তথ্য অধিদফতর (পিআইডি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২২nd নভেম্বর ২০১৯

তথ্যবিবরণী ২২/১১/২০১৯

তথ্যববিরণী                                                                                                   নম্বর :  ৪৪৩৪

 

পাট ও পাটজাত পণ্যের চাহিদা বৈশ্বিক বাজারে বৃদ্ধি পাবে

                                    -- রাষ্ট্রদূত মাসুদ বিন মোমেন

 

নিউইয়র্ক (যুক্তরাষ্ট্র), ২২ নভম্বের :

 

আজ ‘প্রাকৃতিক উদ্ভিজ্জ তন্তু ও টেকসই উন্নয়ন’ শিরোনামে পাট-সহ প্রাকৃতিক তন্তু ব্যবহার বিষয়ক একটি নতুন রেজুলেশন গ্রহণ করেছে জাতিসংঘ। জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের ৭৪তম অধিবেশনের ২য় কমিটিতে সর্বসম্মতিক্রমে রেজুলেশনটি গৃহীত হয়। ভারত, চীন, রাশিয়া, আয়ারল্যান্ড, কানাডা, ইন্দোনেশিয়া, সিঙ্গাপুর, তুরস্ক, মিশর, নাইজেরিয়া-সহ ৬৮টি দেশ রেজুলেশনটিকে কো-স্পন্সর করে।

 

          এটি জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের প্রথম রেজুশেলন যেখানে অর্থনৈতিক ও পরিবেশগতগতভাবে টেকসই এবং সামাজিকভাবে লাভজনক কৃষি পণ্য পাট ও অন্যান্য প্রাকৃতিক তন্তুর চ্যালেঞ্জ এবং সম্ভাব্যতা তুলে ধরা হয়েছে। টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যসমূহ অর্জনে প্রাথমিকভাবে রেজুলেশনটিতে পাট এবং অন্যান্য প্রাকৃতিক তন্তু যেমন অ্যাবাকা, কয়ার, কেনাফ, সিসাল, হেম্প ও রামি এর ব্যবহার এবং উন্নয়নের কথা বলা হয়েছে।

 

রেজুলেশনটি গ্রহণের সময় জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি রাষ্ট্রদূত মাসুদ বিন মোমেন বলেন,  রেজুলেশনটি পাট ও অন্যান্য প্রাকৃতিক তন্তুজাত পণ্যের জন্য একটি শক্তিশালী, কার্যকর ও সুনিপুন ‘গ্লোবাল ভ্যালু চেইন’ এর পথ পাকা করল। এর ফলে পাট ও পাটজাত পণ্যের চাহিদা বৈশ্বিক বাজারে বৃদ্ধি পাবে এবং বাংলাদেশের পাটচাষী ও পাট ব্যবসায়ীগণের ন্যায্যমূল্য প্রাপ্তি নিশ্চিত হবে।

 

তিনি সর্বসম্মতিক্রমে রেজুলেশনটি গ্রহণ করায় সকল সদস্য রাষ্ট্রকে ধন্যবাদ জানান।

 

স্থায়ী প্রতিনিধি আরো বলেন, এই রেজুলেশন প্রাকৃতিক তন্তু ব্যবহারের সুবিধা আর কৃত্রিম তন্তু যেমন প্লাস্টিক ব্যবহারের অসুবিধা তুলে ধরার মাধ্যমে পরিবেশগত বিপর্যয় ও জলবায়ু পরিবর্তন রোধে ভূমিকা রাখবে। এতে সদস্য দেশসমূহকে পাট ও অন্যান্য প্রাকৃতিক তন্তুর ব্যবহার বিষয়ে নতুন নতুন আইন, নীতি ও পরিকল্পনা গ্রহণের আহ্বান জানানো হয়েছে, যা একটি উল্লেখযোগ্য বিষয়।

 

#

 

জাতিসংঘ মিশন/ইসরাত/রাহাত/মোশারফ/সেলিম/২০১৯/২২০০ ঘণ্টা

তথ্যববিরণী                                                                                          নম্বর :  ৪৪৩৩

 

পয়সারহাট বাজারে অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত দোকান পরিদর্শন করেন

আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ, এমপি

 

আগৈলঝাড়া (বরিশাল), ৭ অগ্রহায়ণ (২২ নভম্বের) :

 

পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তি বাস্তবায়ন ও পরিবীক্ষণ কমিটির আহ্বায়ক (মন্ত্রী পদমর্যাদা) আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ, এমপি আগৈলঝাড়া উপজেলার পয়সারহাট বাজারে বৃহস্পতিবার রাতে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসা প্রতিষ্ঠান পরিদের্শন করেন।

 

তিনি আজ বরিশাল জেলার আগৈলঝাড়া উপজেলার পয়সারহাট বাজারে আগুনে পুড়ে যাওয়া ব্যবসা প্রতিষ্ঠানস্থলে উপস্থিত হয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দোকান মালিকদের সাথে কথা বলেন এবং সরকারের পক্ষ থেকে সকল প্রকার সাহায্য-সহযোগিতার আশ্বাস প্রদান করেন।

 

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে বরিশালের জেলা প্রশাসক এস এম অজিয়র রহমান, পুলিশ সুপার সাইফুল ইসলাম, জেলা আওয়ামী লীগের নির্বাহী সদস্য সেরনিয়াবাত আশিক আবদুল্লাহ, উপজেলা চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রইচ সেরনিয়াবাত প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। 

 

#

এনায়েত/ইসরাত/মোশারফ/সেলিম/২০১৯/২০৩০ ঘণ্টা


 

            

তথ্যবিবরণী                                                                                          নম্বর :  ৪৪৩২

 

শীঘ্রই স্থানীয় সরকার বিভা‌গকে ডি‌জিটাইজড করা হ‌বে

                                       -- স্থানীয় সরকার মন্ত্রী

 

ঢাকা, ৭ অগ্রহায়ণ (২২ নভেম্বর) :

 

স্থানীয় সরকার মন্ত্রী মোঃ তাজুল ইসলাম বলেছেন, সরকা‌রের সকল সেবা জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দি‌তে খুব শীঘ্রই স্থানীয় সরকার বিভা‌গকে ডি‌জিটাইজড করা হ‌বে। 

 

‌‌          মন্ত্রী আজ রাজধানীর আগারগাঁও‌য়ে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অ‌ধিদপ্ত‌রে সাত দিনব্যাপী ’ডি‌জিটাল সা‌র্ভিস, ডিজাইন ল্যাব’ কার্যক্রমের সমাপনী অনুষ্ঠা‌নে প্রধান অতিথির বক্তবে একথা ব‌লেন।

 

          মন্ত্রী ব‌লেন, ‌দে‌শের উন্নয়‌নে সং‌শ্লিষ্ট সবার অংশগ্রহণ নি‌শ্চিত করা সম্ভব হ‌লে বি‌শ্বের উন্নত দে‌শগু‌লোর সাথে পাল্লা দি‌য়ে এগি‌য়ে যা‌বে ডি‌জিটাল বাংলা‌দেশ। অনুষ্ঠা‌নে ডি‌জিটাল সা‌র্ভিস রোডম্যাপ ও ডি‌জিটাল সা‌র্ভিস ডিজাইন ল্যাব এর পটভূ‌মি এবং প‌রিকল্পনা তু‌লে ধ‌রা হয়। অনুষ্ঠা‌নে অংশগ্রহণকারী‌দের প‌ক্ষে ‌ডিজাইনকৃত জনবান্ধব সম‌ন্বিত স্থানীয় সরকার ডি‌জিটাল সা‌র্ভিস প্ল্যাটফর্ম বিষ‌য় উপস্থাপন করা হয়।

 

উল্লেখ্য, ‌ডি‌জিটাল বাংলা‌দেশ বি‌নির্মাণের লক্ষ্যে এ বছরের শুরু থে‌কে ডি‌জিটাল সা‌র্ভিস ডি‌জিাইন ল্যা‌বের মাধ্যমে ২০টি মন্ত্রণাল‌য়ের ৬২৮টি সেবা‌কে ডি‌জিটাল সা‌র্ভি‌সের ডিজাইন এবং বাস্তবায়‌নের প‌রিকল্পনা করা সম্ভব হ‌য়ে‌ছে। স্থানীয় সরকার বিভা‌গের ১৪টি সংস্থার ১২৮টি সেবা ডিজাইন ল্যা‌বের মাধ্যমে ডিজাইন ও প‌রিকল্পনা করা হ‌য়ে‌ছে। ফ‌লে প্রতি বছর স্থানীয় সরকা‌র বিভা‌গের সাশ্রয় হ‌বে ১১০০ কো‌টি টাকা।

 

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তথ্য ও যোগা‌যোগ প্রযু‌ক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্‌মেদ পলক ব‌লেন, ২০২১ সা‌লের ম‌ধ্যে ২ হাজার ৮শ’ সেবার ম‌ধ্যে ২ হাজার ২শ’ সেবা ডি‌জিটাইজড করা হ‌বে। তিনি সরকা‌রের সকল সেবা জনগণের কাছে পৌ‌ছে দি‌তে মাই গভর্ন‌মেন্ট না‌মে এক‌টি ই‌ন্টি‌গ্রেটেড প্ল্যাটফর্ম তৈ‌রির ওপর গুরুত্বা‌রোপ ক‌রেন। 

 

স্থানীয় সরকার বিভাগের অতিরিক্ত স‌চিব রোকসানা কাদেরের সভাপ‌তি‌ত্বে অনুষ্ঠা‌নে অন্যা‌ন্যের ম‌ধ্যে আই‌সি‌টি বিভাগের সিনিয়র স‌চিব এন এম জিয়াউল আলম, স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অ‌ধিদপ্ত‌রের প্রধান প্রকৌশলী মোঃ খ‌লিলুর রহমান, ইউএন‌ডি‌পির আবা‌সিক প্রতি‌নি‌ধি সুদীপ্ত মুখার্জী, এটুআই‌য়ের প‌লি‌সি এডভাইজার আনীর চৌধুরী বক্তব্য রা‌খেন।

 

২০২১ সা‌লের ম‌ধ্যে ২০০০টি সেবার ম‌ধ্যে ১০০০টি গভর্নমেন্ট টু সি‌টি‌জেন এবং গভর্নমেন্ট টু বিজনেস নতুন ডি‌জিটাল সেবা জনগণের জন্য উন্মুক্ত করা সম্ভব হ‌বে। ফ‌লে সময় ও অর্থ সাশ্রয় হওয়ার পাশাপা‌শি ব্যবস্থাপনা, নিয়ন্ত্রণ এবং বাস্তবায়ন সহজ ও কার্যকর হ‌বে।

#

 

হাসান/ইসরাত/মোশারফ/সেলিম/২০১৯/২০২০ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                      নম্বর : ৪৪৩১

 

তুরস্কের ভাইস প্রেসিডেন্টের সাথে অর্থমন্ত্রীর বৈঠক

বাণিজ্য বৃদ্ধিতে উভয়পক্ষের আশ্বাস

 

আঙ্কারা (তুরস্ক), ৭ অগ্রহায়ণ (২২ নভেম্বর) :    

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল গতকাল তুরস্কের আঙ্কারায় সেদেশের ভাইস প্রেসিডেন্ট Fuat Oktay-এর সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন। এ সময় দ্বিপাক্ষিক ব্যবসা-বাণিজ্য সম্পর্কে তাদের মধ্যে পারস্পরিক আলোচনা হয়। আলোচনায় তুরস্কের ভাইস প্রেসিডেন্ট বলেন, তুরস্ক ও বাংলাদেশের কূটনেতিক সম্পর্ক অত্যন্ত ভালো। তিনি আরো বলেন, দ্বিপাক্ষিক ব্যবসা-বাণিজ্যের ক্ষেত্রে আমাদের একে অন্যের প্রতিযোগী না হয়ে আন্তরিকতা নিয়ে ব্যবসা করতে হবে। 

অর্থমন্ত্রী বাংলাদেশের সার্বিক অগ্রগতি এবং বিনিয়োগের সুবিধাগুলো তুলে ধরলে তুরস্কের ভাইস প্রেসিডেন্ট বাংলাদেশের চামড়াজাত দ্রব্যের প্রতি আগ্রহ ব্যক্ত করেন। একই সাথে আইসিটি খাতে তুরস্ক যেহেতু অত্যন্ত সফল তাই চামড়াজাত দ্রব্য ও আইসিটি খাতে বাংলাদেশকে সহায়তা প্রদানের লক্ষ্যে প্রকল্প প্রেরণের অনুরোধ করেন।

Fuat Oktay বাংলাদেশে বাণিজ্য বৃদ্ধির লক্ষ্যে একটি কার্যালয় স্থাপনের আগ্রহ প্রকাশ করে বলেন, যেহেতু বাংলাদেশে তাদের বাজার রয়েছে এবং তারা যেহেতু ইউরোপ-সহ অন্যান্য দেশের প্রবেশদ্বার, তাই কার্যালয় স্থাপন করলে বাণিজ্য অনেকখানি বৃদ্ধি পাবে। অর্থমন্ত্রী এ বিষয়টি বিবেচনা করা হবে বলে  তুরস্কের ভাইস প্রেসিডেন্টকে আশ্বস্ত করেন। এ সময়ে আরো উপস্থিত ছিলেন তুরস্কে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এম আল্লামা সিদ্দিকী এবং পররাষ্ট মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালক মোঃ দাউদ আলী।  

আ হ ম মুস্তফা কামাল তুরস্কের ভাইস প্রেসিডেন্টকে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে সালাম ও শুভেচ্ছা জ্ঞাপন করে তাঁকে বাংলাদেশ সফরের আমন্ত্রণ জানান।

#

তৌহিদুল/ইসরাত/মোশারফ/আব্বাস/২০১৯/২০২৩ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                          নম্বর :  ৪৪৩০

 

সাতক্ষীরা সীমান্ত থেকে ৪ কেজি ৬৬৮ গ্রাম স্বর্ণ আটক করেছে বিজিবি

 

সাতক্ষীরা, ৭ অগ্রহায়ণ (২২ নভেম্বর) :

 

সাতক্ষীরা সীমান্তের কাকডাংগা বিওপির দায়িত্বপূর্ণ অঞ্চল বালিয়াডাংগা বাজার এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে হতে ৪ কেজি ৬৬৮ গ্রাম ওজনের ৩১টি স্বর্ণের বার আটক করেছে সাতক্ষীরা ব্যাটালিয়ন (৩৩ বিজিবি) এর টহল দল। সাতক্ষীরা ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল মোহাম্মদ গোলাম মহিউদ্দিন খন্দকার জানান, দীর্ঘদিন যাবৎ হুন্ডি, মাদক চোরাচালান, স্বর্ণ ও রৌপ্য আটকের নিমিত্তে বিজিবির বিশেষ পরিকল্পনা অনুযায়ী গোয়েন্দা তৎপরতা-সহ অভিযান জোরদার করা হয়েছে।

 

আজ কাকডাংগা বিওপিতে কর্মরত হাবিলদার মোঃ নূরে আলমের নেতৃত্বে একটি অভিযান পরিচালনা করা হয়। স্বর্ণের বারের আনুমানিক মূল্য ২ কোটি ৮০ লাখ টাকা। আটককৃত স্বর্ণের বার সাতক্ষীরা ট্রেজারি অফিস, জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে জমা দেওয়া হয়।

 

#

 

মহিউদ্দীন/ইসরাত/মোশারফ/সেলিম/২০১৯/১৯০০ ঘণ্টা

 

 

তথ্যবিবরণী                                                                                          নম্বর :  ৪৪২৯

 

চালের দর বাড়ানোর সুযোগ নেই

                      -- খাদ্যমন্ত্রী

 

নওগাঁ, ৭ অগ্রহায়ণ (২২ নভেম্বর) :

 

খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেছন, দেশে প্রয়োজনের চেয়ে বেশি খাদ্য মজুত আছে; স্থিতিশীল আছে চালের বাজার দর, বাড়ানোর সুযোগ নেই। সিন্ডিকেট করে, গুজব ছড়িয়ে বাজার দর অস্থিতিশীল করার চেষ্টা করলে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। 

 

আজ নওগাঁর পোরশা উপজেলার তেতুলিয়ায় স্থানীয় আওয়ামী লীগের কাউন্সিল অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন। 

 

মন্ত্রী বলেন, দেশ আজ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ। চলতি মৌসুমী আমনের ফলনও ভালো হয়েছে। তিনি বলেন, দেশের শ্রমজীবী ও কৃষিজীবী মানুষ কঠোর পরিশ্রম করে মাথার ঘাম পায়ে ফেলে শস্য উৎপাদন করেছেন। সেই শ্রম কিছুতেই মূল্যহীন হতে দেওয়া হবে না। একইসাথে অতিরিক্ত দরে যাতে ভোক্তাকে চাল কিনতে না হয় সেজন্য বাজার মনিটরিং ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। 

 

সরকারি গুদামে ধান-চাল সংগ্রহের বিষয়ে মন্ত্রী বলেন,  প্রকৃত কৃষক ছাড়া কারো কাছ থেকে ধান কেনা হবে না। সরকারি ধান চাল ক্রয়ে রাজনৈতিক নেতা বা প্রভাবশালীদের স্থান দেওয়া হবে না। ধান দিতে এসে কৃষককে যাতে হয়রানির শিকার হতে না হয়; সে জন্য  নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এরপরও কেউ অনিয়ম করলে তার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 

 

কৃষকদের উদ্দেশে মন্ত্রী বলেন, সরকারি ধান চাল ক্রয় সহজ ও ডিজিটালাইজড করতে পরীক্ষামূলকভাবে দেশের ১৬টি উপজেলায় ‘কৃষকের অ্যাপ’ চালু করা হয়েছে। পর্যায়ক্রমে এটি সারা দেশে ছড়িয়ে দেওয়া হবে। এতে চাষিরা সহজেই ঝামেলাহীনভাবে গুদামে ধান চাল সরবরাহ করতে পারবেন। আমন ধান কাটা ও মাড়াই চলছে। এবার চাষিরা ভাল দাম পাবে বলেও আশাবাদ ব্যাক্ত করেন মন্ত্রী। 

 

#

 

সুমন/ইসরাত/মোশারফ/সেলিম/২০১৯/১৮৫০ ঘণ্টা

 

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                       নম্বর : ৪৪২৮  

 

সরকার আলেম সমাজকে সাথে নিয়ে দেশের উন্নয়ন করতে চায়

                                                          ---ধর্ম প্রতিমন্ত্রী

ঘাটারচর (কেরানীগঞ্জ) ৭ অগ্রহায়ণ (২২ নভেম্বর) :    

 

          ধর্ম প্রতিমন্ত্রী আলহাজ্ব এডভোকেট শেখ মোঃ আব্দুল্লাহ বলেছেন, দেশের কওমী, আলিয়া, পীর-মাশায়েখ-সহ সকল ধারার ওলামায়ে কেরামের মধ্যে সেতুবন্ধ রচনা করে ঐক্যবদ্ধ প্লাটফরম তৈরি করা হবে।  উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডে দেশের আলেম সমাজকে আরো বেশি সম্পৃক্ত করা হবে।

 

          প্রতিমন্ত্রী আজ ঘাটারচর, কেরানীগঞ্জ, ঢাকার মসজিদুল আজিজ এ মসজিদ উন্নয়নের জন্য সুধী সমাবেশে  প্রধান অতিথির  বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

 

          প্রতিমন্ত্রী বলেন, সাম্প্রতিক বছরগুলোতে দেশে সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও উগ্রবাদবিরোধী জনসচেতনতামূলক কার্যক্রমে এ দেশের ইমাম, খতিব-সহ সমগ্র আলেম সমাজ অত্যন্ত আন্তরিকভাবে তাদের দায়িত্ব পালন করেছেন। তাঁদের খুতবা, বয়ান, ওয়াজ মাহফিল এবং আলোচনার মাধ্যমে এদেশের মানুষকে সচেতন করেছেন। এর ফলে জঙ্গিবাদ, উগ্রবাদ ও সন্ত্রাস নিয়ন্ত্রণে বাংলাদেশ সাফল্য অর্জন করেছে; যা ইতোমধ্যে বিশ্বব্যাপী সুনাম অর্জন করেছে।

 

          প্রতিমন্ত্রী বলেন, জনগণকে রাজনৈতিক ও প্রশাসনিক মোটিভেশনের পাশাপাশি ধর্মীয় মোটিভেশনর মাধ্যমে সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ,মাদক, বাল্য বিবাহ-সহ নানাবিধ সামাজিক সমস্যার বিষয়ে আরও জোরালোভাবে সচেতন করতে হবে। এক্ষেত্রে দেশের সর্বস্তরের ওলামায়ে কেরাম, পীর-মাশায়েখদের ঐক্যবদ্ধ হওয়ার কোনো বিকল্প নেই । 

 

          অনুষ্ঠানে বক্তব্য  রাখেন সাবেক খাদ্যমন্ত্রী এডভোকেট কামরুল ইসলাম,  জামেয়া আরাবিয়া রাহমানিয়া, ঢাকা এর প্রিন্সিপাল মুফতি মাহফুজুল হক, হজ এজেন্সিজ এসোসিয়েশন অভ্ বাংলাদেশ (হাব) এর সভাপতি এম শাহাদাত হোসাইন তাসলিম, হামদর্দ  ল্যাবরেটরিজ (ওয়াকফ) এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. হাকীম ইউসুফ হারুন ভূঁইয়া প্রমুখ।

 

#

আনোয়ার/ইসরাত/মোশারফ/আব্বাস/২০১৯/১৯৩৮ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                         নম্বর :  ৪৪২৭

 

আন্তর্জাতিক রুট হবে চিলমারী নদীবন্দর
                    -- নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী
 

চিলমারী (কুড়িগ্রাম), ৭ অগ্রহায়ণ (২২ নভেম্বর) :

 

নৌপরিহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, চিলমারী নদীবন্দরকে আন্তর্জাতিক নৌরুটে রূপ দেওয়ার জন্য প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে। আগামী মাসে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটিতে (একনেক) তিনশত কোটি টাকার  চিলমারী নদীবন্দর উন্নয়ন প্রকল্পের অনুমোদন হলে এর কার্যক্রম শুরু হবে।

 

প্রতিমন্ত্রী আজ কুড়িগ্রাম জেলার চিলমারী নদীবন্দরের রমনাঘাট ও জোড়গাছ এলাকা পরিদর্শনকালে এসব কথা বলেন।

 

প্রতিমন্ত্রী বলেন, চিলমারীতে যাত্রী  ও পণ্য পরিবহনের জন্য আলাদা দু’টি বন্দর হবে। এখানে কাস্টমসের সুবিধাগুলো তৈরি করার জন্য প্রধানমন্ত্রী ইতোমধ্যে নির্দেশ দিয়েছেন। প্রতিমন্ত্রী বলেন, ভারতের সাথে আমাদের নৌ প্রটোকল আছে, ভুটানের সাথেও নৌ প্রটোকল করতে যাচ্ছি। এ রুটটি হবে একটি আন্তর্জাতিক নৌরুট, যা চালু হয়ে গেলে এ এলাকার অর্থনীতিতে বিরাট গতি সঞ্চারিত হবে।

 

খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, চিলমারী বন্দর  ভারত,  ভুটান ও নেপালের জন্য গুরুত্বপূর্ণ নদীপথ। ইতোমধ্যে তারা এ বন্দর ব্যবহারে আগ্রহ প্রকাশ করেছে। ড্রেজিং-সহ নানা কাজে আর্থিকভাবে সহযোগিতাও করছে ভারত। এ্ বন্দরের মাধ্যমে উত্তরাঞ্চলের মানুষের সাথে সারা দেশের নৌ যোগাযোগ  স্থাপন করা হবে। এতে চিলমারী-সহ পুরো উত্তরাঞ্চলের অর্থনৈতিক ও সামাজিক উন্নয়ন ঘটবে।

 

এ সময় প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মোঃ জাকির হোসেন, নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ভোলা নাথ দে, বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান কমডোর এম মাহবুব উল ইসলাম, কুড়িগ্রাম জেলা প্রশাসক সুলতানা পারভীন, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ জাফর আলী, কুড়িগ্রাম পুলিশ সুপার মহিবুল ইসলাম খান-সহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

 

#

 
জাহাঙ্গীর/ইসরাত/রাহাত/মোশারফ/সেলিম/২০১৯/১৮৪০ ঘণ্টা

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                   নম্বর :  ৪৪২৬

 

শুধু আইন দিয়ে অন্যায় দূর করা যাবে না, প্রয়োজন নৈতিক শিক্ষার

                                                         -- পরিকল্পনা মন্ত্রী

 

ঢাকা, ৭ অগ্রহায়ণ (২২ নভেম্বর) :

 

পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এ মান্নান বলেছন, শুধু আইন দিয়ে অন্যায় দূর করা যাবে না, প্রয়োজন নৈতিক শিক্ষার।

 

মন্ত্রী আজ ঢাকার শেরেবাংলা নগরে এনইসি সম্মেলন কক্ষে বাংলাদেশ বায়োএথিকস সোসাইটি আয়োজিত Ô২০তম এশিয়ান বায়োএথিকস সম্মেলনে’ প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

 

মন্ত্রী বলেন, বায়োএথিকস ডাক্তারি পেশার ক্ষেত্রে খুবই প্রয়োজন। চিকিৎসায় অপ্রয়োজনীয় ব্যয় রোধে এর প্রয়োজন। ডাক্তাররা নিজেরাই বায়োএথিকস করছেন, আমরা তাদের সাথে আছি। তিনি আরো বলেন, সরকার দুর্নীতির বিরুদ্ধে যে শুদ্ধি অভিযান শুরু করেছে বর্তমান সময়ের আলোকে এটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

 

সম্মেলনে বিশেষ অতিথি ছিলেন তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মোঃ মুরাদ হাসান ।

 

সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন পরিকল্পনা সচিব মোঃ নুরুল আমিন, বাংলাদেশ বায়োএথিকস সোসাইটির প্রেসিডেন্ট অধ্যাপক ডা. তাসলিমা মনসুর ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক শামীমা পারভীন লস্কর প্রমুখ৷ 

 

উল্লেখ্য, এশীয় প্যাসিফিক অঞ্চলের ৪০টি দেশের প্রায় তিনশত প্রতিনিধি সম্মেলনে অংশগ্রহণ করেন।

 

#

 

শাহেদ/ইসরাত/মোশারফ/সেলিম/২০১৯/১৮৩০ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                         নম্বর :  ৪৪২৫

 

টেরেস্ট্রিয়াল হচ্ছে বিটিভি চট্টগ্রাম

                           -- তথ্যমন্ত্রী

 

চট্টগ্রাম, ৭ অগ্রহায়ণ (২২ নভেম্বর) :

 

তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহ্‌মুদ বলেছেন, বিজয়ের মাস ডিসেম্বর  থেকে বাংলাদেশ টেলিভিশন চট্টগ্রাম কেন্দ্র ১২ ঘণ্টা সম্প্রচারে যাবে এবং শীঘ্রই এ কেন্দ্রের সম্প্রচার স্যাটেলাইটের পাশাপাশি টেরেস্ট্রিয়াল মাধ্যমেও শুরু হবে।

 

আজ চট্টগ্রাম সার্কিট হাউজে বিশ্ব টেলিভিশন দিবস ২০১৯ উপলক্ষে আয়োজিত গোলটেবিল বৈঠকে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় মন্ত্রী একথা বলেন। বাংলাদেশ টেলিভিশন চট্টগ্রাম কেন্দ্র, টিভি জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন, চট্টগ্রাম ও চট্টগ্রাম টিভি ক্যামেরা জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন সম্মিলিতভাবে এ গোলটেবিল বৈঠকের আয়োজন করে।

 

মন্ত্রী বলেন, বর্তমানে বিটিভি চট্টগ্রাম কেন্দ্র শুধু ক্যাবল টেলিভিশন হিসেবে সারা দেশে ও বিদেশে দেখা যায়। আগামী কয়েক মাসের মধ্যে এটিকে টেরেস্ট্রিয়াল চ্যানেল হিসেবেও উন্নীত করা হবে।

 

প্রিন্ট মাধ্যমের সাংবাদিকদের মতো টিভি সাংবাদিকদের আইনি সুরক্ষা দেওয়া প্রয়োজন বলে মন্তব্য করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, টেলিভিশনে কর্মরত সাংবাদিক ভাই-বোনদেরও আইনি সুরক্ষা দেওয়া প্রয়োজন। যারা ওয়েজবোর্ড নিয়ে  প্রিন্ট মাধ্যমে কাজ করেন, তাদের জন্য আইনি সুরক্ষা আছে। কিন্তু টেলিভিশনের ক্ষেত্রে আইনি সুরক্ষা এখন পর্যন্ত নেই। আমরা এ বিষয়টি নিয়ে কাজ করছি। 

 

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন ও চট্টগ্রাম  বিভাগীয় কমিশনার মোঃ আবদুল মান্নান। অন্যান্যের মধ্যে বাংলাদেশ টেলিভিশনের উপমহাপরিচালক (বার্তা) অনুপ কুমার খাস্তগীর, বিটিভি চট্টগ্রাম কেন্দ্রের মহাব্যবস্থাপক নিতাই কুমার ভট্টাচার্য, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের (বিএফইউজে) সহ-সভাপতি রিয়াজ হায়দার চৌধুরী, চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি কলিম সরওয়ার, একুশে পত্রিকার সম্পাদক আজাদ তালুকদার, টিভি জার্নালিস্টস এসোসিয়েশন, চট্টগ্রাম সভাপতি নাসির উদ্দিন তোতা প্রমুখ।

 

#

 

আকরাম/ইসরাত/মোশারফ/সেলিম/২০১৯/১৮০০ ঘণ্টা

 

 

তথ্যবিবরণী                                                                                          নম্বর :  ৪৪২৪

 

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়কে যেন নিজের কোলে লালন করছে প্রকৃতি

                                                                 -- তথ্যমন্ত্রী

 

চট্টগ্রাম, ৭ অগ্রহায়ণ (২২ নভেম্বর) :

 

তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহ্‌মুদ বলেছেন, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় এমন একটি বিশ্ববিদ্যালয় যেটিকে প্রকৃতি অপরূপ সাজে সাজিয়েছে। আমার পৃথিবীর বহু বিশ্ববিদ্যালয়ে যাওয়ার সৌভাগ্য হয়েছে। কিন্তু এমন সুন্দর প্রকৃতির শোভা পৃথিবীর খুব কম বিশ্ববিদ্যালয়ে আছে। প্রকৃতি যেন নিজের কোলে লালন করছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়কে।

 

আজ বিশ্ববিদ্যালয় দিবস উপলক্ষে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় এলামনাই এসোসিয়েশনের উদ্যোগে প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে মন্ত্রী এসব কথা বলেন। চট্টগ্রাম নগরীর জিইসি কনভেনশন সেন্টারে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। 

 

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরে  ভবিষ্যতে যাতে এলামনাইয়ের এই মিলনমেলার মতো আরো মিলন মেলা করা হয় এমন আশাবাদ ব্যক্ত করে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগের প্রাক্তন ছাত্র তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান বলেন, চেনা মুখগুলো বহু বছর দেখিনি, তাদের সাথে দেখা হলো আজ। ইচ্ছে করে আবার চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সেই জীবনে ফিরে যেতে। যারা এই আয়োজন করেছেন তাদেরকে তিনি ধন্যবাদ জানান।  

 

মন্ত্রী বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াকালীন আমি চট্টগ্রাম শহরে থাকতাম। তবে পরীক্ষার আগে কয়েক মাস হলে থাকতাম। ট্রেনে করেই বিশ্ববিদ্যালয়ে যেতাম। আমার ট্রেনের সহপাঠীরা অনেকেই আজ এসেছে। আমার সেই বন্ধুরা এখানে অনেকেই আছে।

 

সবার জন্য সুন্দর জীবন ও সমৃদ্ধি কামনা করে তিনি বলেন, সবাই মিলে আমরা আমাদের দেশকে স্বপ্নের ঠিকানায় পৌঁছাবো। সেটাই হোক সকলের প্রত্যাশা। 

 

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য শিরীন আখতার, এলামনাই এসোসিয়েশনের সভাপতি  আব্দুল করিম, সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম-সহ বিপুলসংখ্যক প্রাক্তন শিক্ষার্থী এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

 

#

 

আকরাম/ইসরাত/মোশারফ/সেলিম/২০১৯/১৭০০ ঘণ্টা

 

a20237ec445279bbb373e3cbe2d3eb9e.docx a20237ec445279bbb373e3cbe2d3eb9e.docx

Share with :

Facebook Facebook