তথ্য অধিদফতর (পিআইডি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৫ ডিসেম্বর ২০১৯

তথ্যবিবরণী 5/12/2019

তথ্যবিবরণী                                                                                              নম্বর : ৪৬১৮
 
 রেলের সেবা বাড়ানোর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে
                               --- রেলপথ মন্ত্রী 
 
ঢাকা, ২০ অগ্রহায়ণ (৫ ডিসেম্বর) :
রেলপথ মন্ত্রী মোঃ নূরুল ইসলাম সুজন বলেছেন, দেশের মানুষের চাহিদা অনুযায়ী রেলওয়ের সেবা বৃদ্ধি করার জন্য রেল সেবা সপ্তাহ ঘোষণা করা হয়েছে। সেবা সপ্তাহে যাত্রীসাধারণ যাতে সচেতন হয়, তারা যেন যেখানে সেখানে ময়লা না ফেলে, বাথরুম পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখে সে বিষয়েও যাত্রীদের উদ্বুদ্ধ করা হচ্ছে।
মন্ত্রী আজ ৪ থেকে ১১ ডিসেম্বর পর্যন্ত রেলওয়ে সেবা সপ্তাহ কার্যক্রম দেখার জন্য কমলাপুর পরিদর্শনে এসে সাংবাদিকদেরকে এসব কথা বলেন।
মন্ত্রী বলেন, রেল বিভাগের ওপর যাত্রীদের সেবা সংক্রান্ত কিছু অসন্তোষ রয়েছে, যেমন- শিডিউল বিপর্যয়, টিকিট কালোবাজারি, ট্রেন দুর্ঘটনা প্রভৃতি। এসব অবস্থা কাটিয়ে উঠে রেলকে একটি ভারসাম্যপূর্ণ যোগাযোগ ব্যবস্থা হিসেবে গড়ে তোলার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। কিছু প্রকল্পের কথা উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু যমুনা নদীর ওপর আলাদা ডুয়েল গেজ ডাবল লাইন বঙ্গবন্ধু রেল সেতু করা হবে। মার্চ মাসে এই কাজের উদ্বোধন করা হতে পারে। জয়দেবপুর-ঈশ^রদী ডাবল লাইন নির্মাণ করা হবে। নতুন লোকোমোটিভের চালান প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, কোরিয়া থেকে ২০২০ সালের জুলাই মাস নাগাদ দশটি লোকোমোটিভ আসবে। 
এর আগে মন্ত্রী একতা ট্রেনের যাত্রীদের সাথে ফুল ও চকোলেট দিয়ে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন। 
রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ মোফাজ্জেল হোসেন, রেলওয়ের মহাপরিচালক মোঃ শামসুজ্জামান-সহ রেলওয়ে কর্মকর্তা-কর্মচারীরা এ সময় উপস্থিত ছিলেন। 
#
শরিফুল/মাহমুদ/মোশারফ/জয়নুল/২০১৯/২১৫৫ঘণ্টা
তথ্যবিবরণী                                                                                              নম্বর : ৪৬১৭
 
শিক্ষার্থীদেরকে তথ্যপ্রযুক্তিতে দক্ষ করে গড়ে তুলতে হবে
                       --- প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী
 
ঢাকা, ২০ অগ্রহায়ণ (৫ ডিসেম্বর) :
প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মোঃ জাকির হোসেন বলেছেন, কোমলমতি শিক্ষার্থীদের তথ্যপ্রযুক্তিতে প্রাথমিক ধারণা দেয়ার জন্য প্রতিটি বিদ্যালয়ে ল্যাপটপ, মাল্টিমিডিয়া ও সাউন্ডসিস্টেম সরবরাহ করা হচ্ছে। ইতোমধ্যে দেশের সকল বিদ্যালয়ে একটি করে মাল্টিমিডিয়া ক্লাসরুম চালু করা হয়েছে। শিক্ষার্থীদের জন্য ডিজিটাল কন্টেন্ট তৈরি ও ব্যবহার অব্যাহত থাকবে। দেশের ৬৭টি পিটিআই-এ বিদ্যমান কম্পিউটার ল্যাব আধুনিকায়ন ও সম্প্রসারণ করা হবে। শিক্ষার্থীদেরকে তথ্যপ্রযুক্তিতে প্রাথমিক ধারণা দেয়ার জন্য শিক্ষকদেরকে আইসিটি বিষয়ে বিভিন্ন প্রশিক্ষণের মাধ্যমে দক্ষ করে গড়ে তোলা হচ্ছে। 
প্রতিমন্ত্রী আজ রাজধানীর মিরপুরে পিটিআই অডিটোরিয়ামে ‘ডিজিটাল সার্ভিস ডিজাইন ল্যাব’ শীর্ষক কর্মশালার প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন। কর্মশালায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এবং প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ড. এএফএম মনজুর কাদির। সভাপতিত্ব করেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ আকরাম -আল-হোসেন। 
প্রতিমন্ত্রী বলেন, কোমলমতি শিশুরাই ২০২১ সালে মধ্যে ডিজিটাল বাংলাদেশ ও ২০৪১ সালে মধ্যে বাংলাদেশ উন্নত সমৃদ্ধ দেশের সারিতে অবতীর্ণ হওয়ার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। তাই তাদেরকে তথ্যপ্রযুক্তি জ্ঞানে সমৃদ্ধ করে গড়ে তুলতে হবে। তিনি বলেন, প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন কার্যক্রম ডিজিটালাইজড করা এবং স্বচ্ছতা আনয়নকল্পে ই-মনিটরিং বাস্তবানের জন্য মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তাগণকে ট্যাব প্রদান করা হয়েছে। বিদ্যালয়ে শিক্ষকদের যথাসময়ে আগমন এবং প্রস্থান নিশ্চিত করার লক্ষ্যে বায়োমেট্রিক হাজিরা স্থাপনের কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে। দুর্নীতি দূর ও স্বচ্ছতা আনার জন্য শিক্ষক/শিক্ষিকার বদলির বিষয়াদি অন-লাইনে সম্পন্নের কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। 
তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের ভিশন এখন ১৬ কোটি মানুষের ভিশনে পরিণত হয়েছে উল্লেখ করে বলেন, দেশের শিক্ষাখাতকে ডিজিটাল না করা হলে ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের লক্ষ্য অর্জিত হবে না। 
#
রবীন্দ্রনাথ/মাহমুদ/রফিকুল/জয়নুল/২০১৯/২১৫০ঘণ্টা
 
তথ্যবিবরণী                                                                                              নম্বর : ৪৬১৬
 
বাংলাদেশ-ভারত নৌ সচিব পর্যায়ের বৈঠক সমাপ্ত
নতুন ‘পোর্ট অভ্ কল’ জগিগোপা ও  বাহাদুরাবাদ 
 
ঢাকা, ২০ অগ্রহায়ণ (৫ ডিসেম্বর) :
ভারতের জগিগোপা ও বাংলাদেশের বাহাদুরাবাদকে নতুন ‘পোর্ট অভ্ কল’  ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ ও ভারত। ভারতের ইছামতি নদীকে প্রটোকল অন ইনল্যান্ড ওয়াটার ট্রানজিট এন্ড ট্রেড (পিআইডব্লিউটিটি) রুটে আনার লক্ষ্যে ফিজিবিলিটি স্টাডি করা হবে। আত্রাই নদীর ভারতের অংশের ৪২ কিলোমিটার ভারতীয় কর্তৃপক্ষ খননের ব্যবস্থা করবে।
বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে নৌ সচিব পর্যায়ের দু’দিনের বৈঠকের শেষ দিনে আজ (৫ ডিসেম্বর) ঢাকায় হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে এসব তথ্য জানানো হয়। আজ সচিব পর্যায়ের  এবং ইন্টার গভর্নমেন্টাল কমিটির বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে বাংলাদেশের পক্ষে নৌপরিবহন সচিব মোঃ আবদুস সামাদ এবং ভারতের পক্ষে সেদেশের নৌপরিবহন সচিব গোপাল কৃষ্ণ নেতৃত্ব দেন।
গতকাল (৪ ডিসেম্বর) একই স্থানে পিআইডব্লিউটিটি বিষয়ক স্ট্যান্ডিং কমিটির বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। গতকালের বৈঠকে বাংলাদেশের পক্ষে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (উন্নয়ন) ভোলা নাথ দে এবং ভারতের পক্ষে সেদেশের সিনিয়র ইকোনমিক এডভাইজার রজত সাচার নেতৃত্ব দেন।
দু’দিনের বৈঠকে অন্যান্য বিষয়ের সাথে রাজশাহী থেকে পাকশী পর্যন্ত ৭৪ কিলোমিটার নৌপথের নাব্যতার জন্য পূর্বের ন্যায় ভারত ও বাংলাদেশ কর্তৃক যথাক্রমে ৮০ : ২০ অনুপাতে খরচ বহন সাপেক্ষে ড্রেজিং; কলকাতার বজবজ এলাকায় পর্যাপ্ত বয়া স্থাপন, ঘোড়ামারা নামখানা-হেমনগর এলাকায় চ্যানেল মার্কিং স্থাপন, নামখানা, হলদিয়া, বজবজ এলাকায় ভেসেল অবস্থানকালে প্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি ক্রয়ের জন্য প্রয়োজনীয় পারমিট ইস্যু এবং ডিউরেশন অভ্ শোর লিভ বৃদ্ধি; ভিসা সহজীকরণ, কাস্টমস্ ও ইমিগ্রেশন ব্যবস্থা, বার্দিং সুবিধা বৃদ্ধি, নাইট নেভিগেশন বিষয়; চিলমারী-ধুবরীকে (আসাম) পোর্ট অভ্ কল; ক্রুদের এমবারকেশন এবং ডিসএমবারকেশন; নাকুগাঁও স্থলবন্দর ও ভারতের ডালু আইসিপি-ভুটানের গেলেপু পর্যন্ত কানেকটিং; সাটিংফিকেট অভ্ কম্পিটেন্সি; বাংলাদেশের ক্রু এবং মেরিন অফিসারদেরকে নির্দিষ্ট পোর্ট উল্লেখ না করে ভারতীয় ভিসা প্রদান; কোস্টাল শিপিং এগ্রিমেন্টের আওতায় সামিট এলায়েন্স পোর্ট লিমিটেড, মুক্তারপুরকে পোর্ট অভ্ কল ঘোষণা, বাংলাদেশি নাবিকদের বিশ্রাম ও চিত্তবিনোদনের জন্য কলকাতায় ড্রপ-ইন-সেন্টার চালু; স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং প্রসিডিউর (এসওপি) অনুযায়ী ভেসেল মেরামত; বাংলাদেশের কক্সবাজার (মাতারবাড়ী পোর্ট) এবং ভারতের ধামারা (চব্বিশ পরগুনা) পোর্টকে পোর্ট অভ্ কল হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করা; সমুদ্র এলাকায় জাহাজের সমস্যা দূর করতে নেভাল টেলেক্স সুবিধা স্থাপন এবং চট্টগ্রাম ও মোংলা বন্দরের ব্যবহার বিষয়ে আলোচনা হয়। 
#
জাহাঙ্গীর/মাহমুদ/মোশারফ/জয়নুল/২০১৯/২১৪০ঘণ্টা
তথ্যবিবরণী                                                                                              নম্বর : ৪৬১৫
 
আদালতে বিশৃঙ্খলা হলে সরকার আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে বাধ্য হবে       --- আইনমন্ত্র
ঢাকা, ২০ অগ্রহায়ণ (৫ ডিসেম্বর) :
সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগে খালেদা জিয়ার জামিনের মামলার শুনানিকালে বিএনপিপন্থী আইনজীবীদের বিশৃঙ্খলা এবং হট্টগোলের বিষয়ে আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, সরকার বাংলাদেশের কোনো প্রতিষ্ঠানকে অপমান বা অবমাননা করতে  দেবে না। কারণ দেশের জনগণকে নিরাপদে থাকতে দেওয়ার জন্য দেশের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি রক্ষা করা এবং বিশৃঙ্খলা বন্ধ করা সরকারের দায়িত্ব। যারাই এরূপ আচরণ করবে, তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে সরকার বাধ্য হবে।
আইনমন্ত্রী আজ তাঁর গুলশানের আবাসিক কার্যালয়ে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এসব কথা বলেন । 
মন্ত্রী বলেন, ‘আজ বাংলাদেশের সর্বোচ্চ আদালত সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগে খালেদা জিয়ার জামিনের মামলার শুনানির সময় বিএনপির আইনজীবীদের এবং বিএনপি সমর্থক কিছু বহিরাগতদের আদালত কক্ষে উচ্ছৃঙ্খলতা ও ঔদ্ধত্যপূর্ণ আচরণের মাধ্যমে আদালত অবমাননা এবং বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি সৃষ্টির চেষ্টার আমি তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি।’
মন্ত্রী বলেন, অতীতেও আমরা দেখেছি যে বিএনপিপন্থী আইনজীবী এবং বিএনপি সমর্থক বহিরাগতরা তাদের বিরুদ্ধে আদালত কোনো আদেশ বা রায় দিলেই তারা উচ্ছৃঙ্খল পরিস্থিতি সৃষ্টির চেষ্টা করে। বিএনপির এ ধরনের কর্মকা-ে পরিষ্কারভাবে প্রতিয়মান হয় যে, বিএনপির আইনের শাসনের প্রতি কোনো শ্রদ্ধাবোধ নেই, বাংলাদেশের সর্বোচ্চ সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানগুলোর ওপর তাদের কোনো আনুগত্য নেই এবং বাংলাদেশের কোনো প্রতিষ্ঠান তাদের কাছে নিরাপদ নয়।
#
রেজাউল/মাহমুদ/মোশারফ/জয়নুল/২০১৯/২০৪০ঘণ্টা 
তথ্যবিবরণী                                                                                              নম্বর : ৪৬১৪
 
রাজধানীতে পার্বত্য মেলা শুরু
 
ঢাকা, ২০ অগ্রহায়ণ (৫ ডিসেম্বর) :
পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের আয়োজনে রাজধানীর শিল্পকলা একাডেমি প্রাঙ্গণে চার দিনব্যাপী পার্বত্য মেলা আজ শুরু হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপদেষ্টা ড. গওহর রিজভী প্রধান অতিথি হিসেবে মেলা উদ্বোধন করেন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং। 
প্রধান অতিথির বক্তৃতায় ড. গওহর রিজভী বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামের উন্নয়নের জন্য জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড গঠন করেছিলেন। বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা পার্বত্য চট্টগ্রাম শান্তি চুক্তি করে উন্নয়নের দ্বার উন্মোচন করেন। শান্তি চুক্তির ধারাবাহিকতায় পার্বত্য চট্টগ্রামে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। অনেক উন্নয়ন কার্যক্রম চলমান রয়েছে। পার্বত্য চট্টগ্রামে যে সকল সমস্যা রয়েছে তা পর্যায়ক্রমে সমাধান করা হচ্ছে বলে তিনি জানান। 
সভাপতির বক্তৃতায় বীর বাহাদুর উশেসিং বলেন, পার্বত্য মেলা আয়োজনের মাধ্যমে হস্ত ও কুটির শিল্প, বাঁশ-বেত, কৃষি দ্রব্যাদি ও ফলমূল প্রদর্শন ও বিক্রয়ের সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। এতে পাহাড়িদের সাথে রাজধানীবাসীর মেলবন্ধন সৃষ্টি হবে। পার্বত্য এলাকার জনগণের জীবনমান উন্নয়নে সরকার নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে বলে তিনি জানান। পার্বত্যাঞ্চলে রাস্তাঘাট, কৃষি, স্বাস্থ্য খাতে অভূতপূর্ব উন্নয়ন সাধিত হয়েছে। যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নের ফলে কৃষক তাদের উৎপাদিত পণ্যের ন্যায্য মূল্য পাচ্ছে। 
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংসদ সদস্য  দিপংকর তালুকদার, কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা, বাসন্তী চাকমা এবং পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান নব বিক্রম কিশোর ত্রিপুরা। স্বগত বক্তব্য রাখেন মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ মেসবাহুল ইসলাম। 
পার্বত্য চট্টগ্রামের ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর  উৎপাদিত পণ্যসামগ্রীর প্রচার ও বিপণনের মাধ্যমে তাদের অর্থনৈতিক স্বনির্ভরতার লক্ষ্যে প্রতি বছরের মতো এবারো এ মেলার  আয়োজন করা হয়েছে। মেলা ৮ ডিসেম্বর পর্যন্ত চলবে। প্রতিদিন বিকাল ৫টা থেকে পাবর্ত্য জেলার শিল্পীদের অংশগ্রহণে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হবে। 
#
নাছির/মাহমুদ/রফিকুল/জয়নুল/২০১৯/২০৪৫ঘণ্টা 

তথ্যবিবরণী                                                                                                                           নম্বর : ৪৬১৩

দক্ষ জনশক্তি তৈরিতে কর্মসংস্থান অধিদপ্তর প্রতিষ্ঠা করেছে সরকার

                                                               --- শ্রম প্রতিমন্ত্রী

ঢাকা, ২০ অগ্রহায়ণ (৫ ডিসেম্বর) :

            শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান বলেছেন, চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের প্রাক্কালে দক্ষ জনশক্তি তৈরিতে সরকার শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের অধীনে কর্মসংস্থান অধিদপ্তর প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ নিয়েছে।

            প্রতিমন্ত্রী আজ রাজধানীতে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ‘স্কিল এন্ড ফিউচার অভ্ ওয়ার্ক’ শীর্ষক জাতীয় সম্মেলনে গেস্ট অভ্ অনার হিসেবে বক্তৃতায় এ কথা বলেন।

            মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ, এটুআই, ইউনিসেফ এবং জেনারেশন আনলিমিটেডের যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান।

            শ্রম প্রতিমন্ত্রী বলেন, নতুন নতুন প্রযুক্তি উদ্ভাবন এবং সেগুলো ব্যবহারের মাধ্যমে ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত-সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গঠনে সরকারের পাশাপাশি বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন, এনজিও সকলকে দায়িত্ব নিতে হবে। দক্ষ জনশক্তি তৈরি করে ডেমোগ্রাফিক ডিভিডেন্টের সুবিধা নিয়ে সরকার টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা সহজে অতিক্রম করবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

            সম্মেলনে তথ্য ও যোগযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলমের সভাপতিত্বে তথ্য ও যোগযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এসডিজি বিষয়ক সমন্বয়ক এবং জেনারেশন আনলিমিটেডের চেয়ারম্যান মোঃ আবুল কালাম আজাদ, ইউনিসেফ বাংলাদেশের প্রধান নির্বাহী তাসিন আহমেদ এবং অ্যাকশন এইড বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর ফারাহ্ কবির বক্তৃতা করেন।

#

আকতারুল/ফারহানা/মোশারফ/রফিকুল/জয়নুল/২০১৯/২০৩৫ঘণ্টা 

তথ্যবিবরণী                                                                                                                           নম্বর : ৪৬১২                                                                                          

 

বিনামূল্যে মেয়েদের জন্য স্যানিটারি ন্যাপকিন দেওয়া হবে

                                                       --- স্বাস্থ্যমন্ত্রী

ঢাকা, ২০ অগ্রহায়ণ (৫ ডিসেম্বর) :

            স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, দেশের সকল স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্রসমূহে এখন থেকে মেয়েদের জন্য বিনামূল্যে স্যানিটারি ন্যাপকিন দেওয়া হবে। তিনি বলেন, ‘দেশের গ্রামাঞ্চলের মা ও মেয়ে শিশুদের জন্য অধিক মূল্য হওয়ার কারণে ন্যাপকিন ব্যবহার করা সম্ভব হয় না। এতে করে তাদের শরীরে ক্যান্সারসহ নানাবিধ জটিল রোগ সৃষ্টি হয়। এ কারণে দেশের সর্বত্র এ বছর থেকেই সরকারি স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্র থেকে মেয়েদের জন্য বিনামূল্যে এই স্যানিটারি ন্যাপকিন প্রদান করা হবে।’

            আজ রাজধানীর পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের অডিটোরিয়ামে সপ্তাহব্যাপী ‘পরিবার কল্যাণ সেবা ও প্রচার সপ্তাহ-২০১৯’ উপলক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে স্বাস্থ্যমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

            নিরাপদ মাতৃত্ব ও শিশু মৃত্যু হার প্রসঙ্গে জাহিদ মালেক আরো বলেন, ‘এসডিজি অর্জনে ৩.৭.২ সূচকে কৈশোরকালীন মাতৃত্ব কমানোর ব্যাপারে জোর দেওয়া হয়েছে। কারণ ১৪ বছর বা তার কম বয়সী কিশোরী মায়েদের মধ্যে গর্ভজনিত জটিলতার কারণে মৃত্যু ঝুকি ৫ গুণ বেশি। ২০ বছরের বেশি বয়সী মায়েদের তুলনায় ১৫-১৮ বছর বয়সী মায়েদের মৃত্যুহার দ্বিগুণের বেশি। এক্ষেত্রে অধিকাংশ মায়েদের সরকারি স্বাস্থ্যকেন্দ্রে যাওয়ার ব্যাপারে অনীহা থাকে। এ কারণে সারাদেশের সরকারি স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্রে ২৪ ঘণ্টা ডেলিভারি সিস্টেম চালু করে দেওয়া হবে।’

            স্বাস্থ্য শিক্ষা বিভাগের সচিব শেখ ইউসুফ হারুন, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ, পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক কাজী আ. খ. ম. মহিউল ইসলামসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

#

মাইদুল/ফারহানা/মোশারফ/জয়নুল/২০১৯/২০৩০ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                               নম্বর : ৪৬১১

 

মাটি রক্ষায় সচেতন হতে হবে

                       --- কৃষিমন্ত্রী

 

ঢাকা, ২০ অগ্রহায়ণ (৫ ডিসেম্বর) :

            মাটির যথাযথ ব্যবহার না করায় তার উর্বরতা নষ্ট হচ্ছে। ক্রমবর্ধমান নগরায়ন, শিল্পায়ন, দূষণ, ব্যাপক হারে বনভূমি ধ্বংস এবং অপরিকল্পিত চাষাবাদের ফলেও অনেক অঞ্চলের মাটি নষ্ট হচ্ছে। জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে লবণাক্ততা বৃদ্ধি, মাটির পুষ্টি উপাদানের ঘাটতির ফলে মৃত্তিকা এখন হুমকির মুখে রয়েছে। এ কারণে বছরে শূন্য দশমিক ৪ শতাংশ ফসল উৎপাদন হ্রাস পাচ্ছে। পাহাড়ি অঞ্চলে মৃত্তিকা ক্ষয়ের মাত্রা বেশি যা প্রায় ১২ শতাংশ। আর একটি সমস্যা হচ্ছে ইট ভাটা, এটি বেড়েই চলছে।

            কৃষিমন্ত্রী ড. মোঃ আব্দুর রাজ্জাক আজ ‘বিশ্ব মৃত্তিকা দিবস ২০১৯’ উপলক্ষে আয়োজিত সেমিনারে এসব কথা বলে। রাজধানীর খামারবাড়ির আ কা মু গিয়াস উদ্দিন মিলকী অডিটোরিয়ামে মৃত্তিকা সম্পদ উন্নয়ন ইনস্টিটিউট দিবসটির আয়োজন করে। অনুষ্ঠানে মন্ত্রী মৃত্তিকা সম্পদ উন্নয়ন ইনস্টিটিউটের প্রকাশিত স¥রণিকার মোড়ক উন্মোচন করেন।

            মন্ত্রী বলেন, আমাদের কৃষি শিক্ষার্থীদের আধুনিক শিক্ষা দিতে হবে। আগামী প্রজন্মের জন্য সুন্দর পরিবেশে তৈরি করতে আমাদের সকলকে মাটি রক্ষায় সচেতন হতে হবে। মাটির গুরুত্ব সম্পর্কে বুঝাতে হবে এবং মৃত্তিকা সম্পদ সংরক্ষণে জনগণকে উৎসাহ প্রদান করতে হবে।

            মৃত্তিকা সম্পদ উন্নয়ন ইনস্টিটিউটের পরিচালক বিধান কুমার ভা-ারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন কৃষি সচিব মোঃ নাসিররজ্জামান, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ড. মোঃ আব্দুল মুঈদ, বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা কাউন্সিলের নির্বাহী চেয়ারম্যান ড. মোঃ কবির ইকরামুল হক ও FAO এর বাংলাদেশে প্রতিনিধি রবার্ট ডি সিম্পসন।

            সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য ড. এস এম ইমামুল হক। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন মৃত্তিকা সম্পদ উন্নয়ন ইনস্টিটিউটের প্রকল্প পরিচালক ড. মোঃ আব্দুল বারী।

            দিবসটি উপলক্ষে ৩ ক্যাটেগরিতে ৩ জন বিশিষ্ট ব্যক্তিকে সয়েল কেয়ার অ্যাওয়ার্ড ২০১৯ প্রদান করা হয়। সম্মাননা পেয়েছেন বরিশালের মোঃ সুলতান হোসেন, নরসিংদীর ড. মোঃ নুরুল ইসলাম ভূইয়া এবং সিলেটের মোঃ আব্দুল আহাদ শাহীন। সম্মাননা হিসেবে তারা একটি ক্রেস্ট ও নগদ ১৫ হাজার টাকা করে পান।

            এবারে দিবসের প্রতিপাদ্য ‘আমাদের ভবিষ্যৎ ‘মৃত্তিকার ক্ষয়রোধ’।

#

গিয়াস/মাহমুদ/রফিকুল/জয়নুল/২০১৯/২০০০ঘণ্টা

Handout                                                                                                                  Number : 4610

 

Shahidul Karim appointed Ambassador to Bhutan


Dhaka,  5 December :

            The Government has decided to appoint AKM Shahidul Karim, currently serving as Chief of Protocol in the Ministry of Foreign Affairs, as the new Ambassador of Bangladesh to Bhutan.

            Ambassador designate Mr. Karim is a career foreign service officer, belonging to 18th batch of Bangladesh Civil Service (BCS) Foreign Affairs cadre. In his distinguished diplomatic career, he served in various capacities at Bangladesh Missions in Stockholm, Cairo and London. He also served as Consul General in Jeddah.

            AKM Shahidul Karim graduated in Electrical and Electronic Engineering from Bangladesh University of Engineering & Technology (BUET). He also participated in executive programme on trade negotiations at Nanyang Technological University, Singapore as well as completed Japanese Language Course at Kansai Kokusai Center in Osaka, Japan. 

            He is married and blessed with two sons.

#

Foreign Affairs/Mahmud/Rafiqul/Joynul/2019/1720hours

তথ্যবিবরণী                                                                                                                            নম্বর : ৪৬০৯

সরকারিভাবে ধান ও চাল সংগ্রহে কৃষক-সহ সকলের সহযোগিতা প্রয়োজন

                                                                           --- খাদ্যমন্ত্রী

নওগাঁ, ঢাকা, ২০ অগ্রহায়ণ (৫ ডিসেম্বর) :

            খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেছেন, সরকারি গুদামে আমন মৌসুমের ধান সংগ্রহ চলছে। শিগগিরিই চাল কেনা শুরু হবে। এরপর উৎপাদন, চাহিদা ও মজুতের হিসাব করা হবে। অধিক উদ্বৃত্ত হলে চাল রপ্তানি করবে সরকার। তিনি বলেন, খাদ্য বিভাগ ছাড়াও স্থানীয় প্রশাসন ও কৃষি বিভাগের কর্মকর্তাদের সমন্বয়ে সঠিক চাষি তালিকা তৈরি ও সেই তালিকা ধরে ধান সংগ্রহ হচ্ছে। কোথাও কৃষকের আবেদন বেশি জমা পড়লে প্রশাসন ও কৃষকের উপস্থিতিতে কৃষকের সামনেই লটারির মাধ্যমে কৃষক বাছাই করা হচ্ছে।

            আজ নওগাঁর সাপাহার উপজেলা খাদ্যগুদামে ধান সংগ্রহ পরিদর্শনে গিয়ে তিনি এসব কথা বলেন। এ সময় গুদামে আগত কৃষকদের সাথে কথা বলেন ও ধান দেখে সন্তোষ প্রকাশ করেন খাদ্যমন্ত্রী। সরকারিভাবে ধান ও চাল সংগ্রহে কৃষকসহ সকলকে সহযোগিতা করার আহ্বান জানান খাদ্যমন্ত্রী।

            মন্ত্রী বলেন, কৃষকের স্বার্থ রক্ষায় সরকার শস্য ক্রয়নীতিতে পরিবর্তন এনেছে। ইতোপূর্বে কখনই আমনের ধান কেনা হয়নি। এবার ৬ লাখ টন ধান কেনা হচ্ছে। সেই ধান সরাসরি কৃষকের কাছ থেকে সংগ্রহ চলছে। স্বচ্ছ প্রক্রিয়ার মধ্যদিয়ে ধান সংগ্রহ করা হচ্ছে মন্তব্য করে মন্ত্রী বলেন, দালাল, ফড়িয়া বা মধ্যস্বত্বভোগীরা যাতে কৃষকের ধানে ফায়দা লুটতে না পারে সেজন্য সংগ্রহের শুরুতেই নানামুখী পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। খাদ্য বিভাগের কর্মকর্তা কর্মচারীদেরকে সতর্ক করা হয়েছে। কোনো অনিয়ম হলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

            গুদাম পরিদর্শনকালে জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক জিএম ফারুক হোসেন পাটোয়ারী ও স্থানীয় প্রশাসনের কর্মকর্তারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

#

সুমন/ফারহানা/মোশারফ/জয়নুল/২০১৯/১৯০০ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                                               নম্বর : ৪৬০৮

 

সকল নাগরিকের সমান অধিকার নিশ্চিত করা হচ্ছে

                                     --- সমবায় প্রতিমন্ত্রী

ঢাকা, ২০ অগ্রহায়ণ (৫ ডিসেম্বর) :

            পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য বলেছেন, সরকার দেশের সংবিধান অনুযায়ী সকল নাগরিকের সমান সুযোগ নিশ্চিত করে পিছিয়ে থাকা জনগোষ্ঠীকে উন্নয়নের মূল ধারায় সম্পৃক্ত করতে নানামুখী পদক্ষেপ গ্রহণ ও বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে।

            আজ বিশ্ব মর্যাদা দিবস উপলক্ষে রাজধানীর শিশু একাডেমি অডিটোরিয়ামে ‘বৈষম্য বিলোপ সংক্রান্ত আইন চাই’ শীর্ষক আলোচনা সভা ও হরিজন সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন। হরিজন ঐক্য পরিষদের সভাপতি বাবু কৃষ্ণ লাল এতে সভাপতিত্ব করেন।

            প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, সমাজের প্রতিটি মানুষেরই সুস্থ, সুন্দর ও স্বাধীনভাবে বাঁচার অধিকার রয়েছে । দেশের সব শ্রেণির নাগরিককেই সমান সুযোগ দিতে হবে। সকলের সম্মিলিত প্রচষ্টো ছাড়া দেশের উন্নয়ন সম্ভব  নয়। দল-মত-নির্বিশেষে সবার সমান সুযোগ নিশ্চিত করতে হবে।

#

আহসান/মাহমুদ/রফিকুল/জয়নুল/২০১৯/১৮৫০ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                              নম্বর : ৪৬০৭

সিরামিক পণ্য রপ্তানিতে সহায়তা বাড়াবে সরকার

                                          --- বাণিজ্যমন্ত্রী

ঢাকা, ২০ অগ্রহায়ণ (৫ ডিসেম্বর) :

            বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেছেন, সিরামিক পণ্য রপ্তানিতে সহায়তা বাড়াবে সরকার। বাংলাদেশের সিরামিক পণ্য বিশ^বাজারে ইতোমধ্যে ব্যাপক পরিচিতি লাভ করেছে। উন্নত বিশ্বে বাংলাদেশের তৈরি সিরামিকের চাহিদা দিন দিন বাড়ছে। সিরামিকের গুণগতমান ও নির্মাণ শৈলী ব্যবহারকারীদের আকর্ষণ করছে। বাংলাদেশ সরকার তৈরি পোশাকের পাশাপাশি যে সকল পণ্য রপ্তানিতে বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছে তার মধ্যে অন্যতম সিরামিক পণ্য।

            মন্ত্রী আজ বাংলাদেশ সিরামিক ম্যান্যুফ্যাকচারার্স এন্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন আয়োজিত ঢাকার ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় তিন দিনব্যাপী  ‘সিরামিক এক্সপো-২০১৯’ এর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।

            মন্ত্রী বলেন, সিরামিক পণ্য তৈরির জন্য কাঁচামাল ছাড়া অত্যাধুনিক পরিবেশবান্ধব ফ্যাক্টরি, গ্যাস-বিদ্যুৎ এবং সহজলভ্য দক্ষ শ্রমিক বাংলাদেশে আছে। বিশে^র যে কোনো দেশের সাথে প্রতিযোগিতা করে বাজারে টিকে থাকার সক্ষমতা বাংলাদেশ অর্জন করেছে। সিরামিক শিল্পকে আরো লাভজনক ও রপ্তানিমুখী করতে সরকার সবধরনের সহযোগিতা প্রদান করে যাচ্ছে।

            উল্লেখ্য, এবার ২০টি দেশের ১২০টি প্রতিষ্ঠান প্রায় ১৫০টি ব্রান্ড নিয়ে এক্সপোতে অংশ নিয়েছে।

৫০ টিরও বেশি দেশে বাংলাদেশের সিরামিক পণ্য রপ্তানি করে আয় হচ্ছে প্রায় ৫ কোটি ডলার। বর্তমানে সিরামিক শিল্পে প্রায় সাড়ে ৮ হাজার কোটি টাকার বিনিয়োগ রয়েছে। এ শিল্পে দেশের প্রায় ৫ লাখ মানুষের কর্মসংস্থান হয়েছে।

            বাংলাদেশ সিরামিক ম্যান্যুফ্যাকচারার্স এন্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মোঃ সিরাজুল ইসলাম মোল্লর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন এফবিসিসিআই’র প্রেসিডেন্ট শেখ ফজলে ফাহিম এবং অ্যাসোসিয়েশনের মহাসচিব ইরফান উদ্দিন।

#

বকসী/ফারহানা/রফিকুল/জয়নুল/২০১৯/১৮৩০ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                                   নম্বর : ৪৬০৬

 

আন্দোলনের নামে অরাজকতা করলে জনগণ প্রতিহত করবে

                                                           --- তথ্যমন্ত্রী

ঢাকা, ২০ অগ্রহায়ণ (৫ ডিসেম্বর) :

            তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক ড. হাছান মাহ্‌মুদ বলেছেন, বিএনপি যদি আন্দোলনের নামে অরাজকতা সৃষ্টির অপচেষ্টা করে, জনগণ তা প্রতিহত করবে।

            মন্ত্রী আজ দুপুরে রাজধানী ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির কার্যালয়ে আগামী ২০-২১ ডিসেম্বর আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলন উপলক্ষে ওয়েবসাইট council.albd.org উদ্বোধন অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে একথা বলেন। তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মোঃ

b72842c53c603c0adc0f6c3d48b22b08.docx b72842c53c603c0adc0f6c3d48b22b08.docx

Share with :

Facebook Facebook