তথ্য অধিদফতর (পিআইডি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২০ মে ২০২২

তথ্যবিবরণী ২০ মে ২০২২

তথ্যবিবরণী                                                                                               নম্বর : ২০৩১

 

ধর্মীয় সম্প্রীতি রক্ষায় সজাগ ও ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে

                                             -- কৃষিমন্ত্রী

 

ঢাকা, ৬ জ্যৈষ্ঠ (২০ মে) :

 

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বর্তমান সরকারের সময়োপযোগী পদক্ষেপের ফলেই করোনা মহামারি ও রাশিয়া- ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে বিশ্বব্যাপী চলমান এই চরম দুঃসময়েও দেশে এখন পর্যন্ত খাদ্য সংকট হয়নি বলে মন্তব্য করেছেন কৃষিমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ড. মোঃ আব্দুর রাজ্জাক।

 

আজ ঢাকায় একটি হোটেলে লায়ন্স ক্লাব বাংলাদেশের ২৯তম বার্ষিক কনভেনশনের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে কৃষিমন্ত্রী এসব কথা বলেন। 

 

পরে সন্ধ্যায় মন্ত্রী ঢাকার নারিন্দায় শ্রী শ্রী মাধব গৌড়ীয় মঠের শতবর্ষ উদ্‌যাপনের সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে অংশগ্রহণ করেন। সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী আশরাফ আলী খান খসরু, স্থানীয় সংসদ সদস্য কাজী ফিরোজ রশিদ, মঠের সভাপতি গিরিধারী লালমোদি প্রমুখ অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন।

 

মন্ত্রী এ সময় বলেন, দেশে শান্তি বিরাজমান আছে, মানুষের নিরাপত্তা আছে; কোনো হরতাল ভাঙচুর নেই। এই শান্তি স্থিতিশীলতাকে ধরে রাখতে হবে। বিএনপি মানুষকে জিম্মি করে, ধর্মের নামে মানুষকে বিভ্রান্ত করে আন্দোলনের মাধ্যমে ক্ষমতায় আসতে চায়, সেটি করতে দেয়া হবে না। এ ব্যাপারে সবাইকে সজাগ থাকতে হবে।

 

ধর্মীয় সম্প্রীতি রক্ষায় সকলকে সজাগ ও ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, আওয়ামী লীগ সাম্প্রদায়িকতাকে কখনো লালন করেনি। সাম্প্রদায়িকতাকে ব্যবহার করে রাজনীতি করে না। অপরদিকে বিএনপি সবসময় সাম্প্রদায়িকতাকে ব্যবহার করে রাজনীতি করে এবং ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের নির্যাতন করে।

 

মন্ত্রী বলেন, মৌলবাদী, ধর্মান্ধ ও ধর্মকে ব্যবহার করে ক্ষমতায় আসার সুযোগসন্ধানীরা এখনও তৎপর। সেজন্য সকল ধর্মের বর্ণের মানুষের মধ্যে সম্প্রীতি রক্ষায় আমাদের সকলকে সচেতন ও ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে। সকলে মিলে একত্র হয়ে সম্প্রীতি রক্ষায় কাজ করতে হবে।

 

#

 

কামরুল/নাইচ/রফিকুল/সেলিম/২০২২/২২১৫ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                               নম্বর : ২০৩০

 

নানা মাধ্যমে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস নতুন প্রজন্মের মাঝে ছড়িয়ে দিতে হবে

                                                            -- সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী

 

ঢাকা, ৬ জ্যৈষ্ঠ (২০ মে) :

 

সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ বলেছেন, নানা মাধ্যমে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসকে ছড়িয়ে দেয়ার যে লক্ষ্য নিয়ে গণহত্যা জাদুঘর কাজ শুরু করেছিল, ভাস্কর্য প্রদর্শনী তেমন এক সৃজনশীল মাধ্যম। এর মাধ্যমে আগত পরিদর্শনকারীরা এক নতুন আবহে মুক্তিযুদ্ধ ও গণহত্যাকে অনুভব করতে পারবেন। নানা মাধ্যমে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস নতুন প্রজন্মের মাঝে ছড়িয়ে দিতে হবে।

 

প্রতিমন্ত্রী আজ রাজধানীর বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘরের নলিনীকান্ত ভট্টশালী প্রদর্শনী গ্যালারিতে গণহত্যা জাদুঘরের অষ্টম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে ১৯৭১: গণহত্যা-নির্যাতন আর্কাইভ ও জাদুঘর ট্রাস্ট আয়োজিত সপ্তাহব্যাপী গণহত্যা-নির্যাতন ও মুক্তিযুদ্ধের ভাস্কর্য প্রদর্শনীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

 

গণহত্যা জাদুঘরের সভাপতি বঙ্গবন্ধু অধ্যাপক ড. মুনতাসীর মামুনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি হিসাবে বক্তৃতা করেন ১৯৭১: গণহত্যা-নির্যাতন আর্কাইভ ও জাদুঘর ট্রাস্টের সহ-সভাপতি বরেণ্য শিল্পী হাশেম খান। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন ট্রাস্টের সম্পাদক ড. চৌধুরী শহীদ কাদের।

 

‘গণহত্যা ৭১: পঞ্চ-ভাস্করের যাত্রা’ শীর্ষক ভাস্কর্য প্রদর্শনীতে যে পাঁচজন ভাস্করের ভাস্কর্য স্থান পেয়েছে তারা হলেন- রেহানা ইয়াসমিন, ফারজানা ইসলাম মিলকি, রবিউল ইসলাম, মুক্তি ভৌমিক ও সিগমা হক।

 

উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে প্রতিমন্ত্রী ভাস্কর্য প্রদর্শনী ঘুরে দেখেন। উল্লেখ্য, ২০ থেকে ২৭ মে প্রতিদিন সকাল সাড়ে ১০টা হতে বিকাল ৫টা পর্যন্ত এ প্রদর্শনী চলবে।

 

পরে প্রতিমন্ত্রী বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় সংগীত, আবৃত্তি ও নৃত্যকলা কেন্দ্র মিলনায়তনে গৌরবের পাঁচশত পর্ব উপলক্ষ্যে শুদ্ধ সংস্কৃতি চর্চা কেন্দ্র ‘সোনার তরী’ আয়োজিত আলোচনা সভা, সম্মাননা প্রদান ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন।

 

#

 

ফয়সল/নাইচ/রফিকুল/সেলিম/২০২২/২১৩০ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                              নম্বর : ২০২৯

সিঙ্গাপুরে ডিজিটাল ইনোভেশন কংগ্রেসে আইসিটি প্রতিমন্ত্রী

স্মার্ট বাংলাদেশের কর্মপরিকল্পনা ও ডিজিটাল বাংলাদেশের সফলতা উপস্থাপন

 

ঢাকা, ৬ জ্যৈষ্ঠ (২০ মে) :

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্‌মেদ পলক আজ সিঙ্গাপুরে ‘হুয়াওয়ে এশিয়া প্যাসিফিক ডিজিটাল ইনোভেশন কংগ্রেস ২০২২’ এ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ও আইসিটি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের তত্ত্বাবধানে ২০৪১ সালের মধ্যে জ্ঞানভিত্তিক, উদ্ভাবনী, উন্নত অর্থনীতির স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণের কর্মপরিকল্পনা তুলে ধরেন। এ সময় তিনি ডিজিটাল বাংলাদেশের সফলতাও তুলে ধরেন।

সিঙ্গাপুরের ম্যারিনা বে সেন্ড হোটেলে চলমান কংগ্রেসের দ্বিতীয় দিনের প্রথম টেকনিক্যাল সেশনে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপনকালে প্রতিমন্ত্রী এসব বিষয় তুলে ধরেন।

প্রতিমন্ত্রী এ সময় বলেন, ২০৩১ সালের মধ্যে এসডিজি লক্ষ্যমাত্রা অর্জন ও উচ্চ-মধ্যম আয় নিশ্চিতকরণ এবং ২০৪১ সাল নাগাদ জ্ঞানভিত্তিক, উন্নত অর্থনীতির, সমৃদ্ধ দেশে রূপান্তরের লক্ষ্যে বিভিন্ন কর্মসূচি হাতে নেয়া হয়েছে । এর ফলে মাথাপিছু আয় বেড়ে দাঁড়াবে ১২ হাজার ৫০০ ডলার। গড়ে উঠবে স্মার্ট বাংলাদেশ। এসব কর্মসূচি বাস্তবায়নের মাধ্যমে বাংলাদেশের কৃষি, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, পরিবহন, যোগাযোগের ক্ষেত্রে দ্রুত পরিবর্তন আসবে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ডিজিটাল দুনিয়ায় বাংলাদেশের সার্বভৌমত্ব অক্ষুণ্ণ রাখতে এরই মধ্যে সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের মধ্যে ডিজিটাল সেতুবন্ধ রচনায় একটি সুরক্ষিত ক্লাউড অবকাঠামো তৈরি করেছে আইসিটি বিভাগ। এই অবকাঠামোতে ইতোমধ্যেই ৩০টির বেশি বিভাগ, ৫০টির বেশি প্রকল্প অন্তর্ভুক্ত হয়েছে। ৫০ শতাংশ দক্ষতার উন্নয়ন ঘটেছে। আইটিইউ এর গ্লোবাল সাইবার সিকিউরিটি সূচকে ২৫ ধাপ এগিয়েছে বাংলাদেশ।

জুনাইদ আহ্‌মেদ পলক আরো বলেন, বাংলাদেশের আইটি ও আইটিএস খাতে বিনিয়োগকারীদের আস্থা এখন ক্রমেই বাড়ছে। ২০১০ সাল থেকে প্রতি বছর গড়ে ১০ শতাংশ করে প্রবৃদ্ধি হয়েছে। এর মধ্যে ই-কমার্স খাতে প্রবৃদ্ধি হয়েছে ৬২৪ শতাংশ। দেশের ৭২ শতাংশ লেনদেন মোবাইল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিসের মাধ্যমে হওয়ায় ডিজিটাল অর্থনীতিতে প্রবৃদ্ধি হয়েছে ৫০০ শতাংশ। দেশের ২৫০০টির বেশি স্টার্টআপ দেশে একটি উদ্যোক্তা সংস্কৃতি প্রতিষ্ঠা করেছে। এর মধ্যে ৭০ শতাংশই প্রযুক্তিনির্ভর উদ্যোক্তা।

স্বাধীনতার স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্ন ও মতাদর্শ অর্থনৈতিকভাবে উন্নত ও শোষণমুক্ত সমাজ প্রতিষ্ঠায় সরকার কাজ করছে উল্লেখ করে পলক বলেন, স্মার্ট বাংলাদেশ রূপকল্প বাস্তবায়নের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সকলকে সাথেই নিয়েই বাংলাদেশ একটি উন্নত দেশে রূপান্তরিত হবে।

সম্মেলনে বিভিন্ন দেশের মন্ত্রী, সরকারি ও বেসরকারি নীতিনির্ধারণী ব্যক্তিবর্গ অংশগ্রহণ করেন।

 

                                                        #

শহিদুল/রাহাত/মোশারফ/আব্বাস/২০২২/১৮৪২ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                   নম্বর : ২০২৮

শেখ হাসিনার হাতেই বাংলাদেশ নিরাপদ

                                 ---খাদ্যমন্ত্রী

নওগাঁ (সাপাহার), ৬ জ্যৈষ্ঠ (২০ মে) :

খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতেই বাংলাদেশ নিরাপদ। অন্য কোনো ব্যক্তি বা দলের নেতার কাছে বাংলাদেশ নিরাপদ নয়। শেখ হাসিনার চেয়ে বেশি উন্নয়ন করাও সম্ভব নয়।

আজ নওগাঁর সাপাহার পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট (অনূর্ধ্ব ১৭) এর ফাইনাল খেলা শেষে পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন মন্ত্রী।

খাদ্যমন্ত্রী বলেন, এক সময়ের জনপ্রিয় খেলা ফুটবল বিলুপ্ত হওয়ার পথে বসেছিল। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্ষমতায় আসার পর প্রাথমিক ও মাধ্যমিক পর্যায়ে বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট চালু করেন। এখন ফুটবল আবার গ্রামে-গঞ্জে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। তিনি বলেন, আমাদের নতুন প্রজন্মরা লেখাপড়ার পাশাপাশি খেলাধুলা করে নিজেদের শরীরটাকে যেমন গঠন করবে তেমনি মাদক থেকেও দূরে থাকবে। নিজেকে একজন সুনাগরিক হিসেবে গড়ে তুলবে।

এ সময় বিএনপির নেতাকর্মীদের উদ্দেশে মন্ত্রী বলেন, যারা সারের জন্য, বিদ্যুতের জন্য মানুষকে গুলি করে মেরেছে তারা নাকি অন্দোলন করবে। কি আশ্বাস তারা মানুষকে দেবে এ প্রশ্ন রাখেন খাদ্যমন্ত্রী।

এছাড়া বর্তমান বাজার পরিস্থিতি নিয়ে মন্ত্রী বলেন, আমদানি করা জিনিসের দাম সারা বিশ্বে যদি বাড়ে তাহলে আমাদেরও বাড়বে। এখানে আমাদের কিছু করার নাই। আমাদের সাশ্রয়ী হতে হবে, মিতব্যয়ী ও স্বাবলম্বী হতে হবে। তাহলেই সুখী সমৃদ্ধশালী উন্নত বাংলাদেশ গড়ে উঠবে।

সাপাহার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আব্দুল্যাহ আল মামুনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শাহজাহান হোসেন মন্ডল। এ সময় কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ শাপলা খাতুন, উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মুহাঃ রুহুল আমিন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শামসুল আলম শাহ চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক মাসুদ রেজা সারওয়ার, সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা ওমর আলী মোল্লাসহ উপজেলা প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

শেষে খেলায় বিজয়ী দল পাতাড়ী ইউনিয়ন ফুটবল একাদশ এবং রানার্সআপ শিরন্টী ইউনিয়ন ফুটবল একাদশের অধিনায়ক ও সংশ্লিষ্ট ইউপি চেয়ারম্যানদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন মন্ত্রী।

 

#

কামাল/রাহাত/মোশারফ/আব্বাস/২০২২/১৮৩৭ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                             নম্বর : ২০২৭

শুধু পুঁথিগত শিক্ষা বা সার্টিফিকেট অর্জন না করে প্রকৃত শিক্ষায় শিক্ষিত হতে হবে

                                                          ---মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী

 

পিরোজপুর, ৬ জ্যৈষ্ঠ (২০ মে) :

 

শুধু পুঁথিগত শিক্ষা বা সার্টিফিকেট অর্জন না করে প্রকৃত শিক্ষায় শিক্ষিত হওয়ার জন্য শিক্ষার্থীদের আহ্বান জানিয়েছেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম।

আজ পিরোজপুরের নেছারাবাদে শহীদ স্মৃতি কলেজ মিলনায়তনে বঙ্গবন্ধু বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, পিরোজপুর চূড়ান্ত অনুমোদন পাওয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে কৃতজ্ঞতা এবং মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রীকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন উপলক্ষ্যে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এ আহ্বান জানান।

এ সময় মন্ত্রী বলেন, শুধু পুঁথিগত শিক্ষা বা সার্টিফিকেট অর্জনই প্রকৃত শিক্ষা নয়। শিক্ষার্থীদের নৈতিকতা ও মূল্যবোধ সবচেয়ে বেশি ধারণ করতে হবে। শিক্ষার্থীরা যতো আদর্শ ও নৈতিক চরিত্রের অধিকারী হবে তাদের জীবন ততো বিকশিত হবে। তিনি বলেন, সমাজের অনেক শিক্ষিত ব্যক্তি মাদকাসক্ত হয়ে পড়ছে, হীনকর্মকাণ্ড করছে। তারা সমাজের জন্য সম্পদ নয়, বোঝা। এজন্য শিক্ষার্থীদের আদর্শ শিক্ষায় শিক্ষিত হতে হবে। যাতে ভবিষ্যতে তারা দেশের নেতৃত্ব দিতে পারে। এ সময় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের আদর্শ চরিত্রের ও মানসিকতাসম্পন্ন মানুষ হওয়ার এবং মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী হওয়ার শিক্ষা প্রদানের জন্যও শিক্ষকদের প্রতি আহ্বান জানান মন্ত্রী।

মন্ত্রী আরো যোগ করেন, মেয়েরা যত শিক্ষিত হবে দেশ ততো উন্নত হবে। বর্তমান সরকার নারীর ক্ষমতায়নে অব্যাহতভাবে কাজ করছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, বর্তমানে সংসদ নেতা শেখ হাসিনা একজন নারী, জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী একজন নারী। দেশের শিক্ষা মন্ত্রী নারী, বিরোধী দলীয় নেতা নারী।

শহীদ স্মৃতি কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ ও সাবেক সংসদ সদস্য মোঃ শাহ আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে নেছারাবাদ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ মোশারেফ হোসেন, নেছারাবাদ সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার মোঃ রিয়াজ হোসেন, পিরোজপুর জেলা যুবলীগের সভাপতি আখতারুজ্জামান ফুলু, নেছারাবাদ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হামিদ, সাধারণ সম্পাদক এস এম ফুয়াদ, শহীদ স্মৃতি কলেজের শিক্ষকবৃন্দ ও পরিচালনা পর্ষদের সদস্যবৃন্দ, স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানবৃন্দ এবং আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের স্থানীয় নেতৃবৃন্দ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে নেছারাবাদ উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গণে মৎস্য অধিদপ্তরের বাস্তবায়নাধীন ইলিশ সম্পদ উন্নয়ন ও ব্যবস্থাপনা প্রকল্পের আওতায় জেলেদের বিকল্প কর্মসংস্থানের লক্ষ্যে উপকরণ সহায়তা হিসেবে গবাদিপশু বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে যোগ দেন মন্ত্রী ।

 

#

ইফতেখার/রাহাত/আব্বাস/২০২২/১৭৪০ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                  নম্বর : ২০২৬

কোভিড-১৯ সংক্রান্ত সর্বশেষ প্রতিবেদন

 

ঢাকা, ৬ জ্যৈষ্ঠ (২০ মে) :

 

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর এবং রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর)-এর তথ্যানুযায়ী গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা থেকে শুক্রবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ৫০ জনের শরীরে করোনা সংক্রমণ পাওয়া গেছে। নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে রোগী শনাক্তের হার শূন্য দশমিক ৮০ শতাংশ। এ সময়
৬ হাজার ৩১৩ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে।    

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় কেউ মারা যায়নি। এ পর্যন্ত ২৯ হাজার ১২৭ জন করোনায় মৃত্যুবরণ করেছেন। করোনাভাইরাস আক্রান্তদের মধ্যে এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ১৯ লাখ ৫৭৫ জন।

#

কবীর/রাহাত/মোশারফ/আব্বস/২০২২/১৭২১ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                                      নম্বর : ২০২৫

 

টেলিভিশনে স্ক্রল আকারে প্রচারের জন্য

সকল ইলেকট্রনিক মিডিয়া

 

ঢাকা, ৬ জ্যৈষ্ঠ (২০ মে) :

 

সরকারি-বেসরকারি টিভি চ্যানেলসহ সকল ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় নিম্নোক্ত বার্তাটি স্ক্রল আকারে প্রচারের জন্য অনুরোধ করা হলো : 

 

মূলবার্তা :

স্বাধীনতা পুরস্কারপ্রাপ্ত বিশিষ্ট পদার্থবিজ্ঞানী ড. এ এম চৌধুরীর নামাজে জানাজা আগামীকাল ২১ মে (শনিবার) বাদ আসর ধানমন্ডি তাকওয়া জামে মসজিদে অনুষ্ঠিত হবে।

#

মেহেদী/শামীম/২০২২/১৩৪৩ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                      নম্বর : ২০২৪

বিশিষ্ট পদার্থবিজ্ঞানী ড. এ এম চৌধুরীর মৃত্যুতে আইসিটি প্রতিমন্ত্রীর শোক

ঢাকা, ৬ জ্যৈষ্ঠ (২০ মে) :

স্পারসোর সাবেক চেয়ারম্যান ও বিসিসির সাবেক নির্বাহী পরিচালক, বিশিষ্ট পদার্থবিজ্ঞানী ড. এ এম চৌধুরীর মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

আজ এক শোকবার্তায় প্রতিমন্ত্রী মরহুমের রুহের মাগফেরাত কামনা করেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

#

শহিদুল/মেহেদী/শামীম/২০২২/১৩৪৩ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                 নম্বর : ২০২৩

অভিবাসীদের জীবন বাঁচাতে এবং ঝুঁকি ও ক্ষয়ক্ষতি কমাতে বিশ্বব্যাপী প্রচেষ্টা বাড়াতে হবে

                                                                                                                    -পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী

নিউইয়র্ক, ২০ মে :

সঙ্কটময় পরিস্থিতিতে আটকে পড়া অভিবাসীসহ সকল অভিবাসীদের অভিবাসন যাত্রার সময় জীবন বাঁচাতে এবং ঝুঁকি ও ক্ষয়ক্ষতি কমাতে আমাদের অবশ্যই বিশ্বব্যাপী প্রচেষ্টা বাড়াতে হবে। গতকাল জাতিসংঘ সদরদপ্তরে অনুষ্ঠিত আন্তর্জাতিক অভিবাসন পর্যালোচনা ফোরামের (আইএমআরএফ) সাধারণ বিতর্ক পর্বে প্রদত্ত ভাষণে একথা বলেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম। কোনও পরিস্থিতিতে যাতে অভিবাসীদের জোর করে ফেরত পাঠানো না হয় সেবিষয়ে ট্রানজিট এবং গন্তব্যের দেশগুলির প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

জলবায়ুজনিত অভিবাসনকে একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হিসেবে তুলে ধরে তিনি বলেন, সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা বৃদ্ধি, নদীভাঙন বা খরার কারণে লাখ লাখ বাস্তুচ্যুত মানুষের দুর্দশাকে অভিবাসন ও জলবায়ু পরিবর্তন- এই উভয় আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে রাখতে হবে।

তিনি সমুদ্রে দুর্দশায় পতিত অভিবাসীদের অনুসন্ধান ও উদ্ধারের জন্য সদস্য রাষ্ট্রগুলির যে বাধ্যবাধকতা রয়েছে তা পূরণ করার উপর গুরুত্বারোপ করেন। সাধারণ বিতর্কে তিনি বলেন, ‘আমাদের নৌবাহিনী আমাদের সমুদ্র উপকূল থেকে মিয়ানমার কর্তৃক জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গাদের উদ্ধার করেছে’।

সাধারণ বিতর্ক পর্বটির সভাপতিত্ব করেন জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি রাষ্ট্রদূত রাবাব ফাতিমা।

প্রতিমন্ত্রী মাইগ্রেশন রিভিউ ফোরামে বাংলাদেশের একটি উচ্চ পর্যায়ের প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন। তিনি ডোমিনিকার পরিকল্পনা, অর্থনৈতিক উন্নয়ন, জলবায়ু স্থিতিস্থাপকতা, টেকসই উন্নয়ন ও নবায়নযোগ্য শক্তি মন্ত্রী ডঃ ভিন্স হেন্ডারসন এবং ইউরোপীয় কমিশনের স্বরাষ্ট্র বিষয়ক কমিশনার মিসেস ইলভা জোহানসন এর সাথে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করেন। বৈঠকসমূহে প্রতিমন্ত্রী ২০২৩-২৫ মেয়াদের জন্য মানবাধিকার কাউন্সিল নির্বাচনে বাংলাদেশের প্রার্থীতাসহ পারস্পরিক স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন।

একটি অগ্রগতি ঘোষণা গ্রহণের মাধ্যমে ফোরামটি ২০ মে ২০২২ শেষ হবে।

#

মেহেদী/শামীম/২০২২/১২৪৬ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                 নম্বর : ২০২২

কান উৎসবে 'মুজিব t একটি জাতির রূপকার' বায়োপিকের ট্রেলার উদ্বোধন

ঢাকা, ৬ জ্যৈষ্ঠ (২০ মে) :

কান চলচ্চিত্র উৎসবে ‘মুজিব t একটি জাতির রূপকার’ (Mujib : The Making of a Nation) চলচ্চিত্রটির ট্রেলার উদ্বোধনের মাধ্যমে বিশ্ব সিনেমা অঙ্গনে ধ্বনিত হলো বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকের আগমন বার্তা।

ফ্রান্সে বিশ্বখ্যাত কান ফিল্ম ফেস্টিভ্যালের ৭৫তম আসরের তৃতীয় দিন বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৬ টায় ভারতীয় প্যাভিলিয়নে বাংলাদেশ-ভারত যৌথ উদ্যোগে নির্মিত এই বায়োপিকের ট্রেলার উদ্বোধন করেন তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ এবং ভারতের তথ্য ও সম্প্রচার এবং যুব বিষয়ক ও ক্রীড়া মন্ত্রী অনুরাগ সিং ঠাকুর। 

তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ তার বক্তৃতায় বলেন, চলচ্চিত্রটিতে আমাদের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবন, জাতির জন্য সংগ্রাম থেকে বিজয় ও পরম আত্মত্যাগের চিত্র ফুটে উঠেছে। 

বঙ্গবন্ধু, মহাত্মা গান্ধী, মার্টিন লুথার কিং, নেলসন ম্যান্ডেলার মতো মহান মানুষদের জীবনী একটি চলচ্চিত্রে ফুটিয়ে তোলা দুরূহ হলেও বাংলাদেশ ও ভারতের যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত এই সিনেমাটি বঙ্গবন্ধুর চেতনাকে যুগে যুগে জাগ্রত রাখবে এবং মানবতার জন্য আত্মনিবেদনের প্রেরণা যোগাবে বলেন তিনি। মন্ত্রী এজন্য বঙ্গবন্ধুর জ্যেষ্ঠ কন্যা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, কনিষ্ঠ কন্যা শেখ রেহানা, ভারত সরকার, সিনেমাটির নির্মাতা, পরিচালক, শিল্পী-কলাকুশলীসহ সবাইকে অকুন্ঠ কৃতজ্ঞতা  জানান। 

ভারতের তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী অনুরাগ সিং ঠাকুর তার বক্তৃতায় বাংলাদেশের সাথে যৌথভাবে বঙ্গবন্ধুর জীবনচিত্র নির্মাণের এ কাজকে তাদের জন্য অত্যন্ত আনন্দ ও গর্বের বলে বর্ণনা করেন। 

ফ্রান্সে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত খন্দকার মোহাম্মদ তালহা, ভারতের রাষ্ট্রদূত জাভেদ আশরাফ, ভারতের তথ্য ও সম্প্রচার সচিব অপূর্ব চন্দ্র, বায়োপিকের পরিচালক শ্যাম বেনেগাল, নির্বাহী প্রযোজক এফডিসির ব্যবস্থাপনা পরিচালক নুজহাত ইয়াসমিন, বঙ্গবন্ধুর চরিত্রাভিনেতা আরেফিন শুভ, বঙ্গমাতার চরিত্রাভিনেত্রী নুসরাত ইমরোজ তিশা, চিত্রনাট্যকার অতুল তিওয়ারি ও শামা জায়েদি,  বাংলাদেশ অংশের কাস্টিং পরিচালক বাহার উদ্দিন খেলনসহ দু'দেশের অভিনয় শিল্পীরা ও চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট  কর্মকর্তাবৃন্দ অনুষ্ঠানে অংশ নেন।  

২০২১ সালের শুরুতে সিনেমাটির চিত্রধারণ শুরু হয়। এ বছরেই ছবিটি মুক্তি পাওয়ার কথা রয়েছে। আরেফিন শুভ ও নুসরাত ইমরোজ তিশার পাশাপাশি শেখ হাসিনার চরিত্রে নুসরাত ফারিয়া, তাজউদ্দীন আহমদের চরিত্রে রিয়াজ আহমেদসহ প্রায় শতাধিক বাংলাদেশি এতে অভিনয় করেছেন।

#

আকরাম/মেহেদী/শামীম/২০২২/১২২৮ ঘণ্টা

2022-05-20-16-38-4f9cdcf72633ff79141e13a924c93c9f.doc 2022-05-20-16-38-4f9cdcf72633ff79141e13a924c93c9f.doc

Share with :

Facebook Facebook