তথ্য অধিদফতর (পিআইডি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২৯ নভেম্বর ২০১৯

তথ্যবিবরণী 29/11/2019

তথ্যবিবরণী                                                                                                      নম্বর : ৪৫২৩ 

শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে গেছেন

                                                      ---অর্থমন্ত্রী

 

কুমিল্লা, ১৪ অগ্রহায়ণ (২৯ নভেম্বর) :

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশের উন্নয়নের কারিগর। বাংলাদেশকে একটি মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত করার অঙ্গীকার করেছেন। শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে অনন্য এক উচ্চতায় নিয়ে গেছেন। তিনি আরো বলেন, ছাত্রলীগের কর্মীরাই সংগঠনের প্রাণ। সকল শক্তির মূল উৎস তারাই। বঙ্গবন্ধুর উন্নত সমৃদ্ধ সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠার জন্য তাদের দায় রয়েছে। ছাত্রলীগ ৫২ এর ভাষা আন্দোলন থেকে শুরু করে ৭১ এর মুক্তিযুদ্ধ-সহ বিভিন্ন আন্দোলনে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে।

 

আজ কুমিল্লা সদর দক্ষিণ উপজেলার পিপুলিয়া দিঘীরপাড় টিআইকে মেমোরিয়াল মাঠে আয়োজিত উপজেলা ছাত্রলীগের সম্মেলনে অর্থমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

 

অর্থমন্ত্রী তাঁর সাম্প্রতিক তুরস্ক সফর সম্পর্কে বলেন, বাণিজ্য ও বিনিয়োগ-সহ বেশ কিছু লক্ষ্যকে সামনে রেখে বাংলাদেশ ও তুরস্কের মধ্যে বাণিজ্য বিনিয়োগ ও অর্থনৈতিক সাহায্য সংশ্লিষ্ট যৌথ ইশতেহার স্বাক্ষরিত হয়েছে।

 

কুমিল্লা সদর দক্ষিণ উপজেলা ছাত্রলীগের সম্মেলনে মোঃ কামাল হোসেনের সভাপতিত্বে আরো উপস্থিত ছিলেন কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আবু তৈয়ব অপি ও জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক লোকমান হোসেন রুবেল।

 

#

তৌহিদুল/ইসরাত/মোশারফ/আব্বাস/২০১৯/২০২৭ ঘণ্টা   তথ্যবিবরণী                                                                                                                নম্বর : ৪৫২২

 

অসচ্ছল শিল্পীদের ভাতার পরিমাণ ও সংখ্যা দুটোই বৃদ্ধি করা হবে

                                                        -- সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী

 

ঢাকা, 1৪ অগ্রহায়ণ (২৯ নভেম্বর) :    

 

সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ বলেছেন, সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় নিয়মিত আর্থিকভাবে অসচ্ছল শিল্পীদের ভাতা প্রদান করে আসছে। কিন্তু মন্ত্রণালয়ের আর্থিক সীমাবদ্ধতার কারণে ভাতার পরিমাণ ও সুবিধাভোগীর সংখ্যা বর্তমানে সীমিত রয়েছে। অতিদ্রুত অসচ্ছল শিল্পীদের ভাতার পরিমাণ ও সংখ্যা দুটোই বৃদ্ধি করা হবে। তবে ভাতা যাতে প্রকৃত অসচ্ছল শিল্পীরা পান, এ ব্যাপারে মন্ত্রণালয়ের নজরদারি বাড়ানো হচ্ছে এবং একইসঙ্গে এ সংক্রান্ত বিভিন্ন শিল্পী সংগঠনের প্রয়োজনীয় সহযোগিতা কামনা করা হচ্ছে। 

 

প্রতিমন্ত্রী আজ সন্ধ্যায় রাজধানীর বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালা মিলনায়তনে নাগরিক নাট্য সম্প্রদায় কর্তৃক নতুন প্রজন্মের ৭ জন নির্দেশকের ৭টি নতুন নাটকের মঞ্চায়ন উপলক্ষে আয়োজিত Ôনতুনের উৎসব ২০১৯’ শীর্ষক নাট্যোৎসবের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন। 

 

নাগরিক নাট্য সম্প্রদায়ের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক নাট্যজন আতাউর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন বিশ্ব আইটিআইয়ের সভাপতি রামেন্দু মজুমদার, ঢাকা থিয়েটারের সভাপতি নাসির উদ্দীন ইউসুফ ও বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকী। স্বাগত বক্তব্য রাখেন Ôনতুনের উৎসব ২০১৯’ এর আহ্বায়ক ও নাগরিক নাট্য সম্প্রদায়ের সহ-সভাপতি সারা যাকের।

 

#

 

 ফয়সল/ইসরাত/মোশারফ/সেলিম/২০১৯/২০০০ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                       নম্বর :  ৪৫২১

 

সমাজের কল্যাণ ও আর্থসামাজিক উন্নয়নে এপেক্সকে আরো ভূমিকা রাখতে হবে

                                                                                  ---কৃষিমন্ত্রী

            

ঢাকা, ১৪ অগ্রহায়ণ (২৯ নভেম্বর) : 

 

          এপেক্স ক্লাব সমাজের কল্যাণ এবং দেশের আর্থ সামাজিক উন্নয়নে ভূমিকা রাখছে। আজকের সম্মেলন এপেক্স এর কাজকে আরো গতিশীল করবে। এজন্য এপেক্সদের ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে। বাংলাদেশকে উন্নত দেশের কাতারে পৌঁছাতে এপেক্সকে  ভূমিকা রাখতে হবে।

 

          আজ কৃষিমন্ত্রী ড. মোঃ আব্দুর রাজ্জাক ঢাকায় ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে এপেক্স বাংলাদেশ জেলা ২ এর ৩৮ তম সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন।

 

          মন্ত্রী বলেন, দেশকে উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত করতে পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীকে উন্নয়নের মূল স্রোতধারায় সম্পৃক্ত করতে হবে। এপেক্স আর্তপীড়িত মানুষের কল্যাণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। মন্ত্রী এ সময় দানবীর রনদা প্রসাদ সাহার জীবনের মানবকল্যাণকর নানা দিক তুলে ধরেন। 

 

          মন্ত্রী বলেন, সদস্যরা স্ব স্ব অবস্থান থেকে দেশের জন্য অবদান রাখবেন। সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ-সহ নানা অসামাজিক কাজ নির্মূল করতে এপেক্সদের সংঘবদ্ধ থাকার আহ্বান জানান।

 

          উল্লেখ্য, এপেক্স বাংলাদেশ একটি আন্তর্জাতিক সেবা সংগঠন। ১৯৩১ সালে অস্ট্রেলিয়ার জিলং শহরে তিন তরুণ প্রকৌশলী এই ক্লাব প্রতিষ্ঠা করেন। অস্ট্রেলিয়া-সহ বিশ্বের প্রায় আটটি দেশে সেবা, সৌহার্দ্য এবং বন্ধুত্বের মূল মন্ত্র নিয়ে কাজ করে তরুণদের এই সংগঠন।  বাংলাদেশে ১৯৬১ সালে প্রকৌশলী সুলেমান খান এই সেবা আন্দোলনকে পরিচয় করিয়ে দেন। বর্তমানে সারা দেশে ১২০টি ক্লাবের মাধ্যমে ৪ হাজারেরও বেশি সদস্য তরুণ সমাজের জন্য নিয়মিত কাজ করে যাচ্ছেন।

 

          এপেক্স জেলা ২ এর গভর্নর এপেক্স হারুন অর রশিদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন এপেক্স বাংলাদেশের জাতীয় সভাপতি এপেক্স সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন।

 

#

গিয়াস/ইসরাত/মোশারফ/আব্বাস/২০১৯/১৯১২ ঘণ্টা   

তথ্যবিবরণী                                                                                                        নম্বর : ৪৫২০ 

 

সকল বয়স ও পেশার মানুষকে আন্তরিকভাবে কাজ করে যেতে হবে

                                                                ---তথ্যমন্ত্রী

            

ঢাকা, ১৪ অগ্রহায়ণ (২৯ নভেম্বর) : 

 

          তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহ্‌মুদ বলেছেন, সরকারের রূপকল্প অনুযায়ী ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ পূর্ণ মধ্যম আয়ের ও ২০৪১ সালের মধ্যে মধ্যম আয় থেকে উন্নত দেশ হবে। আর এজন্য সকল বয়স ও পেশার মানুষকে আন্তরিকভাবে কাজ করে যেতে হবে।

 

          আজ ঢাকায় নর্থসাউথ ইউনিভার্সিটিতে বিশ্ববিদ্যালয় আয়োজিত '৯ম এনএসইউ ক্যারিয়ার ফেয়ার' এর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতা শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

 

          আগামী ৫ ডিসেম্বরের মধ্যে খালেদা জিয়াকে মুক্তি না দিলে বিএনপি সরকার উৎখাতের আন্দোলনে যাবে'- বিএনপি'র এমন ঘোষণার প্রতি সাংবাদিকরা তথ্যমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করলে ড. হাছান বলেন,  খালেদা জিয়ার মুক্তির বিষয়টি সরকারের হাতে নেই। বিচারিক প্রক্রিয়াটি সম্পূর্ণ আদালতের বিষয়। 

 

          মন্ত্রী বলেন, গত অর্থবছরে শতকরা ৮ দশমিক ১৩ শতাংশ  জিডিপি প্রবৃদ্ধি অর্জনের মাধ্যমে বাংলাদেশ এখন বিশ্বের অন্যতম সর্বোচ্চ জিডিপি প্রবৃদ্ধির দেশ।  তিনি এসময় শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে বলেন, তোমাদেরকে  মা-বাবার যত্ন, দেশপ্রেম ও সময়ের সদ্ব্যবহার করতে হবে। 

 

          এনএসইউ'র উপাচার্য অধ্যাপক আতিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের চেয়ারম্যান অধ্যাপক কাজী শহীদুল্লাহ্, এনএসইউ ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান বেনজীর আহমেদ, ক্যারিয়ার ফেয়ার পরিচালক অধ্যাপক মোঃ খসরু মিয়া প্রমুখ অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন। বিপুলসংখ্যক প্রাক্তন ও বর্তমান শিক্ষার্থীবৃন্দ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

 

 

#

আকরাম/ইসরাত/মোশারফ/আব্বাস/২০১৯/১৮২০ ঘণ্টা  তথ্যবিবরণী                                                                                                                 নম্বর : ৪৫১৮

জাতীয় আয়কর দিবসে রাষ্ট্রপতির বাণী

             

ঢাকা, ১৪ অগ্রহায়ণ (২৯ নভেম্বর) : 

 

          রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ জাতীয় আয়কর দিবস উপলক্ষে নিম্নোক্ত বাণী প্রদান করেছেন :     

‘‘জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের উদ্যোগে জাতীয় আয়কর দিবস পালিত হচ্ছে জেনে আমি আনন্দিত। এ উপলক্ষে আমি সম্মানিত করদাতা ও কর বিভাগের সাথে সংশ্লিষ্ট সকলকে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানাচ্ছি।

পৃথিবীর সকল উন্নত রাষ্ট্রের প্রধান রাজস্ব উৎস হিসেবে বিবেচিত হয় প্রত্যক্ষ কর বা আয়কর। বাংলাদেশ রূপকল্প ২০২১ এবং রূপকল্প ২০৪১ এর পথ ধরে সুখী-সমৃদ্ধ ও উন্নত দেশে পরিণত হওয়ার পথে অগ্রসর হচ্ছে। এ লক্ষ্য অর্জনে বাস্তবায়িত হচ্ছে পদ্মাসেতু, মেট্রোরেল, রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র, পায়রা সমুদ্র বন্দরের মতো মেগা  প্রকল্প। এ সকল উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের যথাযথ বাস্তবায়নে দেশের অভ্যন্তরীণ সম্পদ সংগ্রহ বৃদ্ধির কোনো বিকল্প নেই। এ ক্ষেত্রে আয়কর প্রদানকারীর সংখ্যা এবং আয়কর খাতে রাজস্ব আহরণ বৃদ্ধি অত্যন্ত জরুরি। আয়কর কেবল রাজস্ব আহরণের প্রধান খাত নয়, ধনী ও দরিদ্রের মধ্যে সম্পদের বৈষম্য দূরীকরণের মাধ্যমে অর্থনৈতিক ও সামাজিক ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠায়ও একটি কার্যকরী মাধ্যম। ‘সবাই মিলে দেব কর, দেশ হবে স্বনির্ভর’ - স্লোগানকে সামনে রেখে এ বছর জাতীয় আয়কর দিবসের নির্ধারিত প্রতিপাদ্য ‘কর প্রদানে স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ, নিশ্চিত হোক রূপকল্প বাস্তবায়ন’ অত্যন্ত সময়োপযোগী ও যথার্থ হয়েছে বলে আমি মনে করি।

দেশের উন্নয়নের অভীষ্ট লক্ষ্যে পৌঁছাতে অভ্যন্তরীণ সম্পদের পর্যাপ্ত যোগান অপরিহার্য। মুক্তবাজার অর্থনীতির এ যুগে অভ্যন্তরীণ রাজস্ব আহরণের উৎস হিসেবে আয়করের গুরুত্ব প্রতিনিয়ত বৃদ্ধি পাচ্ছে। আয়কর সম্পর্কে জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে আয়কর বিভাগ জাতীয় আয়কর দিবস উদযাপন, আয়কর মেলা ও আয়কর সপ্তাহ আয়োজনসহ বিভিন্ন উদ্ভাবনীমূলক পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। এর মাধ্যমে আয়কর নিয়ে জনগণের মধ্যে সচেতনতা সৃষ্টির পাশাপাশি দেশে কর সংস্কৃতির লালন ও বিকাশ ত্বরান্বিত হবে - এ প্রত্যাশা করি।

আমি ‘জাতীয় আয়কর দিবস ২০১৯’ উপলক্ষে আয়োজিত সকল কর্মসূচির সার্বিক সফলতা কামনা করছি।

খোদা হাফেজ, বাংলাদেশ চিরজীবী হোক।’’

#

ইমরানুল/ইসরাত/মোশারফ/আব্বাস/২০১৯/১৭০০ ঘণ্টা 

তথ্যবিবরণী                                                                                                        নম্বর : ৪৫১৯

 

জাতীয় আয়কর দিবসে প্রধানমন্ত্রীর বাণী

 

ঢাকা, ১৪ অগ্রহায়ণ (২৯ নভেম্বর) : 

          প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতীয় আয়কর দিবস উপলক্ষে নিম্নোক্ত বাণী প্রদান করেছেন :

 

          “প্রতি বছরের ন্যায় এবারও জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের উদ্যোগে ৩০ নভেম্বর ‘জাতীয় আয়কর দিবস-২০১৯’ পালিত হচ্ছে জেনে আমি অত্যন্ত আনন্দিত। দিবসটি পালন উপলক্ষে আমি দেশের সম্মানিত সকল নাগরিক, করদাতা এবং আয়কর বিভাগের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সকলকে অভিনন্দন জানাই।

 

          কর আহরণের মাধ্যমে সামাজিক ন্যায়বিচার ও সমতা নিশ্চিত করা কর বিভাগের প্রধান কাজ। ‘সবাই মিলে দেব কর, দেশ হবে স¦নির্ভর’- স্লোগানকে সামনে রেখে এ বছর জাতীয় আয়কর দিবসের প্রতিপাদ্য ‘কর প্রদানে স¦তঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ, নিশ্চিত হোক রূপকল্প বাস্তবায়ন’ নির্ধারণ করা হয়েছে।

 

জাতীয় রাজস্ব বোর্ড ব্যবসা ও বিনিয়োগবান্ধব পরিবেশ নিশ্চিত করার পাশাপাশি রাষ্ট্রের রাজস্ব ভা-ারকে সমৃদ্ধ করার মাধ্যমে সরকারের উন্নয়ন কর্মসূচি সফলভাবে বাস্তবায়নে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। কর প্রদানে দেশের জনগণকে উদ্বুদ্ধ করার লক্ষ্যে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের বিভিন্ন উদ্ভাবনীমূলক কর্মসূচি গ্রাম পর্যায় পর্যন্ত বিস্তৃত করা হয়েছে। ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে করদাতাদের প্রত্যাশা অনুযায়ী সহজ ও গতিশীল (ওয়ানস্টপ) করসেবা প্রদানের মাধ্যমে ১৪-২০ নভেম্বর আয়কর মেলা-২০১৯ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

 

এ বছর আয়কর মেলায় করদাতাদের স¦তঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ ও অভূতপূর্ব সাড়া কর আহরণের ক্ষেত্রে নতুন ইতিহাস সৃষ্টি করেছে। সাত দিনে রেকর্ড পরিমাণ আয়কর আহরিত হয়েছে। এজন্য আমি সম্মানিত করদাতা ও নাগরিকসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই।

 

          আয়কর প্রদানকে সামাজিক মর্যাদার প্রতীক হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করার লক্ষ্যে এবং করদাতাগণকে স্বপ্রণোদিতভাবে কর প্রদানে আগ্রহী ও অনুপ্রাণিত করতে প্রতি বছর জাতীয় রাজস্ব বোর্ড ৩টি ক্যাটেগরিতে ১৪১ জন করদাতাকে ট্যাক্স কার্ড প্রদানের পাশাপাশি সর্বোচ্চ ও দীর্ঘমেয়াদি কর প্রদানের ভিত্তিতে ৫১৮ জন করদাতাকে সম্মাননা সনদ প্রদান করে।

 

          জাতীয় রাজস্ব বোর্ড রাজস¦ আহরণ ও ক্রমান্বয়ে কর-জিডিপির আনুপাতিক হার বৃদ্ধির মাধ্যমে সরকারের রূপকল্প-২০২১ ও রূপকল্প-২০৪১ বাস্তবায়নে শক্তিশালী ভূমিকা পালন করে যাচ্ছে। জাতীয় আয়কর দিবস-২০১৯ এর সকল আয়োজন সুন্দর ও সার্থক হোক - এই প্রত্যাশা করি। 

জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু

বাংলাদেশ চিরজীবী হোক।”

#

সরওয়ার/ইসরাত/মোশারফ/সেলিম/২০১৯/১৭০৫ ঘণ্টা

932b84e264bcc1f7d768f10831c3f22a.docx 932b84e264bcc1f7d768f10831c3f22a.docx

Share with :

Facebook Facebook