসিক)-কে ওয়ানস্টপ সার্ভিস আইনে অর্ন্তভুক্ত করে গত ১৯ জুলাই প্রজ্ঞাপন জারি করে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়। এর ফলে গত ১৩ জুন ওয়ানস্টপ সার্ভিস চালু করে বিসিক।

#

 

বারিক/পাশা/নাইচ/রাহাত/এনায়েত/রফিকুল/জয়নুল/২০২১/২০৫০ঘণ্টা

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                 নম্বর:  ৫৩৩৫

 

কেউই আইনের উর্ধ্বে নয়

            -- আইনমন্ত্রী

ঢাকা, ২৪ কার্তিক (৯ নভেম্বর):   

          ঋণ জালিয়াতি ও অর্থ আত্মসাতের মামলায় সাবেক প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার (এসকে) সিনহাকে পৃথক দু’টি ধারায় ১১ বছরের কারাদণ্ড দেওয়ার বিষয়ে  আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, এই রায়ের মাধ্যমে প্রমাণিত হলো, কেউই আইনের উর্ধ্বে নয়। তিনি বলেন, যিনি সরকার বা রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেন, তাঁকে তাঁর কর্মকাণ্ড সম্পর্কে আরো সতর্ক থাকা উচিৎ।  সবসময় ‘ট্রান্সপারেন্সি এবং অ্যাকাউন্টিবিলিটি  মেইনটেইন করা উচিৎ’ । এটা আজকের রায় থেকে শেখার বিষয়।

          আজ সচিবালয়ে  নিজ দপ্তরে  রায়ের প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে সাংবাদিকদের মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

          মন্ত্রী বলেন, আমি অবশ্যই বলবো,  আজ বিচার বিভাগের জন্য  সুখকর দিন নয়। কিন্তু এটাও ঠিক যে, অন্যায় করলে তার বিচার হবে। সেক্ষেত্রে আমার মনে হয় এটা একটা দৃষ্টান্ত স্থাপন হলো।

          মন্ত্রী বলেন, 'আই অ্যাম নট ভেরি হ্যাপি।' এর কারণ জানতে চাইলে তিনি বলেন, বিচার বিভাগের সাথে তিনি (এসকে সিনহা) সম্পৃক্ত ছিলেন। তিনি প্রধান বিচারপতি ছিলেন। আমি একজন আইনজীবীও। আমিও বিচার বিভাগের সাথে সারাজীবনই সম্পৃক্ত। সেজন্য এটা আমার জন্য সুখকর হতে পারে না।

          এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ১৯৭৫ সাল থেকে ১৯৯৬ পর্যন্ত আমরা কী দেখেছি, এই দেশে জাতির পিতাকে সপরিবারে হত্যা করলেও একটা মামলা হয়নি। এই সংস্কৃতি থেকে আমরা বেরিয়ে এসেছি। পর্যায়ক্রমে বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলা, জেলহত্যা মামলা, মানবতাবিরোধী ও যুদ্ধাপরাধীদের বিচার এবং অন্যান্য যেসব দুর্নীতির বিচার হয়েছে তার মাধ্যমে প্রমাণিত হয়েছে, দেশে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা হয়েছে।  আইন ও আদালত তার নিজস্ব গতিতে চলে। এক্ষেত্রে অন্যায়ের বিচার হবে এবং অন্যায় প্রতিরোধ হবে।

          সাংবাদিকদের আরেক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, বাংলাদেশের ইতিহাসে এরকম অন্যায় কোনো প্রধান বিচারপতি করেননি। সেজন্য এরকম বিচার করার প্রয়োজন হয়নি। এরকম অন্যায় হলে নিশ্চয়ই বিচার হতো। পৃথিবীর ইতিহাসে এরকম  নজির আছে বলেও জানান তিনি।

         #

রেজাউল/পাশা/রাহাত/এনায়েত/রফিকুল/সেলিম/২০২১/১৯.৩০ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                                 নম্বর : ৫৩৩৪

জলবায়ু পরিবর্তন ঝুঁকি হ্রাসে বাংলাদেশ এখন বিশ্বের রোল মডেল

                                                                       -- তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী

ঢাকা, ২৪ কার্তিক (৯ নভেম্বর) :

          জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকি হ্রাসে বাংলাদেশ এখন বিশ্বের রোল মডেল, বলেছেন তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী এবং পরিবেশ গবেষক ড. হাছান মাহ্‌মুদ ।

          স্কটল্যান্ডের গ্লাসগোতে চলমান কপ-২৬ সম্মেলনের সাইড ইভেন্ট হিসেবে স্থানীয় সময় সোমবার সন্ধ্যায় বাংলাদেশ প্যাভিলিয়নে আয়োজিত আন্তর্জাতিক সংলাপে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় মন্ত্রী একথা বলেন।

          মন্ত্রী বলেন, এখন পর্যন্ত জলবায়ু পরিবর্তনজনিত ঝুঁকি নিরসনে বাংলাদেশ প্রণীত ক্লাইমেট চেঞ্জ স্ট্র্যাটেজি এন্ড অ্যাকশন প্ল্যান বিশ্বকে পথ দেখাচ্ছে। ফলে জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকি হ্রাসে বাংলাদেশ এখন বিশ্বের রোল মডেল।

          সরকার নিজস্ব অর্থায়নে এই অ্যাকশন প্ল্যান বাস্তবায়নে কাজ করছে এবং জলবায়ু পরিবর্তন ট্রাস্ট তহবিল থেকে ৪৪৩ মিলিয়ন ডলার ব্যয়ে ৭৮৯টি প্রকল্প হাতে নিয়েছে জানিয়ে ড. হাছান বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্বে এ সকল পদক্ষেপের কারণেই জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলা করেও দেশ অদম্য গতিতে এগিয়ে চলেছে।

          সরকারের অবকাঠামোগত উন্নয়ন প্রতিষ্ঠান ইনফ্রাস্ট্রাকচার ডেভেলপমেন্ট কোম্পানি লিমিটেড-ইডকল আয়োজিত ‘বাংলাদেশের কৃষিতে জলবায়ু ঝুঁকি মোকাবিলায় সক্ষমতা বৃদ্ধিতে সৌরচালিত সেচযন্ত্র ব্যবহার বিষয়ে সংলাপ’ মন্ত্রী দেশের কৃষিতে সোলার প্যানেলের ব্যবহার বৃদ্ধিতে সহায়তার জন্য বিশ্বব্যাংক ও উন্নয়ন সহযোগী সংস্থাগুলোর প্রতি আহ্বান জানান।

          ড. হাছান বলেন, কৃষি সেচকাজে ডিজেল চালিত পাম্পের পরিবর্তে জলবায়ুসহিষ্ণু, ব্যয়সাশ্রয়ী ও পরিবেশবান্ধব জ্বালানি হিসেবে দেশে-বিদেশে সোলার প্যানেলের ব্যবহার বেড়েছে। বাংলাদেশে এখন ১২ লাখ ৪০ হাজারের মতো ডিজেলচালিত সেচপাম্প রয়েছে। এগুলো চালানোর জন্য কৃষকদের লাখ লাখ টন ডিজেল কিনতে হয়। পাশাপাশি ডিজেলচালিত সেচযন্ত্র প্রচুর কার্বন নিঃসরণ করে।

          ডিজেলের পরিবর্তে সৌরশক্তিচালিত বা সোলার সেচপাম্প ব্যবহার করলে একদিকে যেমন কার্বন নিঃসরণ বন্ধের ফলে পরিবেশ রক্ষা হবে, অন্যদিকে বিপুল পরিমাণ বৈদেশিক মুদ্রা সাশ্রয় হবে এবং ডিজেল কিনতে ও পাম্প মাঝে মাঝে নষ্ট হবার কারণে কৃষকরা যে প্রচুর অর্থ ব্যয় করেন, তা সাশ্রয় হবে, কারণ সৌরসেচযন্ত্র একটানা ২০ বছর ব্যবহারযোগ্য, জানান তিনি।

          এ সময় আয়োজক সংস্থার প্রশংসা করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনজনিত ক্ষয়ক্ষতি কমিয়ে আনার উদ্যোগের অংশ হিসেবে ইডকল ইতোমধ্যেই দেড় হাজার সৌরচালিত পাম্প স্থাপন করে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে প্রশংসা কুড়িয়েছে। সরকারের নবায়নযোগ্য জ্বালানির প্রতিশ্রুতি অর্জনেও সংস্থাটি ভূমিকা রাখছে এবং আশা করি দেশ ২০৩০ সালের মধ্যে নবায়নযোগ্য জ্বালানি লক্ষ্যমাত্রা পূরণে সক্ষম হবে।

          জলবায়ু ঝুঁকি মোকাবিলায় দেশে জাতীয়ভাবে নির্ধারিত অবদান (ন্যাশনালি ডিটারমাইন্ড কন্ট্রিবিউশন-এনডিসি) প্রতিশ্রুতি যেমন কার্বন নিঃসরণ কমাবে তেমনি কর্মসংস্থানও সৃষ্টি করবে, সে কারণে আমাদের প্রয়োজন সবুজ প্রযুক্তিতে বিনিয়োগ, গবেষণা ও উদ্ভাবন।

          বিদ্যুৎ বিভাগের সচিব ও ইডকল পরিচালক মোঃ হাবিবুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ মোস্তফা কামাল। কৃষি মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব রুহুল আমিন তালুকদার, বিশ্বব্যাংক, জাইকা, এডিবি, ইউএসএআইডি, ইউএনডিপি, জিইএফসহ উন্নয়ন সহযোগী সংস্থার প্রতিনিধিবৃন্দ আলোচনায় অংশ নেন। রোববার কপ ২৬ এ যোগদান শেষে ১৭ নভেম্বর তথ্যমন্ত্রীর দেশে ফেরার কথা।

#

আকরাম/পাশা/রাহাত/এনায়েত/রফিকুল/জয়নুল/২০২১/১৯১০ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                                 নম্বর : ৫৩৩৩

ডিজিটাল অবকাঠামো উন্নয়নে  বাংলাদেশে অবদান  রাখার

জন্য ফেসবুক কর্তৃপক্ষের প্রতি টেলিযোগাযোগ মন্ত্রীর আহ্বান

ঢাকা, ২৪ কার্তিক (৯ নভেম্বর) :

          ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার ডিজিটাল অবকাঠামো উন্নয়নে বিশ্বের অন্যান্য কয়েকটি দেশের ন্যায় বাংলাদেশে অবদান  রাখার জন্য ফেসবুক কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি বলেন, ডিজিটাল অবকাঠামো খাতে সরকারের বিনিয়োগবান্ধব সুযোগ কাজে লাগাতে পারলে ফেসবুকও লাভবান হবে। তিনি ফেসবুককে বাংলাদেশের ডিজিটাল সংযুক্তির অবকাঠামো উন্নয়নে সহায়তা করার আহ্বান জানান।

          মন্ত্রী আজ ঢাকায় বিটিআরসি মিলনায়তনে বিটিআরসি কর্তৃক মোবাইল ডাটা প্যাকেজ নির্দেশিকা এবং টেক্সট-এর মাধ্যমে ফেসবুক, ম্যাসেঞ্জার ও ডিসকভার অ্যাপ এর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে উদ্বোধনী বক্তৃতায় এ আহ্বান জানান।

          বিটিআরসি’র চেয়ারম্যান শ্যাম সুন্দর সিকদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব মোঃ খলিলুর রহমান, ফেসবুকের এশিয়া ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের হেড অভ্ কানেক্টিভিটি টম সি. ভার্গিস , টেলিটকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোঃ সাহাব উদ্দিন, গ্রামীণ ফোনের সিইও ইয়াসির আজমান, রবির ভারপ্রাপ্ত সিইও রিয়াজ রহমান এবং বাংলালিংকের চিফ কর্পোরেট অফিসার  তৈমুর রহমান বক্তৃতা করেন। বিটিআরসি’র মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোঃ নাসিম পারভেজ অনুষ্ঠানে মূল বিষয়বস্তু উপস্থাপন করেন।  

          মন্ত্রী বলেন, মোবাইল ডাটা প্যাকেজ নির্দেশিকা এবং টেক্সট-এর মাধ্যমে ফেসবুক, ম্যাসেঞ্জার ও ডিসকভার অ্যাপ এর উদ্বোধনের মাধ্যমে ডিজিটাল সংযোগ বিকাশে আমরা ত্রিমাত্রিক মাইল ফলক অর্জন করেছি। তিনি ডিজিটাল বাংলাদেশ কর্মসূচি বাস্তবায়নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদৃষ্টি সম্পন্ন চিন্তা বাস্তবায়নে এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ স্তর বলে উল্লেখ করেন। ডিজিটাল প্রযুক্তি বিকাশের অগ্রনায়ক মোস্তাফা জব্বার মোবাইল অপারেটরসহ ডিজিটাল সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠানসমূহকে উদ্দেশ্য করে বলেন, বস্তুতপক্ষে  জনগণকে যদি সেবা দিই তবে তাদের প্রয়োজনের প্রতি নজর রাখতে হবে। অন্যথায় কোনো প্রতিষ্ঠানই বিকশিত হতে পারবে না। অঙ্গীকার বাস্তবায়ন করতে না পারলে দায়িত্ব পালনও সঠিক হবে না বলে তিনি উল্লেখ করেন। তিনি বলেন, করোনাকালে টেলকো কোনোভাবেই সেবাকে ব্যবসায়িক দৃষ্টিকোণ থেকে দেখেনি তারা দেখেছে দেশ ও জাতির স্বার্থ। তিনি মোবাইলে বাংলা ভাষায় এসএমএস প্রবর্তনকে একটি ঐতিহাসিক কাজ বলে উল্লেখ করে বলেন, বাংলা ভাষার জনগণের সাথে জনগণের ভাষায় কথা বলতে চাই। আগামী ২৬ মার্চের মধ্যে তা করতে হবে। এ লক্ষ্যে বাংলায় এসএমএস-এর মূল্য অর্ধেকে নির্ধারণ করার কথা তিনি জানান। তিনি ২০১৮ সালে ওয়ার্ল্ড মোবাইল কংগ্রেসের সাইড লাইনে ফেসবুক কর্তৃপক্ষের সাথে তার ফলপ্রসূ বৈঠকের প্রসঙ্গ তুলে ধরে বলেন, বাংলাদেশ ফেসবুক ব্যবহারকারীর দিক থেকে বিশ্বের দশম দেশ, গত তিন চার বছর আগেও তা ছিল না। ফেসবুকের সাথে দ্বি-পাক্ষিক সম্পর্কোন্নয়নের ধারাবাহিকতায় তারা এখন আমাদের প্রতি অনেক সহযোগিতামূলক আচরণ করছে।

          বিটিআরসি’র চেয়ারম্যান ডিজিটাল বাংলাদেশ অগ্রযাত্রায় কানেক্টিভিটির প্রয়োজনীয়তা তুলে ধরে বলেন, বিটিআরসি কেবল নিয়ন্ত্রক হিসেবে নয় - সেবার সুযোগ তৈরি করতে সংশ্লিষ্টদের সাথে সব সময়ই থাকবে।

          পরে মন্ত্রী সুইচ টিপে অ্যাপ-এর উদ্বোধন করেন।

#

শেফায়েত/পাশা/রাহাত/রফিকুল/জয়নুল/২০২১/  ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                        নম্বর : ৫৩৩২

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব হিসেবে যোগদান করেছেন ড. মুহাম্মদ ইয়ামিন চৌধুরী

ঢাকা, ২৪ কার্তিক (৯ নভেম্বর) :

          আজ মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব হিসেবে যোগদান করেছেন ড. মুহাম্মদ ইয়ামিন চৌধুরী।

          এ উপলক্ষ্যে সচিবালয়ে মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম।

          মতবিনিময় সভায় নতুন যোগদানকৃত সচিব ড. মুহাম্মদ ইয়ামিন চৌধুরীকে স্বাগত জানান মন্ত্রী। মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব শ্যামল চন্দ্র কর্মকার, সুবোল বোস মনি, মোঃ তৌফিকুল আরিফ ও এস এম ফেরদৌস আলম, মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন দপ্তর-সংস্থা প্রধান-সহ মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তাগণ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

          প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী বলেন, মন্ত্রণালয় মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে। মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ খাতের কার্যক্রমকে আধুনিক ও গতিশীল করার জন্য মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে আধুনিক গবেষণাগার ও পরীক্ষাগার স্থাপনসহ বিভিন্ন অঞ্চলভিত্তিক প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে। পরিকল্পনামাফিক কার্যক্রমের কারণে দেশে মাছ, মাংস, ডিম, দুধ উৎপাদনে বৈপ্লবিক পরিবর্তন এসেছে। করোনা সংকটে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ খাতের ক্ষতিগ্রস্ত খামারিদের প্রথমবারের মতো নগদ প্রণোদনা দেওয়া হয়েছে। সমুদ্র অর্থনীতির বিকাশে প্রচলিত মৎস্য সম্পদের পাশাপাশি অপ্রচলিত সামুদ্রিক মৎস্য সম্পদ, শৈবাল আহরণেও মন্ত্রণালয় কাজ করছে।

          উল্লেখ্য, এর আগে ড. মুহাম্মদ ইয়ামিন চৌধুরী পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিস প্রশাসন ক্যাডারের ৯ম ব্যাচের সদস্য।

 

#

 

ইফতেখার/পাশা/রাহাত/রফিকুল/রেজাউল/২০২১/১৮২০ ঘণ্টা

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                                নম্বর : ৫৩৩১

বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের ‘ই-সেবাপ্ল্যাটফর্মের উদ্বোধন

ঢাকা, ২৪ কার্তিক (৯ নভেম্বর) :

          বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের সকল সেবাকে সহজীকরণ করতে ‘ই-সেবা’ প্ল্যাটফর্ম তৈরি করা হয়েছে। এ প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে এখন থেকে শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন তথ্য সংশোধন, শিক্ষকদের ডাটাবেজ তৈরি ও বিভিন্ন কারিগরি প্রতিষ্ঠানের অ্যাফিলিয়েশন ফি প্রদান করা যাবে। কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে ই-সেবা লিংকে ঢুকে সংশ্লিষ্ট সবাই এই সেবাটি গ্রহণ করতে পারবে।    

          আজ বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের  ‘ই-সেবা’ প্ল্যাটফর্ম উদ্বোধন করেন কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের সচিব মোঃ আমিনুল ইসলাম খান। বোর্ডের চেয়ারম্যান মোঃ আলী আকবর খানের সভাপতিত্বে ‘ই-সেবা’ প্ল্যাটফর্ম ও কম্পিউটার ল্যাব স্থাপন অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন মন্ত্রণালয় ও বোর্ডের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ। অনুষ্ঠানে জানানো হয় আগামী ২০২২-২৩ অর্থবছরের মধ্যে বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ড কাগজবিহীন দাপ্তরিক সেবা প্রদান করবে এবং ঘরে বসে সেবা গ্রহণ করা যাবে।

          পরে বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের সকল কর্মকর্তা-কর্মচারীকে প্রশিক্ষণ প্রদান ও দক্ষতা উন্নয়নের লক্ষ্যে বোর্ডের নতুন ভবনে ৩০টি কম্পিউটার সমৃদ্ধ আধুনিক কম্পিউটার ল্যাবও উদ্বোধন করা হয়।

#

জাহিদ/পাশা/রাহাত/রফিকুল/জয়নুল/২০২১/১৮২৫ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                          নম্বর : ৫৩৩০

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়কে দুই লাখ ডোজ ভ্যাকসিন প্রদান করেছে রেড ক্রিসেন্ট
 

ঢাকা, ২৪ কার্তিক (৯ নভেম্বর) :

          আজ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি কর্তৃক স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের নিকট চীনের সিনোফার্মের দুই লাখ ডোজ ভ্যাকসিন সরবরাহ করা হয়েছে।


          স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সিনিয়র সচিব লোকমান হোসেন মিয়া মন্ত্রণালয়ের পক্ষে এই দুই লাখ ডোজ ভ্যাকসিন গ্রহণ করেন। স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মুজিবুল হক, রেড ক্রিসেন্ট’র হেড অভ্ ডেলিগেশন সঞ্জিব কাফলি, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক রোকেয়া সুলতানা এবং বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির মহাসচিব এ সময় উপস্থিত ছিলেন।


          ভ্যাকসিন গ্রহণ শেষে স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সিনিয়র সচিব লোকমান হোসেন মিয়া বলেন, “বাংলাদেশ ভ্যাকসিন প্রদানে সারা বিশ্বের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে সক্ষম হয়েছে। ইতোমধ্যে দেশে প্রায় ৮ কোটি ডোজ ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছে। এ মাস থেকে সাড়ে ৩ কোটি ডোজ ভ্যাক্সিন দেওয়া হবে। প্রতিটি ভ্যাকসিন আমাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। রেড ক্রিসেন্ট থেকে যে ২ লাখ ডোজ ভ্যাকসিন দেওয়া হলো তা সরকারের ভ্যাকসিন প্রদান কার্যক্রমে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবে।”

 

#

 

মাইদুল/পাশা/রাহাত/রফিকুল/রেজাউল/২০২১/১৮০০ ঘণ্টা

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                          নম্বর: ৫৩২৯

 

কোভিড-১৯ সংক্রান্ত সর্বশেষ প্রতিবেদন

 

ঢাকা, ২৪ কার্তিক (৯ নভেম্বর) :

 

            স্বাস্থ্য অধিদপ্তর এবং রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর)-এর তথ্যানুযায়ী গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ১৭ হাজার ৫৩০ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ২০৬ জনের শরীরে করোনা সংক্রমণ পাওয়া গেছে। এ নিয়ে বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ১৫ লাখ ৭১ হাজার ৪৩৪ জন। 

 

          গত ২৪ ঘণ্টায় ৩ জন-সহ এ পর্যন্ত ২৭ হাজার ৯০৪ জন এ রোগে মৃত্যুবরণ করেছেন।

 

          করোনা ভাইরাস আক্রান্তদের মধ্যে এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ১৫ লাখ ৩৫ হাজার ৩৯০ জন।

 

#

 

নাসিমা/পাশা/রাহাত/রেজাউল/২০২১/১৭১২ ঘণ্টা

 

তথ্যবিবরণী                                                                                             নম্বর : ৫৩২৮

দক্ষিণ কোরিয়াগামীদের ভিসার আবেদন পূনরায় চালু

ঢাকা, ২৪ কার্তিক (৯ নভেম্বর):

          দীর্ঘদিন পর পুনরায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঢাকায় দূতাবাসের মাধ্যমে দক্ষিণ কোরিয়াগামীদের ভিসার আবেদন চালু হয়েছে বলে জানিয়েছে দক্ষিণ কোরিয়ার রাষ্ট্রদূত লি জ্যাং-কিউন।

          আজ প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ এর সাথে তাঁর অফিস কক্ষে সাক্ষাৎ করতে এসে দক্ষিণ কোরিয়ার রাষ্ট্রদূত একথা জানান।

          বৈঠকে রাষ্ট্রদূত দক্ষিণ কোরিয়ায় কর্মরত বাংলাদেশি কর্মীদের ভূয়সী প্রশংসা করেন।

          এসময় তাঁরা দক্ষিণ কোরিয়াগামী কর্মীদের ভাষা প্রশিক্ষণ ও দক্ষতার মানোন্নয়ন, দক্ষিণ কোরিয়ায় বাংলাদেশের শ্রমবাজার সম্প্রসারণ এবং দু-দেশের ভ্রাতৃত্বপূর্ণ সৌহার্দ্য-সম্প্রীতি নিয়ে আলোচনা করেন।

          মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. আহমেদ মুনিরুছ সালেহীন উপস্থিত ছিলেন।

#

রাশেদুজ্জামা/অনসূয়া/পরীক্ষিৎ/শাম্মী/জসীম/মাসুম/২০২১/১৬০৪ ঘণ্টা

 

তথ্যবিবরণী                                                                                         নম্বর : ৫৩২৭

নিরাপদ খাদ্য সুস্থ, সবল এবং মেধাবী জনগোষ্ঠী তৈরিতে ভূমিকা রাখবে

                                                        -খাদ্যমন্ত্রী

ঢাকা, ২৪ কার্তিক (৯ নভেম্বর):

          খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেছেন, নিরাপদ খাদ্য উৎপাদন, প্রক্রিয়াজাতকরণ, সংরক্ষণ, বিপনন এবং খাবার হিসেবে গ্রহণের সুঅভ্যাস তৈরির প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে সরকার। জনসচেতনতা এই প্রচেষ্টাকে আরো সার্থক ও সফল করতে পারে। এসময় তিনি দেশের মানুষের জন্য নিরাপদ খাবার নিশ্চিত করতে গণমাধ্যমকর্মীদের ভূমিকা রাখার আহ্বান জানান।

          আজ ঢাকায় ইন্টারকন্টিনেন্টাল হোটেলে নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ আয়োজিত : 'নিরাপদ খাদ্য আইন, ২০১৩ ও বিধি-প্রবিধি সম্পর্কে অবহিতকরণ এবং জনসচেতনতা সৃষ্টিতে গণমাধ্যম' শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

          খাদ্যমন্ত্রী বলেন, উৎপাদন থেকে শুরু করে খাদ্যশৃঙ্খলের সকল পর্যায়ে খাদ্যের নিরাপত্তা রক্ষা করা এখন সময়ের দাবি। নিরাপদ খাবার নিশ্চিত হলেই একটি সুস্থ, সবল, কর্মঠ এবং মেধাবী জনগোষ্ঠী তৈরি করা সম্ভব হবে। আর সেই লক্ষ্যেই ২০১৩ সালে প্রণয়ন করা হয় নিরাপদ খাদ্য আইন--যা কার্যকর হয় পহেলা ফেব্রুয়ারি ২০১৫ সালে। 

          খাদ্যমন্ত্রী জানান, আট বিভাগে মোবাইল ল্যাবরেটরি স্থাপন করা হচ্ছে। এর ফলে উপজেলা পর্যায়ে খাদ্য পরীক্ষা করে তা নিরাপদ কিনা তা জনগণকে অবহিত করা সম্ভব হবে। অচিরেই নারায়ণগঞ্জে জাইকার অর্থায়নে এশিয়ার বৃহৎ টেস্টিং ল্যাবরেটরি স্থাপন হতে যাচ্ছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, এর ফলে খাদ্যের মান নির্ণয় করে সনদ প্রদান সহজ হবে। এসময় তিনি যার যার অবস্থান থেকে নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিতে ভূমিকা রাখার আহ্বান জানান। 

          বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান মোঃ আব্দুল কাইউম সরকার এর সভাপতিত্বে খাদ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. মোছাম্মৎ নাজমানারা খানুম এবং চ্যানেল আই এর পরিচালক ও বার্তা সম্পাদক শাইখ সিরাজ বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন। সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগের অধ্যাপক ড. মো: ইকবাল রউফ মামুন। সেমিনারে সরকারি বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা, প্রিন্ট ও ইলেকট্রিক মিডিয়ার প্রতিনিধি এবং হোটেল রেস্তোরা মালিক সমিতির নেতৃবৃন্দ অংশ নেন।

 #

কামাল/অনসূয়া/পরীক্ষিৎ/শাম্মী/জসীম/মাসুম/২০২১/১৫১৯ ঘণ্টা

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                   নম্বর : ৫৩২৬

টেলিভিশনে স্ক্রল আকারে প্রচারের জন্য

সকল ইলেকট্রনিক মিডিয়া

ঢাকা, ২৪ কার্তিক (৯ নভেম্বর) :

          সরকারি-বেসরকারি টিভি চ্যানেলসহ সকল ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় নিম্নোক্ত বিষয়টি স্ক্রল আকারে প্রচারের জন্য অনুরোধ করা হলো :   

 

          মূলবার্তা :  

        সরকারি অনুদানে পূর্ণদৈর্ঘ্য ও স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র নির্মাণের জন্য প্রস্তাব জমাদানের সময় ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত বৃদ্ধি------তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়

#

সাইফুল/অনসূয়া/পরীক্ষিৎ/শাম্মী/জসীম/শামীম/২০২১/১৫১৮ ঘণ্টা 

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                          নম্বর :  ৫৩২৫                                         

2021-11-09-15-06-fa3751c16faf84478af5e21a4f9f0711.doc 2021-11-09-15-06-fa3751c16faf84478af5e21a4f9f0711.doc

Share with :

Facebook Facebook